Alexa পাট পচানো নিয়ে বিপাকে কৃষক

ঢাকা, রোববার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ৭ ১৪২৬,   ২২ মুহররম ১৪৪১

Akash

পাট পচানো নিয়ে বিপাকে কৃষক

করিম ইসহাক, রাজবাড়ী ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:১২ ২৩ আগস্ট ২০১৯   আপডেট: ০৭:২২ ২৪ আগস্ট ২০১৯

ডেইলি বাংলাদেশ

ডেইলি বাংলাদেশ

রাজবাড়ীতে পাট পচানো নিয়ে বিপাকে পড়েছেন কৃষকরা। নোংরা পানিতে পচানো পাট বিক্রি করতে হচ্ছে অর্ধেক দামে। জেলার মাটি পাট চাষের উপযোগী হওয়ায় এ বছর কৃষি জমির অর্ধেক পাট চাষ হয়েছে। পাটের চাষ বাড়লেও এখন পানির অভাবে পাট পচানো নিয়ে বিপাকে পরেছেন কৃষক।

বাড়ির আঙিনায় ডোবা বা নর্দমায় কাদামাটির মধ্যেই পচাতে হচ্ছে পাট। নোংরা এসব পানিতে পাট পচানোর কারণে পাটের রং সোনালী আশ থাকছে না হয়ে যাচ্ছে কালো। যে কারণে বাজারে অর্ধেক দামে বিক্রি করতে হচ্ছে পাট।

কৃষক সাত্তার, জলিল ও আমজাদ জানান, রাজবাড়ীতে পানির এতই অভাব দেখা দিয়েছে যে পাট কাটার পর মাথায় করে আবার গাড়িতে করে অনেক দূরে যেখানে পানি পাওয়া যাচ্ছে সেখানে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। অল্প পানির মধ্যে পাট রেখে কলা গাছ ও মাটি দিয়ে চাপা দিতে হচ্ছে। এতে শ্রমিক খরচ ও বাড়ছে।

তারা আরো জানান, বাজারে ভালো পাট বর্তমানে এক হাজার আটশত থেকে দুই হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর যাদের পাটের রং কালো তারা পাচ্ছে ১ হাজার থেকে ১ হাজার ২ শত টাকা।

কৃষি কর্মকর্তা মো. ফজলুর রহমান জানান, পাট পচানোর জন্য পাটের আশ ছাড়িয়ে ব্যবহারের পরামর্শ প্রদান করা হয়েছে।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের তথ্য মতে, রাজবাড়ীতে গত বছর ৪৬ হাজার ৮০০ হেক্টর জমিতে পাট চাষ হয়েছিল। এ বছর হয়েছে ৪৭ হাজার ১২০ হেক্টর জমিতে পাট চাষ হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম