পাঠকদের আনাগোনায় মেলার চতুর্থ দিন ছিল উৎসবমুখর

ঢাকা, শুক্রবার   ১০ এপ্রিল ২০২০,   চৈত্র ২৭ ১৪২৬,   ১৬ শা'বান ১৪৪১

Akash

পাঠকদের আনাগোনায় মেলার চতুর্থ দিন ছিল উৎসবমুখর

নিজস্ব প্রতিবেক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০১:০৬ ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ০১:২৩ ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

চলছে বাংলা একাডেমি আয়োজিত অমর একুশে গ্রন্থমেলা। প্রাণের এই মেলার আগমণে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান জুড়ে নতুন বইয়ের ঘ্রাণ পাঠকদের সম্মোহিত করে। সারা বছর যেন তারা এই সময়টার জন্য অপেক্ষায় থাকে। তৈরি হয় পাঠক-লেখক কবি-সাহিত্যিক, সাংবাদিকদের মিলনমেলা।

বুধবার বইমেলার চতুর্থ দিনে বেড়েছে পাঠকদের আনাগোনা। সেই সঙ্গে বিক্রিও চলছে পুরোদমে। মেলাপ্রাঙ্গণ ছিল অনেকটা উৎসবমুখর। যেমন বেড়েছে পাঠক সমাগম, তেমনি বেড়েছে নতুন প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যাও।

বইমেলা মেলাপ্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা যায়, গত বছরগুলোর তুলনায় এবার পাঠকদের নির্বিঘ্নে মেলা উপভোগের জন্য স্টলগুলো সাজানো হয়েছে পরিচ্ছন্ন এবং অনেকটা গোছালোভাবে। তৈরি করা হয়েছে বসার জন্য আলাদা আলাদা বেশ কিছু জায়গা।

চতুর্থ দিনে নতুন প্রকাশিত বইয়ের তালিকাও বেশ লম্বা। এরইমধ্যে তথ্যকেন্দ্রে ৯৫টি প্রকাশিত বইয়ের তালিকা জমা পড়েছে। এর মধ্যে রয়েছে, অজয় দাশগুপ্তের ‘বঙ্গবন্ধু চিরকাল’ আনন্দময়ীর ‘অনুভবে চাই, মোসলেম উদ্দিন সাগরের ‘জীবনের রং’, নির্ঝর নৈঃশব্দ্যের ‘ফুলের অসুখ’, রেদোয়ান মাসুদের ‘মন বলে তুমি ফিরবে’, ইশতিয়াক আহমেদের ‘মাফলার’সহ গল্প, কবিতা, অনুবাদ, ছোটগল্প, সাইন্স ফিকশন, প্রবন্ধ মিলিয়ে প্রকাশিত হয়েছে আরও অনেক বই। এছাড়া তরুণ লেখক সাদাত হোসেনের কবিতার বই ‘তোমাকে দেখার অসুখ’ ও উপন্যাস ‘ছদ্মবেশ’ প্রকাশ পেয়েছে।

বাংলা একাডেমির পরিচালক ও মেলা পরিচালনা কমিটির সদস্য সচিব জালাল আহমেদ বলেন, এবারের বইমেলাটি আমরা বঙ্গবন্ধুর নামে উৎসর্গ করেছি। এত বড় একজন নেতার নামে শুধু উৎসর্গ করলে হবে না, তার জীবনের বিষয়গুলো ফুটিয়ে তুলতে হবে। আর সেটা তো সাধারণভাবে তুললেই হবে না। তাই মেলা প্রাঙ্গণটিকে আমরা চারটি অংশে বিভক্ত করেছি। সেগুলো হচ্ছে শিকড়, সংগ্রাম, মুক্তি এবং অর্জন। এগুলোর মধ্য দিয়ে বঙ্গবন্ধুর জীবনের বিভিন্ন অংশকে আমরা চিত্রিত করার চেষ্টা করেছি।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএ