Alexa পরকীয়ার অভিযোগে স্ত্রীকে পেটালেন স্বামী

ঢাকা, শুক্রবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ৬ ১৪২৬,   ২১ মুহররম ১৪৪১

Akash

পরকীয়ার অভিযোগে স্ত্রীকে পেটালেন স্বামী

জামালপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৪:৩৫ ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে পরকীয়ার অভিযোগে স্ত্রীকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠিয়েছেন এক ব্যক্তি।

শুক্রবার রাতে ওই উপজেলার আওনা ইউপির জগন্নাথগঞ্জ ঘাটে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত লিয়াকত আলী খান ওই এলাকার জনসেবা ডায়াগনস্টিক অ্যান্ড ক্লিনিকের মালিক।

নির্যাতিতার মা বলেন, ২০১৪ সালে বিয়ের পর থেকেই আমার মেয়ের উপর নির্যাতন করছে লিয়াকত। শুক্রবার রাতে যৌতুকের ১০ লাখ টাকার জন্য তাকে বাড়িতে আটকে রেখে লোহার পাইপ দিয়ে পিটিয়ে আহত করে। এক পর্যায়ে সে বাথরুমে আশ্রয় নিলে তাকে মৃত ভেবে লিয়াকত বাড়ি থেকে বেরিয়ে যায়। মধ্যরাতে আমার মেয়ে কৌশলে পালিয়ে প্রতিবেশীর বাড়িতে আশ্রয় নেয়। শনিবার সকালে ইউপি সদস্য মোবারক হোসেন রাজা মিয়া তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

নির্যাতিতা জানান, তিনি জনসেবা ক্লিনিকে নার্স ছিলেন। পরে লিয়াকত তাকে ম্যানেজার পদে প্রমোশন দেন। একদিন তার কিছু আপত্তিকর ছবি তুলে ব্ল্যাকমেইল করে বিয়ে করেন লিয়াকত আলী। এরপর থেকেই নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন তিনি।

লিয়াকতের বিরুদ্ধে এর আগেও যৌতুকের লোভে চারটি বিয়ের অভিযোগ করেন তার স্ত্রী, শ্বশুরবাড়ির লোকজন ও স্থানীয়রা।

অভিযুক্ত লিয়াকত আলী খান বলেন, আমার জনসেবা, নিরাময়, লাইফ কেয়ার নামে তিনটি ক্লিনিক আছে। আমি দুটি দেখাশোনা করি। একটির দায়িত্ব আমার স্ত্রীর। সে আমার অনপুস্থিতিতে দুইজনের সঙ্গে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ে। তাদের সঙ্গে পরিকল্পনা করে আমার টাকা চুরি এবং আমাকে হত্যার চেষ্টাও করেছিলো সে। এসব বিষয় নিয়ে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে আমি তাকে চড়-থাপ্পড় দিয়েছি। কিন্তু রাজা মেম্বারের শেখানো কথায় সে নিজের শরীর কেটে আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে।

তারাকান্দি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এসআই ইউনুস আলী বলেন, নির্যাতনের শিকার নারী লিয়াকত আলী খানের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেছেন। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর