Alexa পাখিদের নিরাপদ আশ্রয় দিলেন নওগাঁর ডিসি

ঢাকা, বুধবার   ১৭ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ৩ ১৪২৬,   ১৪ জ্বিলকদ ১৪৪০

পাখিদের নিরাপদ আশ্রয় দিলেন নওগাঁর ডিসি

নওগাঁ প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ১৫:২৯ ১০ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১৫:২৯ ১০ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

পাখি চায় বন, চায় মুক্ত আকাশ, নিরাপদ আশ্রয় ও প্রয়োজনীয় খাদ্য। তা যথাযথ ভাবে না পাওয়ায় দিনদিন কমছে তাদের সংখ্যা তাই পাখিদের জন্য কাজ করছে অনেকে। গড়ে তোলা হচ্ছে নিরাপদ অভয়াশ্রম। তারই ধারাবাহিকতায় পাখিদের জন্য ব্যতিক্রমী এক অভায়শ্রম গড়ে তুলেছেন নওগাঁর ডিসি মো. মিজানুর রহমান। 

প্রকিতিতে পাখির কিচির মিচির শব্দ ভিন্ন অনুভূতি যোগায়। পাখিরা বিশেষ করে গাছে আশ্রয় নিয়ে থাকে ডিম পাড়ে বাচ্চা ফুটায়। খরকুটদিয়ে বাসা বানায় ডালে ডালে। তবে প্রাকৃতিক দুর্যোগ ঝড়-বৃষ্টিতে গাছে আশ্রিত পাখিদের ক্ষতি হচ্ছে প্রতিনিয়ত। পাখিদের নিরাপদ অভয়াশ্রম গড়তে উদ্যোগ নিয়েছেন তিনি। বিগত কয়েক দিনে জেলার বিভিন্ন উপজেলার হাট বাজারে বড়বড় গাছে মাটির পাতিল বেঁধে দেয়া হয়েছে। 

বদলগাছী উপজেলার পশ্চিম বালুভরা গ্রামের একটি বটগাছে অনেক প্রজাতির পাখির আনাগোনা। তায় এই স্থানটিতে অভয়াশ্রম করতে গাছের ডালে ডালে পাতিল বেঁধে পাখিদের বাসস্থান তৈরি করা হয়েছে। তালিগুলোর এক পার্শে ছিদ্রযুক্ত দুটি ডালের মাঝখানে এমন ভাবে কায়দা করে পাতিল গুলো বসানো হয়েছে যাতে বৃষ্টির পানি ভেতরে ঢুকতে না পারে। এরইমধ্যে দোয়েল, ঘুঘু, বাবুইসহ বিভিন্ন প্রজাতির পাখি পাতিলগুলোতে বাসা বেঁধেছে এমনকি কাটবিড়ালও। 

নওগাঁ মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লি. এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম মাসুদ রানা বলেন- মূলত পাখিরা গাছে আশ্রয় নিয়ে থাকে। বছরে বেশ কয়েক বার ঝড়বৃষ্টি তাতে পাখিদের ডিম ভাঙে বাচ্চা নিচে পড়ে মারা যায় ডানা ভাঙাসহ বিভিন্ন ধরনের ক্ষয়ক্ষতি হয়। পাখি প্রকৃতির অমূল্য সম্পদ নওগাঁ ডিসি মো. মিজানুর রহমান তিনি ব্যতিক্রমী বেশকিছু উদ্যোগ নিয়েছেন। তার মধ্যে নি:সন্দেহে একটি ব্যতিক্রমী মহতী উদ্যোগ।

নওগাঁ ডিসি মো. মিজানুর রহমান ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, পাখিরা যেন নিরাপদে থাকতে পারে তাই অভয়াশ্রম গড়তে এমন পরিকল্পনা। জীবন ও বৈচিত্র্য সংরক্ষণে এ উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। প্রতিটি উপজেলা ছাড়াও নিবিড় স্থানগুলোতে পাখিদের জন্য নিরাপদ অভয়াশ্রম তৈরি করা হবে। পাখি দেশ ও প্রকৃতির সম্পদ তাদের রক্ষা করার দায়িত্ব সবার। 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম