Alexa পৃথিবীতে আসতে গিয়েই নিশ্চিহ্ন এলিয়েনরা!

ঢাকা, শনিবার   ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯,   অগ্রহায়ণ ৩০ ১৪২৬,   ১৭ রবিউস সানি ১৪৪১

পৃথিবীতে আসতে গিয়েই নিশ্চিহ্ন এলিয়েনরা!

বিজ্ঞান ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১০:৫৯ ২৫ নভেম্বর ২০১৯  

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

সত্যজিৎ রায়ের ‘বঙ্কুবাবুর বন্ধু’ গল্পে ভিনগ্রহের সেই প্রাণীর সঙ্গে মানুষের বন্ধুত্বের কথা মনে আছে? হয়তো এই বন্ধুত্ব শুধু বইয়ের পাতা আর সিনেমার পর্দাতেই সম্ভব। কারণ আমাদের সঙ্গে ভিনগ্রহের প্রাণীদের দেখা হওয়া আর সম্ভব নয়! এমনটাই মনে করছেন বিজ্ঞানীরা।

মার্কিন পদার্থবিজ্ঞানী এনরিকো ফার্মির ‘ফার্মি প্যারাডক্স’ অনুযায়ী মহাবিশ্বে ভিনগ্রহের জীবের অস্তিত্ব অবশ্যই রয়েছে। আরো মার্কিন জ্যোতির্বিজ্ঞানী ফ্র্যাঙ্ক ড্রেকের মতে, ছায়াপথে উন্নত জীবের অস্তিত্বের সম্ভাবনাও রয়েছে। তবে তাদের সংখ্যা কত বা কোথায় রয়েছে তারা, তা জানা যায়নি সঠিকভাবে। তবে প্রশ্ন একটাই, কেন মানুষের সঙ্গে দেখা হলো না এলিয়েনের?

এই প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন সুইজারল্যান্ডের ‘ফেডেরাল পলিটেকনিক্যাল স্কুল অব লসেন’-এর পদার্থবিদ ক্লডিও গ্রিম্যালডি। এই গবেষণায় তার সঙ্গে আরো বেশ কয়েকজন বিজ্ঞানী ছিলেন। তাদের মতে, ভিনগ্রহ থেকে আসা কোনো রেডিও সংকেত পৃথিবীতে পৌঁছনোর অনেক আগেই এলিয়েনরা নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে। এর কারণ, মহাশূ্ন্য পেরিয়ে সেই তরঙ্গ অন্য সভ্যতার সংস্পর্শে আসার সময়। 

গবেষণার কারণে বিজ্ঞানীরা ধরে নিয়েছিলেন, যে কোনো সভ্যতার আনুমানিক বয়স ১০০,০০০ বছর। এলিয়েনরাও ততোবছর বেঁচে থাকতে পারে। একমাত্র মানব সভ্যতা ২০০,০০০ বছর ধরে টিকে রয়েছে বলে মনে করা হয়। অর্থাৎ এলিয়েন সভ্যতা থেকে পাঠানো কোনো সংকেত আমাদের কাছে এসে পৌঁছতে যতদিন লাগবে, ততোদিনে ভিনগ্রহের সেই প্রাণীদের অস্তিত্ব শেষ হয়ে যাবে। 

বিষয়টি নিয়ে বিজ্ঞানীদের আগ্রহ এখনো কমেনি। ৮০ বছর ধরে বিজ্ঞানীরা পৃথিবী থেকে ভিনগ্রহে রেডিও সংকেত সম্প্রচার করতে পেরেছেন এবং তাতে ছায়াপথের মাত্র ০.০০১ শতাংশ অতিক্রম করা সম্ভব হয়েছে। বোঝাই যাচ্ছে বঙ্কুবাবু থাকলেও তার বন্ধুর সত্যিই দেখা মিলবে না!

ডেইলি বাংলাদেশ/এনকে