Alexa পাকার আশায় রাস্তা খোঁড়াখুঁড়িতে দুর্ভোগ

ঢাকা, শনিবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ৬ ১৪২৬,   ২১ মুহররম ১৪৪১

Akash

পাকার আশায় রাস্তা খোঁড়াখুঁড়িতে দুর্ভোগ

 প্রকাশিত: ২০:৩৯ ২৯ আগস্ট ২০১৮   আপডেট: ২০:৩৯ ২৯ আগস্ট ২০১৮

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার সিংড়া ইউনিয়নের দুটি কাঁচা রাস্তা খোঁড়াখুঁড়ি করে পাকা করণে কাজ বিলম্ব করায় ২০টি গ্রামের মানুষ যাতায়াতে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে।

জানা গেছে, ঘোড়াঘাট উপজেলার সিংড়া ইউনিয়নের রামপাড়া পাকা রাস্তা হতে মগলিশপুর তিন মাথা পর্যন্ত ৮০০ মিটার ও বিরাহিমপুর ঋষিঘাট পাকা রাস্তা হতে ঋষিঘাট চার মাথা পর্যন্ত ৫০০ মিটার কাচা রাস্তা পাকাকরণের টেন্ডার আহবান করা হয়। দিনাজপুরের কাজটি পায় মেসার্স রতন এন্টারপ্রাইজ। ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান রাস্তা দুটি পাকা করণের লক্ষে গত মার্চ মাসে খোড়াখুড়ি করে রাখে। স্থানীয় এমপি শিবলী সাদিক রাস্তা দুটির ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন করেন।

খোঁড়াখুঁড়ি করার পর রাস্তা দুটিতে বালু ভরাট করা হলেও দীর্ঘ ৮ মাসেও পাকা করণের কাজ শুরু হয়নি। শুস্ক মৌসুমে  এলাকার মানুষ যাতায়াত ও যানবাহন চলাচল করলেও বর্ষা মৌসুমে যাতায়াত করতে পারছে না।

ফলে মানুষের দুর্ভোগ বেড়ে গেছে। গত দু’সপ্তাহ থেকে বৃষ্টি হওয়ায় দুর্ভোগ আরোও চরমে উঠে গেছে। ওই দুটি রাস্তা দিয়ে যাতায়াতকারী ২০টি গ্রামের মানুষ যাতায়াতসহ যানবাহন চলাচল করতে না পারায় এলাকার একমাত্র বাণিজ্য কেন্দ্র রাণীগঞ্জ হাটে কৃষিপণ্য নিয়ে যেতে পারছে না। ওই রাস্তা দুটি ছাড়া রাণীগঞ্জ হাটে যাতায়াত করার কোন বিকল্প রাস্তা নাই।

মগলিশপুর রাস্তা থেকে রামপাড়া পাকা রাস্তা পর্যন্ত একটি ও একই রাস্তা থেকে মারুপাড়া পর্যন্ত সরু কাঁচা রাস্তা রয়েছে। শুস্ক মৌসুমে যানবাহন ও মানুষ চলাচল করলেও সম্প্রতি বর্ষায় রাস্তা দুটির বেহাল অবস্থা হয়েছে। 

এ ব্যাপারে সিংড়া ইউপি চেয়ারম্যান আ. মান্নান মণ্ডলকে ও উপজেলা প্রকৌশল অধিদফতরে উপ-প্রকৌশলী সুজন আহম্মেদকে মুঠো ফোনে রাস্তা দুটি পাকা করণে বিলম্ব হওয়ার কারণ জানতে চাইলে তারা জানান, ঠিকাদারকে রাস্তা দুটি পাকা করণের জন্য বার বার চাপ সৃষ্টি করা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরআর