নোয়াখালীতে আলোচনায় মুন্নি-শাহানা

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২৭ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ১৩ ১৪২৬,   ২২ শাওয়াল ১৪৪০

নোয়াখালীতে আলোচনায় মুন্নি-শাহানা

নোয়াখালী প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ১৮:১৭ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১৮:১৭ ১৪ জানুয়ারি ২০১৯

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

একাদশ জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত মহিলা এমপি হতে নোয়াখালীতে আলোচনায় রয়েছেন দুই নেত্রী।

তারা হলেন- বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি লুৎফুন্নাহার মুন্নি ও বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সদস্য অ্যাডভোকেট শাহানা পারভীন।

লুৎফুন্নাহার মুন্নি নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের আওয়ামী পরিবারের সন্তান। তিনি ছাত্র জীবন থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত হন। ছাত্র জীবন থেকে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে আন্দোলন সংগ্রামে ছিলেন।

১৯৯৪ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ঢাকা বিশ্ববিদ্যায় শাখার সহ-সভাপতি মনোনীত হন। ২০০২ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি নির্বাচিত হন মুন্নি। এছাড়া ছাত্র রাজনীতি করতে গিয়ে তিনি ছাত্রলীগের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেন।

দলের জন্য ত্যাগ এবং সংগ্রামের মূল্যায়ন হিসেবে ২০০৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে লুৎফুন্নাহার মুন্নিকে নোয়াখালী-৩ আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দেন শেখ হাসিনা।

লুৎফুন্নাহার মুন্নি বলেন, এটা আমার চাওয়ার বিষয় নয়, এটি রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের বিষয়। যারা অতীতে রাজনৈতিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত, তাদের দলীয় হাইকমান্ড মূল্যায়ন করবেন।

এদিকে, শাহানা পারভীন আইন পেশার পাশাপাশি আওয়ামী রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত। তিনি ২০১৮ সালের সুপ্রীম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে একমাত্র মহিলা সদস্য পদে জয়লাভ করেন। তার ধারাবাহিকতায় বিগত দিনে আওয়ামী লীগ ও শেখ হাসিনার নির্দেশিত সব রাজনৈতিক কর্মকান্ডে তিনি সক্রিয় ছিলেন।

ছাত্র জীবনে ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গেও ছিলেন। তিনি আওয়ামী পরিবারের সন্তান। নোয়াখালী জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী মরহুম কোহিনুর আক্তার খানমের কন্যা। তার মা কোহিনুর আক্তার খানম ১৯৮৪ সাল থেকে ২০০৪ মৃত্যুর আগ পর্যন্ত নোয়াখালী জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন।

শাহানা পারভীন বলেন, নোয়াখালীর সন্তান হিসেবে সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপির মনোনয়ন পেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার পাশাপাশি মহিলা আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করব।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ