পাকিস্তানের দূতাবাসে হেনস্তার শিকার তাহির

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২১ মে ২০১৯,   জ্যৈষ্ঠ ৭ ১৪২৬,   ১৫ রমজান ১৪৪০

Best Electronics

পাকিস্তানের দূতাবাসে হেনস্তার শিকার তাহির

 প্রকাশিত: ২১:৫৬ ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭   আপডেট: ০৯:৫৩ ৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭

পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত ক্রিকেটার তিনি। পাকিস্তানের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ফেরাতে অবদান রাখতেই গিয়েছিলেন বার্মিংহামের পাকিস্তান দূতাবাসে। কিন্তু সেখানে গিয়ে হেনস্তার শিকার হন ইমরান তাহির। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টুইটারে নিজের ভোগান্তির বর্ণনা দেন এই দক্ষিণ আফ্রিকান স্পিনার। পরে পাকিস্তান সরকারের পক্ষ থেকে ঘটনা তদন্তের আশ্বাস দেয়া হয়।

পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে আগামী সপ্তাহে লাহোরে যাবে বিশ্ব একাদশ। বিশ্ব একাদশের হয়ে খেলতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন তাহির। সোমবার ভিসা নিতে গিয়ে স্টাফদের দুর্ব্যবহারের শিকার হন দক্ষিণ আফ্রিকার তারকা স্পিনার।

নিজের দুর্ভোগের বর্ণনা দিয়ে তাহির টুইট করে লেখেন, `আজ (সোমবার) বার্মিংহামে পাকিস্তানের কনস্যুলেটে ভিসা নিতে গিয়ে খুবই দুর্ভাগ্যজনক পরিস্থিতির শিকার হতে হলো। পরিবারের সদস্যদের নিয়ে প্রথমে টানা পাঁচ ঘণ্টা বসে থাকতে হয়। তারপর দূতাবাসের কর্মীরা এসে আমাকে বের করে দিলেন এই বলে যে, অফিসের কাজের সময় শেষ হয়ে গেছে; তারা কনস্যুলেট বন্ধ করে দেবেন।`

পরের পাকিস্তানের হাই কমিশন থেকে জানানো হয়, কনস্যুলেটের স্টাফদের সহযোগিতায় ভিসা পান তাহির। সেইসঙ্গে জানানো হয়, তাহিরের পরিবারের সদস্যরা দক্ষিণ আফ্রিকান পাসপোর্টধারী হওয়ায় ভিসার কাজ সম্পন্ন করতে সময় লাগে।

এদিকে এই ঘটনায় পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আহসান ইকবাল জানিয়েছেন, দোষী যে-ই হোক না কেন তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। একইসঙ্গে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন তিনি।

২০০৯ সালে লাহোরে সফরকারী শ্রীলঙ্কার টিম বাসে হামলার পর থেকেই পাকিস্তানের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কার্যত বন্ধ হয়ে গেছে। বিশ্ব একাদশকে (সাত দেশের খেলোয়াড়) নিয়ে ঘরের মাঠে ক্রিকেট ফেরাতে মরিয়া পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড। লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে আগামী ১২, ১৩ ও ১৫ সেপ্টেম্বর ম্যাচ তিনটি অনুষ্ঠিত হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএ

Best Electronics