পুরুষের ব্যবসা করা নিষেধ এই হাঁটে কিন্তু কেন?

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৮ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ৪ ১৪২৬,   ১৩ শাওয়াল ১৪৪০

পুরুষের ব্যবসা করা নিষেধ এই হাঁটে কিন্তু কেন?

ফিচার ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:৩৯ ১১ জুন ২০১৯  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

বিক্রেতা নারী হোক বা পুরুষ ক্রেতারা তো বাজারে আসবেই! বাজার বলতে আমরা সেই স্থানকেই বুঝি যেখানে নানা ধরনের ক্রেতা ও বিক্রেতার সমাগম ঘটে। তবে ভারতের মণিপুর প্রদেশে এমন একটি বাজার রয়েছে যেখানে ক্রেতা নানা ধরনের হলেও বিক্রেতা সবাই নারী। এখানে পুরুষদের বাজার থেকে কেনাকাটা করার অনুমতি থাকলেও ব্যবসা করার অনুমতি নেই। তবে এই নিষেধাজ্ঞা কিন্তু সরকারি আদেশ নয়। যদি কোনো পুরুষ এখানে ব্যবসা করার চেষ্টা করে তবে সব নারীরা এক জোট হয়ে প্রতিরোধ করে।

মণিপুরের রাজধানী ইম্ফলে অবস্থিত ওই বাজারের নাম ‘মাদার মার্কেট’। মণিপুরিরা ‘খেইতাল’ বলে। বাজারে প্রায় পাঁচ হাজার নারী ব্যবসায়ী রয়েছেন। এটাই এশিয়া মহাদেশের নারী দ্বারা পরিচালিত সবচেয়ে বড় বাজার। আয়তনে বড় হলেও বাজারটি বেশ ছিমছাম। এর গোড়াপত্তন প্রায় পাঁচশ বছর আগে। ওই সময়ে মণিপুরের অবস্থা ছিল টালমাটাল। অধিকাংশ পুরুষই যুদ্ধ বিগ্রহ নিয়ে পড়ে থাকতো। ফলে উপার্জনের জন্য নারীরা ব্যবসা শুরু করে। 

সেই থেকে শুরু। এরপর কালের বিবর্তনে বাজারের পরিধি বেড়েছে। বেড়েছে নারী ব্যবসায়ীর সংখ্যা। দৈনন্দিন সদাইপাতি থেকে শুরু করে কাপড়, হস্তশিল্প সবই পাওয়া যায় বাজারে। অন্য বাজারের চেয়ে এখানকার জিনিসপত্র তুলনামূলক সস্তায় পাওয়া যায় বলে সকাল-বিকাল এখানে ক্রেতার ভিড় লেগেই থাকে। বিশেষ করে উত্‍সবপার্বণে এই বাজার থেকে কেনাকাটা করা মণিপুরবাসীদের কাছে এতিহ্যও বটে।

লিসারাম দেবী প্রায় তিন দশক ধরে হস্তশিল্পের জিনিস বিক্রি করছেন এই বাজারে। বিবিসিকে দেয়া এক সাক্ষাত্‍কারে তিনি এই বাজারকে নারীর ক্ষমতায়তনের উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত বলে মনে করেন। শুধু লিসারাম দেবীই নন, তার মতো হাজারো মণিপুরি নারীর জন্য ক্ষমতায়ন ও নিজের পায়ে দাঁড়ানোর এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত এই বাজার।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস