Exim Bank Ltd.
ঢাকা, বুধবার ১৪ নভেম্বর, ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫

পার্ক জিন হিউক: অভিযোগ-বিশ্লেষণ

সৈয়দ মাহমুদ জামানডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম
পার্ক জিন হিউক: অভিযোগ-বিশ্লেষণ
মার্কিন বিচার বিভাগের প্রকাশিত পার্ক জিন হিউক এর ছবি

২০১৪ সালের থ্যাংসগিভিং ছুটির ঠিক আগের সোমবার। সাপ্তাহিক ছুটি কাটিয়ে অফিসে এক এক করে প্রবেশ করছেন সনি পিকচার্স এন্টারটেইনেমেন্টের বিশাল কর্মীবাহিনী। যার যার চেয়ারে বসে কিম্পউটার খুলতেই সবাই একই জিনিস দেখতে পান! একটা লাল রঙের করোটি ও সঙ্গে লাল হরফে লেখা একটি বার্তা, ‘আমরা আগেও তোমাদের সাবধান করেছি, এটা মাত্র শুরু। সামনে আরো আসছে...’। পরবর্তী একটি মাস ছিল হলিউডের বিখ্যাত এই প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটির কাছে দুঃস্বপ্নের মতো। ‘শান্তির রক্ষক’ নামের হ্যাকাররা সার্ভারে থাকা নতুন এবং মুক্তি প্রতিক্ষিত সিনেমা ও সিরিজ বেআইনি ডাউনলোড সাউটগুলোতে আপলোড করে দেয়। সেই সঙ্গে সনির কর্মচারীদের ব্যক্তিগত ই-মেইল, বেতনাদি সংক্রান্ত তথ্য এমনকি অতীব গোপনীয় মেডিকেল রেকর্ডও প্রকাশ করে দেয়।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং বিভিন্ন দেশের সাইবার নিরাপত্তায় নিয়জিত প্রতিষ্ঠানগুলো বেশ কয়েকবছর ধরেই এই সাইবার হামলার জন্য উত্তর কোরিয়াকে দায়ী করে আসছে। যদিও অনুমান নির্ভর, এশিয়ার এই দেশটি সেই অভিযোগ সবসময়ই তা অস্বীকার করে এসেছে। বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগ বিষয়টিকে অনুমানের বাইরে এনে আনুষ্ঠানিকভাবেই অভিযোগপত্র দাখিল করেছে নির্দিষ্ট একজনের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত এই হ্যাকার উত্তর কোরিয়ারই বাসিন্দা এবং তার নাম পার্ক জিন হিউক। পার্কের বিরুদ্ধে অভিযোগ কিন্তু শুধু সনির সার্ভার হ্যাক করা নয়, ২০১৭ সালের মে মাসের ভয়াবহ 'ওয়ানাক্রাই র‌্যানসমওয়ার্ম' হামলা, ২০১৬ সালে বাংলাদেশ ব্যাংকের সার্ভার হ্যাক করে আট কোটি ডলার চুরিসহ আরো কয়েকটি।

উত্তর কোরিয়ার বিশেষ হ্যাকিং দলের অন্যতম সদস্য পার্কের প্রতি অভিযোগ কিন্তু অনেক পুরোনো। বেশ অনেক বছর থেকেই বিভিন্ন হ্যাকিংয়ের জন্য তার দিকে একাধিকবার আঙুল তুলেছে দক্ষিণ কোরিয়াসহ বেশ কয়েকটি দেশ। তবে ২০১৪ সালের বেশ আগেই পার্কের হ্যাকিং কার্যক্রম বেশ কমে যাওয়ায় ধারণা করা হয়েছিল তিনি হয়ত অপরাধের জীবন থেকে অবসর নিয়েছেন। কিন্তু মার্কিন বিচার বিভাগের অভিযোগ প্রমাণ করলো, অবসর তো দূর, তিনি এখনো বেশ ভালোই সক্রিয়। পিয়ংইয়ংয়ের কিম চায়েক ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজির ছাত্র পার্কের নামে মার্কিন বিচার বিভাগের ১৮০ পৃষ্ঠার সুবিশাল এবং সুবিন্যাস্ত এই অভিযোগপত্রে বলা হয়েছে, ‘বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ব্যক্তিগত সার্ভারে অনুপ্রবেশ করে, যে ক্ষতিসাধণ করা হয়েছে তা শুধু অপূরণীয় নয়, অবিশ্বাস্য এবং অদ্বিতীয়।’

তবে অভিযোগপত্রে মার্কিন আইনজীবীরা শুধু পার্কের নাম উল্লেখ করলেও সুনির্দিষ্টভাবে বলেছেন, 'কাজটি' তিনি একা করেননি। তারা জানান, 'চোসান এক্সপো জয়েন্ট ভেনচার' নামের একটি প্রতিষ্ঠানের হয়ে হ্যাকিংগুলো চালিয়েছেন পার্ক। আর এই প্রতিষ্ঠানটি উত্তর কোরিয়া সরকারের সৃষ্টি অনেকগুলো 'ছায়া প্রতিষ্ঠান'-এর একটি। যা মূলত দেশটির সামরিক গোয়েন্দাদের হয়ে কাজ করে। পার্ক ২০১২ সালে চিনের দাইলানে 'সিইজেভি'-এর শাখা কার্যালয়ে ফিল্ড প্রোগ্রামার হিসেবে যোগ দেন। দুই বছর চিনে কাজ করে তিনি ফিরে যান নিজ দেশ উত্তর কোরিয়ায়। এরপরপরই সনিতে হ্যাক হওয়ার ঘটনাটি ঘটান তিনি।

বিচার বিভাগের একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা ট্রেসি উইলকিসন বলেছেন, একটি বিষয় পরিষ্কার থাকা খুব প্রয়োজন, পার্কের পেছনে ষড়যন্ত্রকারিরা রয়েছে এবং তাদের ইশারেই এই অপরাধ সংঘটিত হয়েছে। তদন্ত এখনো চলছে বলেও তিনি ইঙ্গিত দিয়েছেন। তাহলে শুধু পার্কের বিরুদ্ধে অভিযোগ কেন? কারণ সাইবার নিরাপত্তা সংক্রান্ত অভিযোগে নির্দিষ্ট করে কোনো প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে 'আঙুল' তোলা সম্ভব নয়। যদি না পর্যাপ্ত তথ্য প্রমাণ থেকে থাকে। তার মানে একটি বিষয় পরিষ্কার পার্কের বিরুদ্ধে মার্কিন বিচার বিভাগের হাতে যথেষ্ঠ প্রমাণ রয়েছে।

সাইবার নিরাপত্তা নিয়ে কাজ করা 'ফায়ারআই' নামের প্রতিষ্ঠানের সাইবারএসপিওনাজ বিশেষজ্ঞ বেন রিড বলেছেন, 'এই ধরনের হ্যাকারদের বিরুদ্ধে প্রমাণ পাওয়া খুব কঠিন। কারণ কাজের ক্ষেত্রে খুতখুতে হওয়ার কারণে এরা পেছনে কোনো চিহ্ন রাখেন না। তবে একবার যদি সামান্য ভুলে কোনো চিহ্ন থেকেই যায় তবেই এই ধরনের অপরাধীকে ধরা সম্ভব।' তাহলে দেখা যাচ্ছে, পার্ক তেমনটা সাবধানী নন। তদন্তকারীরা পার্কের ব্যাক্তিগত এবং 'কিম হিউন উ' ছদ্মনামে ব্যবহৃত আরেকটি ই-মেইলের হদিস পেয়েছেন। কিম নামে সৃষ্ট এই ই-মেইলটি ব্যবহার করে একই কম্পিউটার দিয়ে পার্ক কমপক্ষে তিনটি মিডিয়া অ্যাকাউন্ট তৈরি করেন, যার মাধ্যমে সনি ও বাংলাদেশের হ্যাকিংগুলো তিনি করেছেন।

মার্কিন বিচার বিভাগের আনিত অভিযোগগুলি উত্তর কোরিয়ার বিভিন্ন হ্যাকিং প্রচেষ্টার ক্ষেত্রে আরো প্রযুক্তিগত বিবরণ প্রদান করে, যার মধ্যে বেশিরভাগই এখনকার অতি পরিচিত স্পিয়ার ফিশিং (বিশ্বাসী কোনো ব্যাক্তির মাধ্যমে ইমেইল পাঠিয়ে প্রতারণা করে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাক্তিগত তথ্য জানা) অভিযানের মাধ্যমে শুরু হয়। কিন্তু একই সঙ্গে এটাও প্রমাণ করে বর্তমান সময়ে উত্তর কোরিয়ার ডিজিটাল সরঞ্জামগুলো কতোটা চিত্তাকর্ষক এবং আধুনিক, এতটাই নিখুত যা সাইবার নিরাপত্তায় নিয়জিত বিশেষজ্ঞদের দ্বিধাহীন প্রশংসার দাবিদার।

রিড আরো বলেন, তাদের তৈরি মেলওয়্যার একটি বিষয়েই নিশ্চিত তথ্য দেয়, তা হলো, এই একটি বিষয়ে তারা ব্যাপক বিনিয়োগ করছে। এ ধরনের বিশেষ অস্ত্র তৈরি করতে লোকবল, অর্থ ও মেধা- এই তিনটির সমন্বয় প্রয়োজন এবং তা তারা করছেন। তাদের প্রয়োজনীয় সব ধরনের উপকরণ রয়েছে এই বিশেষ 'অস্ত্র' তৈরি করবার। যা হয়তো একেবারেই অনন্য বা অদ্বিতীয় নয়, কিন্তু নিখুত এবং দারুন কার্যকর। আর এ কারণেই দেশটি এক বিশেষ উচ্চতায় যেতে পেরেছে।

উত্তর কোরিয়ার সাইবার আক্রমণের সক্ষমতা কতোটা ভয়াবহ তা হয়তো এই সামান্য কথাতে বোঝা সম্ভব নয়। এমনকি সনির সার্ভারে প্রবেশ করে তাদের বিশাল লোকবলেরর যাবতীয় তথ্য প্রকাশ করাটাও ছিল অত্যন্ত সামান্য একটি বিষয়। কারণ সনির হামলাটি মূলত প্রতিশোধমূলক। সনি প্রযোজিত কিমেডি প্রধান 'দ্য ইন্টারভিউ' ছবিতে উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উনকে মাথামোটা এক নির্বোধ হিসেবে দেখানো হয়েছে এবং তাকে হত্যার দৃশ্যও রয়েছে। তবে দেশটির হ্যাকাররা বা সরাসরি বলা যায় পার্ক যে ভুলটি করেছেন তা হলো, সনির অভিনেতাদের ব্যাক্তিগত ই-মেইলও তিনি হ্যাক করেন একটি বিশেষ ই-মেইল অ্যাকাউন্ট ([email protected]) দিয়ে। পরের ভুলটি আরো গুরুতর বা এক্ষেত্রে কিছুটা শিশুতোষও বটে। কারণ ঠিক এই ই-মেইলটি ব্যবহার করেই তিনি বা তারা বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তদের কাছ থেকে সার্ভার সম্পর্কিত তথ্য চুরি করেন। দুটি হ্যাকিংয়েই একই ই-মেইলের পাশাপাশি ব্যবহার করা হয় একই মেইলওয়্যার। তবে ওপিএম বা 'সুইফট' হ্যাকিংয়ে ওয়ান্নাক্রাই নামের যে মেইলওয়্যারটি ব্যবহার করা হয় তা অত্যন্ত শক্তিশালি হলেও একই ই-মেইল এবং একই আইপি ব্যবহার করেই সবচেয়ে বড় ভুলটা হয়ে যায়।

এই দুটি প্রতিষ্ঠানের হ্যাকিংয়ের কথা মার্কিন সরকার প্রকাশ না করলেও, সনি বা বাংলাদেশের রিজার্ভচুরির বিষয়টি বেশ ভালো মাত্রায় প্রভাব ফেলে মিডিয়াতে। পরে জানা যায় শুধু বাংলাদেশ নয়, এশিয়া, অফ্রিকা, ইউরোপ, উত্তর আমেরিকা ও দক্ষিণ আমেরিকার বেশ কয়েকটি ব্যাংকের সার্ভারই হ্যাক করেছেন উত্তর কোরিয়ার হ্যাকাররা। শুধু বাংলাদেশ থেকেই শত কোটি ডলার চুরির পরিকল্পনা ছিল তাদের যা শেষ পর্যন্ত আটকানো সম্ভব হয়। মেইলওয়্যারে থাকা বিল্ট-ইন 'কিল সুইচ' থাকার কারণেই মূলত বিপর্যয় ঠেকানো গেছে, এটিকে ছড়িয়ে পড়ার হাত থেকে রক্ষা পাওয়া গেছে। তা না হলে, বলাবাহুল্য বড় ধরনের ক্ষতির সম্মুখীণ হতে হতো সবাইকে।

যুক্তরাষ্ট্র এবং এর বন্ধুরাষ্ট্রদের পক্ষ থেকে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে একাধিকবার নানা ধরনের নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। তবে পার্ক জিন হিউকের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ দেশটির হ্যাকারদের বিরুদ্ধে মার্কিন বিচার বিভাগের আনা প্রথম সরাসরি এবং নির্দিষ্ট অভিযোগ। তার চেয়েও বড় কথা, এই অভিযোগটি এমন সময়ে দেয়া হলো রাশিয়ার সামরিক গোয়েন্দাদের বিরুদ্ধে ভুল তথ্য ছড়ানো এবং মার্কিন বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে লক্ষ্যবস্তু করা ইরানের হ্যাকারদের বিরুদ্ধে অভিযোগেরা জন্য তৈরি হচ্ছে মার্কিন বিচার বিভাগ। সংস্থাটির শীর্ষ এক কর্মকর্তা বলেছেন, 'খুব সহজ ভাষায় বললে, এই ধরনের নোংরামীপূর্ণ কাজ একেবারোই গ্রহণযোগ্য নয় এবং সাইবারস্পেসকে পরিষ্কার রাখার জন্য আমাদের, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে সবসময় সচেষ্ট থাকতে হবে।'

তবে একটি বিষয় খুব ভালো করে বুঝতে হবে, পার্কের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ সুনির্দিষ্ট হলেও, অাসলে তা একরকম প্রতীকী প্রতিবাদ। কারণ বর্তমান বিশ্ব রাজনীতির চুলচেরা হিসাবে, উত্তর কোরিয়া আপাত দৃষ্টিতে একটি নিঃস্বঙ্গ বন্ধুহীন দেশ। তাই তাদের 'এলিট' হ্যাকারদের একজন কোনো ভাবে বা হঠাৎ করে মার্কিন বিচার বিভাগের হাতে ধরা পরবে এই আশা করাটা এবোরেই ভুল। উত্তর কোরিয়া পর্যবেক্ষক এবং সাংবাদিক মার্টিন উইলিয়ামস বলেছেন, 'উত্তর কোরিয়া কখনোই পার্ককে যুক্তরাষ্ট্রের হাতে তুলে দেবে না বা চাইবে না সে বিচারের আওতায় আসুক। তাই এই আনুষ্ঠানিক অভিযোগ আসলে মূল্যহীন। তবে এই মূলত প্রতীকী অভিযোগ হলেও মার্কিন প্রশাসনের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। কারণ পার্কের নাম উল্লেখ করে হলেও এই প্রথম উত্তর কোরিয়াকে কোনো অপরাধের সঙ্গে সরাসরি সংশ্লিষ্ট করা গেল।'

সূত্র: ওয়্যারড, ফাস্টকম্পানি ও বিবিসি

ডেইলি বাংলাদেশ/এসজেড

আরোও পড়ুন
সর্বাধিক পঠিত
মনোনয়ন ফরম কিনেছেন যে তারকারা
মনোনয়ন ফরম কিনেছেন যে তারকারা
প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে নির্মিত ছবি ‘হাসিনা- এ ডটারস টেল’ মুক্তি পাচ্ছে
প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে নির্মিত ছবি ‘হাসিনা- এ ডটারস টেল’ মুক্তি পাচ্ছে
বিয়ের পিঁড়িতে আবু হায়দার রনি
বিয়ের পিঁড়িতে আবু হায়দার রনি
কুমিল্লায় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী প্রায় চুড়ান্ত !
কুমিল্লায় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী প্রায় চুড়ান্ত !
প্রধানমন্ত্রীর আসনে প্রার্থী দেবে না ড. কামাল
প্রধানমন্ত্রীর আসনে প্রার্থী দেবে না ড. কামাল
উত্তাপ বাড়ছে নোয়াখালী-৫ আসনে
উত্তাপ বাড়ছে নোয়াখালী-৫ আসনে
স্বামীকে খুশির খবর দিলেন আনুশকা, জানেন কী?
স্বামীকে খুশির খবর দিলেন আনুশকা, জানেন কী?
প্রভার বিয়ের আয়োজন!
প্রভার বিয়ের আয়োজন!
মদেই ‘বেসামাল’ প্রিয়াঙ্কা!
মদেই ‘বেসামাল’ প্রিয়াঙ্কা!
জন্ম ভারতে, পর্ন স্টার আমেরিকার!
জন্ম ভারতে, পর্ন স্টার আমেরিকার!
বাবা-মা’কে ‘টপকে’ গেলেন সোহানা!
বাবা-মা’কে ‘টপকে’ গেলেন সোহানা!
পর্ন সাইটে হিনার ‘রগরগে’ ছবি!
পর্ন সাইটে হিনার ‘রগরগে’ ছবি!
‘বিছানায় তো হরহামেশাই যেতে হয়’
‘বিছানায় তো হরহামেশাই যেতে হয়’
অরুণ হাতের নখ কাটেনি ২৫ বছর!
অরুণ হাতের নখ কাটেনি ২৫ বছর!
বিএনপির কার্যালয়ে ছিনতাইয়ের কবলে ফটোসাংবাদিক
বিএনপির কার্যালয়ে ছিনতাইয়ের কবলে ফটোসাংবাদিক
অভিনেত্রীকেই শেখালেন অভিনেত্রী, কী জানেন?
অভিনেত্রীকেই শেখালেন অভিনেত্রী, কী জানেন?
সুস্মিতার বিয়ে পাকা ১৪ বছরের ছোট প্রেমিকের সঙ্গে!
সুস্মিতার বিয়ে পাকা ১৪ বছরের ছোট প্রেমিকের সঙ্গে!
মোনালিসার বিয়ে, পাত্র কে জানেন?
মোনালিসার বিয়ে, পাত্র কে জানেন?
আদালতে যা বললেন খালেদা জিয়া
আদালতে যা বললেন খালেদা জিয়া
​সম্পর্ক ছিল না তাদের, তবুও সমালোচনায়...
​সম্পর্ক ছিল না তাদের, তবুও সমালোচনায়...
শিরোনাম:
তরুণদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর শুক্রবারের ‘লেটস টক’ অনুষ্ঠান স্থগিত তরুণদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর শুক্রবারের ‘লেটস টক’ অনুষ্ঠান স্থগিত ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে দেখা করতে ধানমন্ডিতে যুক্তফ্রন্ট নেতারা ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে দেখা করতে ধানমন্ডিতে যুক্তফ্রন্ট নেতারা নির্বাচনে সবাই অংশ নিলে জোর-জবরদস্তির সুযোগ থাকবে না: বাণিজ্যমন্ত্রী নির্বাচনে সবাই অংশ নিলে জোর-জবরদস্তির সুযোগ থাকবে না: বাণিজ্যমন্ত্রী ভোটের তারিখ পেছানোর আর সুয়োগ নেই: সিইসি, সরকার বহাল রেখে নির্বাচন সুষ্ঠু হয়, তা প্রমাণ হবে ভোটের তারিখ পেছানোর আর সুয়োগ নেই: সিইসি, সরকার বহাল রেখে নির্বাচন সুষ্ঠু হয়, তা প্রমাণ হবে