Alexa নড়বড়ে দরজা-জানালা, খসে পড়ছে পলেস্তারা

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২২ অক্টোবর ২০১৯,   কার্তিক ৭ ১৪২৬,   ২৩ সফর ১৪৪১

Akash

নড়বড়ে দরজা-জানালা, খসে পড়ছে পলেস্তারা

এম এ এইচ শাহীন, কোম্পানীগঞ্জ ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:১৫ ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

সিলেটের কোম্পানীগঞ্জে সাব-রেজিস্ট্রারের কার্যালয়টি দীর্ঘদিন ধরে জরাজীর্ণ অবস্থায় পড়ে আছে। সামান্য বৃষ্টিতেই ছাদ থেকে পানি পড়ে। খসে পড়ছে পলেস্তারা। নড়বড়ে হয়ে পড়েছে দরজা-জানালাগুলো।

১৯৮৪ সালে নির্মিত ভবনটি উপজেলা সহকারী জজ আদালত হিসেবে ব্যবহৃত হয় ১৯৯৫ সাল পর্যন্ত। আদালত জেলা পর্যায়ে হস্তান্তরের পর উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রারের কার্যালয় হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, সাব-রেজিস্ট্রার কার্যালয়ের অধিকাংশ জানালা ভাঙা। এছাড়া জানালাগুলো এতটাই নড়বড়ে, যেন মনে হয় কেউ আঙুল ছোঁয়ালেই খসে পড়বে। ভবনের ছাদ থেকে পলেস্তারা খসে বেরিয়ে আছে রড। নির্মাণের পর নামমাত্র সংস্কার করা হলেও ২০০৭ সাল থেকে ভবনটি সংস্কার বঞ্চিত।

সাব-রেজিস্ট্রার কার্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা জানান, তারা অনেক দিন ধরেই ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছেন। ছাদ চুইয়ে পানি পড়ে নষ্ট হচ্ছে গুরুত্বপূর্ণ দলিল। ভাঙা জানালা দিয়ে দলিলসহ মূল্যবান কাগজপত্র চুরি হওয়াও সম্ভব।

তারা আরো জানান, ছাদ চুইয়ে আসা পানিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি ভিজে নষ্ট হচ্ছে। কিছুদিন আগেই সিলিং থেকে ফ্যান খসে অফিস সহকারী মো. হাবিবুর রহমানের চেয়ারের উপর পড়েছে। এতে অল্পের জন্য তিনি আহত হননি।

কোম্পানীগঞ্জ সাব-রেজিস্ট্রার কাইয়ুম মজুমদার বলেন, সংস্কারের প্রয়োজনীয়তা জানিয়ে গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ে কয়েকবার চিঠি পাঠানো হয়েছে। কয়েক মাস আগে জেলা রেজিস্ট্রার ভবন পরিদর্শন করেছেন। তিনি জরাজীর্ণ ভবন, স্যাঁতসেঁতে পরিবেশ, ভাঙা দরজা-জানালা দেখে গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলীকে জানিয়েছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর