পিস্তল ঠেকিয়ে ক্রসফায়ারের হুমকি, ওসিসহ সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০২ এপ্রিল ২০২০,   চৈত্র ১৯ ১৪২৬,   ০৮ শা'বান ১৪৪১

Akash

পিস্তল ঠেকিয়ে ক্রসফায়ারের হুমকি, ওসিসহ সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা

চট্টগ্রাম মহানগর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৩:১৫ ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ব্যবসায়ীকে ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে চাঁদা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে নগরের বায়েজিদ বোস্তামি থানার বর্তমান ও সাবেক ওসিসহ সাত পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে।

বুধবার বিকেলে অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মহিউদ্দীন মুরাদের আদালতে এ প্রসঙ্গে একটি মামলা দায়ের করেছেন মোহাম্মদ ইয়াছিন নামে এক ব্যবসায়ী।

মামলায় অভিযুক্তরা হলেন, বায়েজিদ বোস্তামি থানার বর্তমান ওসি প্রিটন সরকার, সাবেক ওসি আতাউর রহমান খোন্দকার, এসআই মোহাম্মদ আফতাব, এএসআই মোহাম্মদ ইব্রাহিম, এএসআই মিঠুন নাথ, কনস্টেবল রহমান ও কনস্টেবল সাইফুল।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (প্রসিকিউশন) মো. কামরুজ্জামান বলেন, আদালত অভিযোগটি আমলে নিয়ে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (প্রশাসন ও অর্থ) স্যারকে তদন্ত ভার দিয়েছেন।

বাদীর আইনজীবী শহিদুল ইসলাম সুমন জানান, মোহাম্মদ ইয়াছিন একজন ব্যবসায়ী। তিনি চট্টগ্রাম পলিটেকনিক কলেজ এলাকায় রড-সিমেন্টের ব্যবসা করেন। গত বছরের ২০ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টার দিকে বায়েজিদ বোস্তামি থানার তৎকালীন ওসি আতাউর রহমান খোন্দকারের নেতৃত্বে একদল পুলিশ মোহাম্মদ ইয়াছিনকে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে তুলে নিয়ে যান। তাকে থানায় নিয়ে পাঁচ ঘণ্টা তৎকালীন পরিদর্শক (তদন্ত) প্রিটন সরকারের (বর্তমান ওসি) কক্ষে আটকে রেখে ১০ লাখ টাকা আদায় করা হয়।

দ্বিতীয় দফায় গত ৪ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৭টার দিকে শেরশাহ এলাকা থেকে তাকে আবারো তুলে নেয় পুলিশ। এরপর নগরের অক্সিজেন অন্যান্য আবাসিক এলাকায় নিয়ে মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে ক্রসফায়ারের হুমকি দিয়ে আরো ১২ লাখ টাকা আদায় করা হয়।

বাদীর আইনজীবী আরো জানান, আদালত অভিযোগটি আমলে নিয়ে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনারকে (প্রশাসন ও অর্থ) তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের আদেশ দিয়েছে।

এ ব্যাপারে জানতে বায়েজিদ বোস্তামি থানার ওসি প্রিটন সরকারের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করে হলেও তিনি কোনো সাড়া দেননি।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম