পটুয়াখালীতে হত্যা মামলায় ১জনের যাবজ্জীবন

ঢাকা, রোববার   ১৯ মে ২০১৯,   জ্যৈষ্ঠ ৫ ১৪২৬,   ১৪ রমজান ১৪৪০

Best Electronics

পটুয়াখালীতে হত্যা মামলায় ১জনের যাবজ্জীবন

 প্রকাশিত: ১৪:০৩ ৬ জুন ২০১৮  

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

পটুয়াখালীর বাউফলে মনোয়ারা বেগম হত্যা মামলায় একজনকে যাবজ্জীবন দিয়েছে আদালত।

বুধবার পটুয়াখালী বিশেষ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. শহিদুল্লাহ্ এ দণ্ড প্রদান করেন। দণ্ডপ্রাপ্তের নাম মো. কামরুল ইসলাম লিখন। এ মামলায় বেলাল হোসেন ও জহিরুল ইসলাম নামে দুইজনকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। এদের সবার বাড়ি উপজেলার কালিশুরী এলাকায়। রায় প্রদানের সময় আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী আরিফুল হক টিটো জানান, ২০০৭ সালে ৫ ডিসেম্বর রাতে জেলার বাউফল উপজেলার পশ্চিম কালিশুরি গ্রামে মামলার বাদীর ছোট বোন মনোয়ারা বেগমের বসতঘরে দণ্ডপ্রাপ্তরা অস্ত্রসহ  প্রবেশ করে চুরি ও দস্যুতায় লিপ্ত হয়। এসময় মনোয়রা ও তার সঙ্গে থাকা নাতনি মৌসুমি ঘুম থেকে উঠে বাধা দিতে গেলে কুড়াল দিয়ে মনোয়ারার মাথায় আঘাত করেন। এতে ঘটনাস্থলেই মনোয়ারা মারা যান এবং আহত হয় তার নাতনি মৌসুমী। পরদিন নিহতের ভাই হোসেন আলী গাজী বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন।

তৎকালিন মামলার তদন্তকারী পুলিশের এসআই সিদ্দিকুর রহমান  ২০০৮ সালের ৯ মার্চ তদন্ত সাপেক্ষে কালিশুরী এলাকার কামরুল হাসান লিখন, মোঃ বেলাল হোসেন, শাহিন সরদার ও জহিরুলকে ৩০২/৩৯৪ ধারা উল্লেখ করে থানায় অভিযোগ পত্র দাখিল করেন। এরপরে পর্যায়ক্রমে এই তিন আসামিকে গ্রেতফার করে জেলা হাজতে পাঠানো হয়। এরআগে ২০০৮ সালের ১ ডিসেম্বর আসামি জহিরুল পটুয়াখালী অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল মেজিষ্ট্রেট রফিকুল ইসলামের কাছে হত্যা করেছে এই মর্মে স্বীকারোক্তি মুলক জবানবন্দি প্রদান করেন। 

ডেইলি বাংলাদেশ/আরআর

Best Electronics