Alexa পবিপ্রবির ভেটেরিনারি অনুষদকে বিশ্ববিদ্যালয় করার প্রস্তাবনা

ঢাকা, বুধবার   ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০,   ফাল্গুন ৬ ১৪২৬,   ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪১

Akash

পবিপ্রবির ভেটেরিনারি অনুষদকে বিশ্ববিদ্যালয় করার প্রস্তাবনা

পবিপ্রবি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:২৩ ২৫ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৬:৩৫ ২৫ জানুয়ারি ২০২০

ছবিঃ ডেইলি বাংলাদেশ

ছবিঃ ডেইলি বাংলাদেশ

পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এর এনিম্যাল সায়েন্স অ্যান্ড ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদকে স্বতন্ত্র বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে প্রতিষ্ঠা করার প্রস্তাবনা করা হয়েছে। নতুন প্রতিষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম শহীদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় রাখার প্রস্তাবনা করা হয়।

শুক্রবার বরিশাল বিমানবন্দরের ভিআইপি লাউঞ্জে বাবুগঞ্জ উপজেলার চেয়ারম্যান কাজী ইমদাদুল হক দুলালের নেতৃত্বে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে এনিম্যাল সায়েন্স অ্যান্ড ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. মামুন অর রশীদ এই প্রস্তাবনা হস্তান্তর করেন।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে সিইসি অনুষদের ডিন ও বরিশাল বিভাগীয় উন্নয়ন ফোরামের কার্যনির্বাহী সদস্য প্রফেসর ড. এস. এম. তাওহীদুল ইসলাম, অনুষদীয় শিক্ষক ড. কাওসার নিয়াজ বিন সুফিয়ান, ড. তোফাজ্জল হোসেন, ইয়াসিন আরাফাত, ডেপুটি রেজিস্ট্রার কৃষিবিদ হাচিব তুষারসহ প্রমুখ।

এসময় পার্বত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন আহ্বায়ক আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহ (এমপি) সহ বৃহত্তর বরিশালের অধিকাংশ সংসদ সদস্যদের ডিও লেটার সম্বলিত এ প্রস্তাবনায় পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলায় অবস্থিত এনিম্যাল সায়েন্স অ্যান্ড ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদকে শহিদ আব্দুর রব সেরনিয়াবাত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে উন্নীত করার যৌক্তিকতা তুলে ধরা হয়।

উল্লেখ্য, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি অনুষদ হলেও মূল ক্যাম্পাসের মতো সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত এখানকার শিক্ষার্থীরা। মূল ক্যাম্পাস থেকে এই অনুষদের দূরত্ব ৫৬ কিলোমিটার। ফলে যৌক্তিক কিছু শিক্ষার্থীদের দাবি প্রসাশনের কাছে সরাসরি পেশ করার সুযোগও পায় না শিক্ষার্থীরা।

এই ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিভিএম ১৩তম ব্যাচের শিক্ষার্থী তাহজীব মণ্ডল নিশাত বলেন, পবিপ্রবির বরিশাল ক্যাম্পাসের শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার বুকভরা স্বপ্ন লালন করে কঠিন ভর্তি যুদ্ধ পার করে সর্বোচ্চ মেধা তালিকায় থেকে ভর্তি হলেও বঞ্চিত থাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকৃত স্বাদ গ্রহণ থেকে। দুই জেলায় দুই ক্যাম্পাস! ৫৬ কিলোমিটারের এই দূরত্বই মূলত তাদের এই হতাশার কারণ। বিশ্ববিদ্যালয়ের সব কর্মসূচি হয় মূল ক্যাম্পাসকে কেন্দ্র করে যার সব কিছু থেকে বঞ্চিত হয় এই ক্যাম্পসের শিক্ষার্থীরা। দীর্ঘ এই পথ অতিক্রম করে কেউ কেউ এই সবের দু একটায় অংশগ্রহণ করলেও অনুভূত হয় যেন সৎ মায়ের বাসায় দাওয়াতে আমন্ত্রিত। 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম