‘পদ্মা’ বিভাগ হবে ফরিদপুর

.ঢাকা, শুক্রবার   ২৬ এপ্রিল ২০১৯,   বৈশাখ ১৩ ১৪২৬,   ২০ শা'বান ১৪৪০

‘পদ্মা’ বিভাগ হবে ফরিদপুর

 প্রকাশিত: ২১:১৬ ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮   আপডেট: ২১:২৫ ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতীয় সংসদে ঘোষণা দিয়েছেন, পুরনো ফরিদপুরকে নিয়ে নতুন বিভাগ স্থাপন করবেন। এর নাম হবে পদ্মা। এর প্রশাসনিক কার্যালয় হবে ফরিদপুরে।

শুক্রবার বিকেলে শহরের রাজেন্দ্র কলেজের মাঠে ফরিদপুর শহর আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক জনসভায় তিনি এসব কথা বলেন। 

মোশাররফ হোসেন বলেন, আগামী নির্বাচনে বিজয়ী হলে ফরিদপুরে একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করবো। এই বিশ্ববিদ্যালয় করার জন্য প্রয়োজনে জান কোরবান করে দেবো। এটি আমার অঙ্গীকার।

মন্ত্রী বলেন, আমরা আর পৃথিবীর কারো কাছে হাত পেতে ভিক্ষা করবো না। প্রতিবেশী কোনো দেশ বিপদে পড়লে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেবো। বাংলাদেশ আর একদানা চাল আমদানি করবে না। এ সময় তিনি দেশে দু’জন নেত্রী রয়েছেন উল্লেখ করে বলেন, একজন নেত্রী চান দেশকে ভিক্ষুক বানাতে। আরেকজন চান দেশের সক্ষমতা বাড়াতে। কাকে আপনারা বেছে নেবেন আপনারাই ঠিক করেন।

এলজিআরডি মন্ত্রী বলেন, আমরা শান্তিতে আছি। শান্তিতেই থাকতে চাই। আগামীতেও যাতে আমরা শান্তিতে থাকতে পারি, সেই বিবেচনাতেই আপনারা সবাই আগামী নির্বাচনে নৌকা মার্কায় ভোট দেবেন। ফরিদপুরে তার নির্বাচনী প্রচারণা এই জনসভা থেকে পুরোদমে শুরু হয়ে গেলো বলেও জানান মন্ত্রী। 

অনুষ্ঠানে ফরিদপুর শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি নাজমুল ইসলাম খন্দকার সভাপতিত্ব করেন। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন কোতয়ালী থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক মোল্যা, শহর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও ফরিদপুর পৌর মেয়র শেখ মাহতাব আলী মেথু, কোতয়ালী থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সামছুল আলম চৌধুরী ও জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক এএইচএম ফুয়াদ প্রমুখ।

জনসভায় ফরিদপুরে পৌরসভার কাউন্সিলর নাজমুল আলম তাপস, সাবেক কমিশনার ইসরাফিল মিয়া, শ্রমিদ দল নেতা ওলিয়ার রহমান ও জাতিয় পার্টি নেতা এমএ সালাম লালসহ বিভিন্ন দলের প্রায় ৩০ জন নেতা মন্ত্রীর হাতে ফুল দিয়ে আওয়ামী লীগে যোগদান করেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর/এমআরকে/আরআই