Alexa পর্দা উঠলো কক্সবাজার শিল্প ও বাণিজ্য মেলার

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৩ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ৮ ১৪২৬,   ১৯ জ্বিলকদ ১৪৪০

পর্দা উঠলো কক্সবাজার শিল্প ও বাণিজ্য মেলার

উখিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ০০:০১ ১১ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ০৩:২৫ ১১ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

কক্সবাজারে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বর্ণিল আয়োজনে পর্দা উঠলো শিল্প ও বাণিজ্য মেলার।

কক্সবাজার চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি ও কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়ন আয়োজিত মেলার উদ্বোধনে উপস্থিত ছিলেন এমপি সাইমুম সরওয়ার কমল, ডিসি মো. কামাল হোসেন, এসপি এবিএম মাসুদ হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান, জেলা জাসদ সভাপতি নঈমুল হক চৌধুরী টুটুল, কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি আবু তাহের, এডিসি (সার্বিক) মো. মাহিদুর রহমান, এডিসি (রাজস্ব) সাইফুল আশরাফ, পর্যটন সেলের ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুল ইসলাম জয়, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জুয়েল আহমেদ, মেলা পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান মাশেদুল হক রাশেদ, সদস্য সচিব সালাউদ্দিন সেতু, কো-চেয়ারম্যান কাজী মোরশেদ আহম্মদ বাবু, কো-চেয়ারম্যান সাহেদ আলী সাহেদ, প্রধান সমন্বয়কারী নাছির আহমদ ও কাজী রাসেল আহমদ নোবেল, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক কায়সারুল জুয়েল, জেলা জাতীয় পার্টির সহ-সভাপতি মোশারফ হোসেন দুলাল।

এমপি সাইমুম সরওয়ার কমল বলেন, বাংলাদেশকে ২০২১ সালের মধ্যে মধ্য আয়ের ও ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে রূপান্তরের লক্ষে এরইমধ্যে সুনির্দিষ্ট কর্মপরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসারসহ বিনিয়োগ বৃদ্ধিতে নানামুখী কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হবে। সরকারের বহুমুখী অর্থনৈতিক পরিকল্পনা বাস্তবায়নে ও অর্থনীতির দ্রুত বিকাশে কক্সবাজার শিল্পও বাণিজ্য মেলা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

ডিসি মো. কামাল হোসেন বলেন, ব্যবসায়ীদের নতুন নতুন ধারণা নিয়ে এগিয়ে আসতে হবে। নতুন নতুন পণ্যের বাজার সৃষ্টি করতে হবে। তবেই বাংলাদেশকে সমৃদ্ধশালী দেশে পরিণত করা সম্ভব। এই বাণিজ্য মেলা কক্সবাজারের অর্থনীতিকে আরো সমৃদ্ধ করে তুলবে।

এবারের মেলায় শতাধিক স্টল থাকছে। মেলায় প্রসিদ্ধ গার্মেন্টস, হোমটেক্স, ফেব্রিকস পণ্য, হস্তশিল্পজাত, পাটজাত, গৃহস্থালি ও উপহারসামগ্রী, চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য, তৈজসপত্র, সিরামিক, প্লাস্টক, পলিমার পণ্য, কসমেটিকস হারবাল ও প্রসাধনী সামগ্রী, খাদ্য ও খাদ্যজাত পণ্য, ইলেকট্রিক ও ইলেকট্রনিকস সামগ্রী, ইমিটেশন ও জুয়েলারি ও ফার্নিচার পাওয়া যাবে।

এছাড়া স্বনামধন্য দেশীয় ব্র্যান্ড প্রতিষ্ঠান কিয়াম, প্রাণ, আরএফএল, এসিআই ছাড়া দেশি-বিদেশি কার্পেট, জামদানি ও রাজশাহী সিল্ক শাড়ির প্যাভিলিয়নও থাকছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর