নড়বড়ে সাঁকোতে জনদুর্ভোগ 

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৯ এপ্রিল ২০২০,   চৈত্র ২৬ ১৪২৬,   ১৫ শা'বান ১৪৪১

Akash

নড়বড়ে সাঁকোতে জনদুর্ভোগ 

দেলোয়ার হোসেন, জামালপুর ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৪:১৬ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ০৪:২০ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

নড়বড়ে ঝুঁকিপূর্ণ বাশের সাঁকো। ছবি: ডেইলি ‍বাংলাদেশ

নড়বড়ে ঝুঁকিপূর্ণ বাশের সাঁকো। ছবি: ডেইলি ‍বাংলাদেশ

জামালপুরের বকশীগঞ্জে একটি ব্রিজের অভাবে ২০ হাজার মানুষকে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। স্থানীয়দের বাধ্য হয়ে নড়বড়ে বাঁশের সাঁকো দিয়ে কোনোভাবে পারাপার হতে হচ্ছে। এ পরিস্থিতিতে দ্রুত সময়ের মধ্যে একটি ব্রিজ নির্মাণের দাবি জানিয়েছেন তারা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সাধুরপাড়া ইউপির পূর্ব গাজীরপাড়া টু বাংগালপাড়া খালের ওপর ১৯৯৫ সালে একটি সরু ব্রিজ নির্মাণ করা হয়। ব্রিজটির নির্মাণ কাজে অনিয়ম হওয়ায় ১৫ বছর পরেই ব্রিজের রুলিংসহ বিভিন্ন জায়গায় পলেস্তারা খসে পড়ে। ফলে ব্রিজটি চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে। সর্বশেষ গত বছরের ভয়াবহ বন্যায় ব্রিজটি পানিতে ধসে যায়। তখন থেকেই স্থানীয়দের দুর্ভোগ চরমে পৌঁছে।

এ ব্রিজটি ভেঙে যাওয়ার পর গাজীরপাড়া, ডেরুরবিল, আচ্চাকান্দি, বাংগালপাড়া, কতুবের চর, চর গাজীর পাড়া , কলাকান্দা, দপর পাড়া ও বিলেরপাড়সহ কয়েটি গ্রামের ২০ হাজার মানুষের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

এদিকে বন্যা শেষ হওয়ার পর সাধুরপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদুল আলম বাবুর সার্বিক সহযোগিতায় পূর্ব গাজীরপাড়া খালের ওপর একটি বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করা হয়। কিন্তু প্রতিদিন এ সাঁকো দিয়ে হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করে। ফলে তিন মাসের মধ্যেই সাঁকোটি নড়বড়ে হয়ে পড়ে। বর্তমানে সাঁকোটি দিয়ে যানবাহন ও কৃষকের উৎপাদিত কৃষিপণ্য বাজারজাত করা কঠিন হয়ে পড়েছে।

পথচারী আমিনুল ইসলাম জানান, এই ব্রিজের অভাবে এলাকার কৃষকরা ফসল উৎপাদন করেও সঠিক বাজারজাত করার অভাবে ন্যায্য মূল্য থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। বাঁশের সাঁকোটি নড়বড়ে হওয়ায় ভারি যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। এরইমধ্যে কয়েকটি দুর্ঘটনাও ঘটেছে।

কুতুবের চর গ্রামের নুরুল ইসলাম জানান, আমিসহ এ এলাকার মানুষ প্রতিদিন এ সাঁকো দিয়ে পারাপার হতে হয়। এখানে একটি ব্রিজ নির্মাণ হলে জনদুর্ভোগ লাঘব হবে।

গাজীরপাড়া গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজল হোসেন গাজী জানান, স্থানীয়দের অনেক কষ্ট করে চলাচল করতে হচ্ছে। আগামী বন্যার আগেই ব্রিজের কাজ শুরু করা না গেলে আমাদের দুর্ভোগের শেষ থাকবে না।

স্থানীয় গাজীরপাড়া বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি গাজী মো. মোক্তারুজ্জামান জানান, বাঁশের সাঁকোটি মেরামতের অভাবে গাজীরপাড়া বাজারসহ বিভিন্ন বাজারগুলোতে কৃষকের উৎপাদিত পণ্য সরবরাহ করা কঠিন হয়েছে পড়েছে। অবিলম্বে এ খালে ব্রিজ নির্মাণ করা প্রয়োজন।

বকশীগঞ্জ স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের (এলজিইডি) উপজেলা প্রকৌশলী এসএম শহিদুল ইসলাম জানান, পূর্ব গাজীরপাড়া খালের ওপর ব্রিজ নির্মাণের জন্য প্রস্তাবনা পাঠানো হয়েছে। বন্যা পরবর্তী কোনো বরাদ্দ না পাওয়ায় ব্রিজটি নির্মাণ করা সম্ভব হচ্ছে না।

এ পরিস্থিতিতে দ্রুত সময়ের মধ্যে ব্রিজ নির্মাণ করার জন্য স্থানীয় এমপি ও এলজিইডির উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর