Alexa নয়াপল্টনে ছাত্রদলের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া, ককটেল বিস্ফোরণ

ঢাকা, শুক্রবার   ১৯ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ৪ ১৪২৬,   ১৫ জ্বিলকদ ১৪৪০

নয়াপল্টনে ছাত্রদলের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া, ককটেল বিস্ফোরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:০৮ ২৪ জুন ২০১৯   আপডেট: ১৮:৫৫ ২৫ জুন ২০১৯

ছবি: স্টার মেইল

ছবি: স্টার মেইল

বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার ও বয়সসীমা তুলে দিয়ে নিয়মিত কমিটির দাবিতে নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ফের অবস্থান নিয়েছে ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা। এ সময় ছাত্রদলের দুইপক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার এক পর্যায়ে সেখানে একাধিক ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর পদত্যাগ দাবি করেছেন।

পূর্বঘোষিত আল্টিমেটাম অনুযায়ী সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সহস্রাধিক নেতাকর্মীর একটি মিছিল নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এসে জড়ো হয়। এসময় বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে বিভিন্ন শ্লোগান দিতে থাকেন। এক পর্যায়ে তারা কার্যালয়ের কলাপসিবল গেট বন্ধ করে দেন।

অন্যদিকে কার্যালয়ের ভেতরে ছাত্রদল, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল ও মহানগর বিএনপির কয়েকশ নেতাকর্মী অবস্থান করছেন। কার্যালয়ের আসপাশেও ছাত্রদল ও বিএনপির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা অবস্থান নিয়েছেন। আন্দোলনকারীরা কোনো ধরনের অপ্রীতিকর কিছু করলে প্রতিহত করা হবে বলে ভেতর থেকে জানানো হয়েছে।

এদিকে আন্দোলনকারীরা কার্যালয়ের গেট আটকানোর সময় দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। ভেতরে অবস্থানরত ও বাইরের আন্দোলনকারী ছাত্রদল নেতাকর্মীদের মধ্যে টানাহেঁচড়ার ঘটনা ঘটে। পরে দুপুর সোয়া ১ টার দিকে পুনরায় তফসিল ঘোষণার দাবিতে আন্দোলনরত ছাত্রদলের একাংশ বিএনপি কার্যালয় ছাড়ার সময় তাদের মিছিলে ছয়টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটনা ঘটে।

ককটেল বিস্ফোরণে বিক্ষুব্ধদের নেতা কেন্দ্রীয় সাবেক যুগ্ম সম্পাদক আল আশরাফ মামুন আহত হয়েছেন। বিক্ষুব্ধরা এ হামলার জন্য সিন্ডিকেটকে দায়ি করছেন। ছাত্রদলের সাবেক সহ সভাপতি ইখতিয়ার কবির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএএম/এস