পানি সঙ্কটে বোরো আবাদ ব্যাহত

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৮ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ৫ ১৪২৬,   ১৪ শাওয়াল ১৪৪০

পানি সঙ্কটে বোরো আবাদ ব্যাহত

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ০৩:২৬ ১১ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ০৩:২৬ ১১ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

লক্ষ্মীপুরের মজুচৌধুরীর হাটে মেঘনা নদীর খালের ওপর স্লুইস গেটের নেভিগেশন লকসহ দুটি রেগুলেটর বিকল হয়ে পড়েছে। বন্ধ হয়ে গেছে ১২টি গেট। নদীর পানি খালে না আসায় জমিতে হাল দিতে পারছে না কৃষকরা। ব্যাহত হচ্ছে বোরো চাষ। 

বোরো মৌসুমে লক্ষ্মীপুরের কৃষকরা মেঘনা নদীর জোয়ারের পানির ওপর ভরসা করে আবাদ করে থাকেন। বিগত মৌসুমে পানির প্রয়োজন হলে রেগুলেটরের গেটগুলো খুলে দেয়া হতো। পর্যাপ্ত পানি এলে গেট বন্ধ করে দেয়া হতো। কিন্তু চলতি মৌসুমে রেগুলেটরের প্রায় সবগুলো গেট বন্ধ থাকায় পানি প্রবেশ করতে পারছে না, বিপাকে পড়েছেন কৃষকরা।

সদর উপজেলার চর উভুতি, কালির চর, ভবানীগঞ্জ, টুমচর, জকসিন, মান্দারী, মিরিকপুর, উত্তর জয়পুর, দত্তপাড়া, কুশাখালী ও তেওয়ারীগঞ্জের বেশিরভাগ কৃষক পানির অভাবে বোরো আবাদ করতে পারছেন না। কেউ কেউ বিকল্প উপায়ে পুকুর থেকে পানি নিয়ে চারা রোপণের চেষ্টা করছেন।

মজুচৌধুরীর হাটের কৃষক আমিন মিয়া বলেন, বোরো মৌসুমে অমাবশ্যা ও পূর্ণিমার আগে-পরে চার থেকে পাঁচদিন জোয়ার আসে। জোয়ারের পানি খালে ঢুকলে পাম্প দিয়ে জমিতে দেয়া হয়। কিন্তু গেট বন্ধ থাকায় পানি খালে আসতে পারছে না। আমরা জমিতে পানি দিতে পারছি না।

মজুচৌধুরীরহাট রেগুলেটরের গেইট অপারেটর মো. ফয়েজ বলেন, পাঁচটি গেট ভেঙে গেছে, ২৩টি গেটের কেইব্‌ল ছিঁড়ে গেছে, তাই গেটগুলো খুলে দেয়া সম্ভব হচ্ছে না। বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

লক্ষ্মীপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মাজহারুল ইসলাম বলেন, রেগুলেটরের গেট বিকল হওয়ার বিষয়টি জেনেছি। মেরামতের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। দ্রুত সমস্যার সমাধান হবে, কৃষকদের পানির অভাব কাটবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর