ঢাকা, সোমবার   ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯,   ফাল্গুন ৫ ১৪২৫,   ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪০

আনুশকার সঙ্গ পেতে বোর্ডকে কোহলির চিঠি

স্পোর্টস ডেস্ক :: sports-desk

 প্রকাশিত: ১৬:৩৬ ৭ অক্টোবর ২০১৮   আপডেট: ১৬:৫৩ ৭ অক্টোবর ২০১৮

ছবি সংগৃহীত

ছবি সংগৃহীত

ক্রিকেট খেলতে খেলোয়াড়দের অধিকাংশ সময়ই দেশের বাইরে থাকতে হয়। তাছাড়া দেশ বা বিদেশ যেখানেই হোক না কেন, খেলোয়াড়রা পরিবারের সঙ্গ পেয়ে থাকেন খুব কমই। একারণে, বিদেশ সফরে স্ত্রী বা বান্ধবীদের কাছে রাখার দাবি করে আসছিলেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা।

বোর্ডটির নিয়ম অনুযায়ী, বিদেশ সফরের ক্ষেত্রে ক্রিকেটার ও সাপোর্ট স্টাফরা মাত্র দুই সপ্তাহ নিজেদের সঙ্গে স্ত্রীকে রাখতে পারেন। এরপর দেশে ফিরে আসতে হয় তাদের স্ত্রীদেরকে। সর্বশেষ ইংল্যান্ড সফরে টেস্ট সিরিজ শুরুর আগেও দেখা গেছে এমনটা। 

বোর্ড অব কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়ার (বিসিসিআই) কর্মকর্তারা অবশ্য খেলোয়াড়দের এমন দাবি নিয়ে খুব একটা উৎসাহী ছিল না। তবে এবারে বোধহয় আর চুপ থাকার উপায় নেই। কেননা, এবারে সফরের পুরো সময়ই স্ত্রীকে কাছে পেতে রীতিমত চিঠি পাঠিয়েছেন ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলি। ভারতীত গনমাধ্যমের বরাত দিয়ে জানা যায়, সফরের পুরো সময় স্ত্রীর সঙ্গ চেয়ে ভারতীয় ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিসিসিআইয়ের কাছে আবেদন করেছেন কোহলি।

ইতোমধ্যে বিষয়টি সুপ্রিম কোর্ট নিয়োজিত কমিটি অব অ্যাডমিনিস্ট্রেটর্সের (সিওএ) কাছে পৌঁছেছে। সিওএ প্রধান বিনোদ রাই ও ডায়না এডুলজি এই ইস্যুতে ভাবনা-চিন্তা শুরু করেছেন বলেও খবর ভারতীয় গণমাধ্যমের। শুধু তাই নয়, সিওএর পক্ষ থেকে ভারতীয় দলের ম্যানেজার সুনীল সুব্রমানিয়ামকে নিয়ম বদলের জন্য আবেদনও করতে বলা হয়েছে।

এতদিনের নিয়ম বদল ফেলার জন্য আবেদন করা হলেও এই বিষয়ে এখনই দ্রুত কোনো সিদ্ধান্ত নিতে চাইছে না সিওএ। বোর্ডের পরবর্তী আলোচনা সভায় এই প্রসঙ্গ উত্থাপনের ভাবনা রয়েছে বিনোদ রাই-ডায়না এডুলজিদের।

বিশ্ব ক্রিকেটে বিষয়টি নিয়ে এর আগে বেশ কয়েকবার আলোচনা-সমালোচনা হয়েছে। এর আগে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটাররা এ নিয়ে দাবি তুলেছিলেন। সে সময় সাবেক অজি উইকেটরক্ষক ইয়ান হিলি দাবি করেছিলেন, বিদেশ সফরে স্ত্রী বা বান্ধবীদের সঙ্গ পেলে ক্রিকেটারদের মনোযোগে ব্যাঘাত ঘটে।

এবার দেখার বিষয়, বিদেশ সফরে স্ত্রী-বান্ধবীদের সঙ্গে রাখার ব্যাপারে বিসিসিআই কী সিদ্ধান্ত নেয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএইচ