Alexa পাঁচ হাজার লাইসেন্সে ৩৫ হাজার অটো

ঢাকা, সোমবার   ১৯ আগস্ট ২০১৯,   ভাদ্র ৪ ১৪২৬,   ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

Akash

পাঁচ হাজার লাইসেন্সে ৩৫ হাজার অটো

রংপুর প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ১৩:৪২ ৩০ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১৪:৪৭ ৩১ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

রংপুর সিটি কর্পোরেশনের ৪ হাজার ৮০০ বৈধ লাইসেন্সের বিপরীতে প্রতিদিন প্রায় ৩৫ হাজারের বেশি অটোরিকশা চলাচল করে। এ কারণে নগরীর পাবলিক কাচারী বাজার থেকে প্রেস ক্লাব পর্যন্ত ঘণ্টার পর ঘণ্টা যানজটে পড়ে ভোগান্তিতে পড়ছে নগরবাসী।

রংপুর মহানগরীর মডার্ন মোড়, পার্কের মোড়, কলেজ রোড, লালবাগ, শাপলা চত্বর, গ্রান্ড হোটেল মোড়, জাহাজ কোম্পানি মোড়, সুপার মার্কেট ট্রাফিক মোড়, সিটি বাজার মোড়, কাচারী বাজার জিরো পয়েন্ট, মেডিকেল মোড়, সাতমাথা মোড়, মাহিগঞ্জ, কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল রোডে প্রতিদিনই কোনো না কোনো সময় যানজটে আটকা পড়তে হয় নগরবাসীকে। এতে করে অনেক সময় চরম ভোগান্তিতে পড়ে মানুষ।

নগরীর প্রধান সড়কগুলোর দুধারের পুরোটাই অটোরিকশা আর হকারদের দখলে গেছে। এসব দখল মুক্ত করতে এবং অবৈধ অটোরিকশার লাগাম টেনে ধরতে পুলিশ ও নগরপিতার ব্যর্থতাকে দায়ী করছেন নগরবাসী।

নগরীর শালবন এলাকার সাদ্দাম হোসেন টিটু বলেন, রংপুরে এখন হাজার হাজার অটোরিকশা চলছে। শহরের পাশাপাশি পাশের উপজেলাগুলো থেকেও এখানে অটোরিকশা আসছে। এতে প্রতিদিনই নগরীর প্রধান সড়কসহ অলিগলির সড়কে যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। বাসা থেকে বের হয়ে ভালোভাবে যাতায়াত করা কঠিন হয়ে পড়েছে। সিটি কর্পোরেশন ও মেট্রোপলিটন পুলিশ চাইলে সব কিছু করতে পারে। কিন্ত তারা কিছু করছে না।

রংপুর প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রশীদ বাবু বলেন, নগরীর অধিকাংশ অটোরিকশার চালক অদক্ষ ও অযোগ্য। বেপরোয়া অটোরিকশার কারণে দুর্ঘটনা ঘটছে। যা সিটি কর্পোরেশনসহ আইন প্রয়োগকারী সংস্থা দেখেও না দেখার ভান করে যাচ্ছে। আমরা সাংবাদিকরা পুলিশের নগর কমিশনার ও মেয়রকে আলাদা আলাদা ভাবে বলেছি এর সমাধান করতে কিন্ত আজ পর্যন্ত তা করা হয়নি।

রংপুর জেলা ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা মালিক শ্রমিক সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার কবির সুমন বলেন, অবৈধ অটোরিকশার কমাতে আমরা একাধিকবার সিটি কর্পোরেশনকে অনুরোধ করেছি। কিন্তু সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে না নেয়ায় লাইসেন্সবিহীন অটোরিকশার নগরীতে পরিণত হয়েছে রংপুর। 

রংপুর সিটি কর্পোরেশনের লাইসেন্স শাখার কর্মকর্তা হাসান গোর্কি বলেন, রংপুরে অটোরিকশার লাইসেন্স দেয়া বন্ধ রয়েছে। নতুন করে আর কোনো লাইসেন্স ইস্যু হয়নি। বিগত সময়ের দেয়া ৪ হাজার ৮০০ লাইসেন্সই বহাল রয়েছে।

সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা বলেন, নগরীতে অবৈধ অটোরিকশার চলাচল বন্ধে আমরা বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছি। আশা করছি দ্রুত সময়ের মধ্যে এই অবস্থার পরিবর্তন আসবে। নগরীর প্রধান সড়কগুলোতে গণপরিবহন সেবা চালুর জন্য মোটর মালিক সমিতির সঙ্গে কথা বলেছি। 

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ আবদুল আলীম মাহমুদ বলেন, মহানগরীর ফুটপাত দখল মুক্তসহ যানজট নিরসনে আমরা বেশ কিছু পরিকল্পনা নিয়েছি। নগরীতে অবৈধ যানবাহনের প্রবেশ নিষেধ ও দখলে রাখা ফুটপাত পথচারীদের ব্যবহারে ছেড়ে দেয়ার জন্য দ্রুত পদক্ষেপ নেব। 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম

Best Electronics
Best Electronics