পোশাক শ্রমিকদের মজুরি কাঠামো সমন্বয়ের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৭ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ১৪ ১৪২৬,   ২৩ শাওয়াল ১৪৪০

পোশাক শ্রমিকদের মজুরি কাঠামো সমন্বয়ের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক :: staff-reporter

 প্রকাশিত: ১৬:৫০ ১৩ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১৭:৩৯ ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফাইল ছবি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ফাইল ছবি

বেতন কাঠামোতে বৈষম্যের অভিযোগ এনে পোশাক শ্রমিকদের এক সপ্তাহ ধরে চলা আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে বিষয়টি সমাধানে পাঁচটি গ্রেডের মজুরি সমম্বয়ের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার রাতে এ সমস্যার সমাধানে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ও সচিবকে বঙ্গভবনে ডেকে নেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানে পোশাক মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএ'র নেতাদেরও ডাকা হয়। এরপর তাদের সঙ্গে কথা বলে বিরাজমান সমস্যা নিরসনে প্রধানমন্ত্রী শ্রমিকদের স্বার্থে ৩, ৪ ও ৫ নম্বর গ্রেডের পাশাপাশি ১ ও ২ নম্বর গ্রেডের মজুরি সমন্বয়ের নির্দেশ দেন।

শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, পোশাক শ্রমিকদের জন্য সরকার ঘোষিত বেতন কাঠামোর সাতটি গ্রেডের মধ্যে পাঁচটি গ্রেডে মজুরি সমন্বয়ের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। সমন্বয়ের পর এসব গ্রেডে মজুরি আশানুরূপ বৃদ্ধি পাবে বলে সরকার মনে করে।

সূত্র মতে, শ্রমিক বান্ধব সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৩, ৪ ও ৫ নম্বর গ্রেডের সঙ্গে ১ এবং ২ নং গ্রেডের মজুরি সমন্বয়ের নির্দেশ দিয়েছেন। এর ফলে সমন্বয়ের পর প্রতিটি গ্রেডে এই মজুরি যৌক্তিক হারে বাড়বে। নতুন মজুরি কাঠামো অনুযায়ী প্রতিশ্রুত মজুরি প্রদান এবং মজুরি কাঠামো পরিবর্তনের দাবিতে গত বেশ কয়েকদিন ধরেই রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে কাজ বন্ধ রেখে আন্দোলন করছেন পোশাক শ্রমিকরা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশের পর পোশাক শ্রমিকদের মজুরি সমন্বয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। শ্রমিকদের কয়েকটি গ্রেডে আশানুরূপ মজুরি না বাড়ায় পোশাক খাতে উদ্ভূত পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকার গ্রেডগুলোর সমন্বয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানিয়েছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুন্নজান সুফিয়ান। রোববার বিকেলে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে প্রতিমন্ত্রী মুন্নজান ‍সুফিয়ান এ ঘোষণা দেন।

এর আগে সেখানে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশীসহ বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা শেষে  শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশের অর্থনীতির প্রাণশক্তি গার্মেন্ট শিল্প। এ খাতে শ্রমিকদের স্বার্থ সংরক্ষণের বিষয়ে বিবেচনা করতে সরকার দ্রুত ত্রিপক্ষীয় মজুরি সমন্বয় কমিটি গঠন করে। কমিটি পক্ষ থেকে সমস্যা সমাধানে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষকে নিয়ে বৈঠক করে সবপক্ষের সুবিধাজনক অবস্থা বজায় রেখে উদ্ভূত সমস্যা সমাধানের পথ খোঁজা হয়েছে।

শ্রম প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, সংশ্লিষ্ট সবার ঐকমত্যের ভিত্তিতে শ্রমিকদের স্বার্থে ৩, ৪ ও ৫ নম্বর গ্রেডে মজুরি সমন্বয়ের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। শ্রমিকবান্ধব সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৩, ৪ ও ৫ নম্বর গ্রেডের সঙ্গে ১ ও ২ নম্বর গ্রেডের মজুরি সমন্বয়ের নির্দেশ দেন। ফলে প্রতিটি গ্রেডেই মজুরি যৌক্তিকহারে বেড়েছে। সব পক্ষের সহযোগিতায় কমিটি সন্তোষজনক সমাধানের পথে পৌঁছাতে সক্ষম হয়েছে। দেশের তৈরি পোশাক শিল্পের উন্নয়নে শ্রমিকরা আজকের মধ্যেই কাজে যোগ দেবেন বলে আশা করছে সরকার।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআই/এস