Alexa পাকা ভবনে বন্ধ শতাধিক সেতুর মুখ

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ৫ ১৪২৬,   ২০ মুহররম ১৪৪১

Akash

পাকা ভবনে বন্ধ শতাধিক সেতুর মুখ

এবিএম ছাত্তার, গাইবান্ধা ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২২:২১ ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে নিচু এলাকার পানি নিষ্কাশনের জন্য দেড় শতাধিক কালভার্ট, সেতু, ড্রেন নির্মাণ করেছে এলজিইডিসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি সংস্থা।

এসব স্থাপনার মুখ বন্ধ করে পাকা বাড়ি ও দোকান নির্মাণ করায় উপজেলার ১৫টি ইউপি ও একটি পৌরসভার বিভিন্ন এলাকায় দেখা দিয়েছে জলাবদ্ধতা।

সরেজমিনে দেখা গেছে, ব্যক্তিস্বার্থে প্রায় দেড় শতাধিক সেতু কালভার্ট, ড্রেনের মুখ বন্ধ করে বসতবাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নির্মাণ করা হচ্ছে। এতে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে চলাচলের পথ। ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে হাজারো একর জমির ফসল।

উপজেলার বাজারপাড়ার হাসান মিয়া জানান, সুন্দরগঞ্জ-গাইবান্ধা হাইওয়ের ডোমেরহাটে একটি সেতু মুখ বন্ধ করে বহুতল ভবন নির্মাণ করছেন ব্যবসায়ী বাবলু মিয়া। এতে ১০টি গ্রামে জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। পানি প্রবাহ বাধাগ্রস্ত হওয়ায় ফসলের ক্ষতি হচ্ছে।

রামজীবন ইউপি চেয়ারম্যান খন্দকার মিজানুর রহমান বলেন, ব্যবসায়ী বাবলু মিয়া ওই জমির মালিক। বিষয়টি নিয়ে তার সঙ্গে কথা বলেছি।

একই অভিযোগ পাওয়া গেছে ছাপড়হাটি ইউপির উত্তর মরুয়াদহ গ্রামের স্কুলশিক্ষক নুরুজ্জামান সরকারসহ বজড়া কঞ্চিবাড়ি, কালির খামারসহ কয়েকটি গ্রামের গুটিকয়েক প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে।

স্থানীয়রা জানায়, সুন্দরঞ্জের সাবেক ইউএনও আবদুল হাই মিল্টন এসব এলাকা পরিদর্শন করে নালার মুখ খুলে দিয়েছিলেন। কিন্তু কিছু দিন পর তা আবারো বন্ধ করে দিয়েছেন প্রভাবশালীরা।

উপজেলা প্রকৌশলী মোহাম্মদ আবুল মনসুর বলেন, জনস্বার্থে উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে সেতু, কালভার্ট, ড্রেন নির্মাণ করা হয়েছে। এসব স্থান দখল করে ভবন নির্মাণের বিষয়ে প্রশাসনিকভাবে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

গাইবান্ধা-১ আসনের এমপি ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী বলেন, আমি কয়েকটি এলাকায় সেতু, কালভার্টের মুখ বন্ধ করে ভবন নির্মাণের বিষষে অভিযোগ পেয়েছি। গুরুত্ব বিবেচনা করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর