Exim Bank Ltd.
ঢাকা, বুধবার ২৩ জানুয়ারি, ২০১৯, ১০ মাঘ ১৪২৫

নোয়াখালীতে আলোচনায় মুন্নি-শাহানা

নোয়াখালী প্রতিনিধিডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম
নোয়াখালীতে আলোচনায় মুন্নি-শাহানা
ফাইল ফটো

একাদশ জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত মহিলা এমপি হতে নোয়াখালীতে আলোচনায় রয়েছেন দুই নেত্রী।

তারা হলেন- বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি লুৎফুন্নাহার মুন্নি ও বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সদস্য অ্যাডভোকেট শাহানা পারভীন।

লুৎফুন্নাহার মুন্নি নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের আওয়ামী পরিবারের সন্তান। তিনি ছাত্র জীবন থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে যুক্ত হন। ছাত্র জীবন থেকে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে আন্দোলন সংগ্রামে ছিলেন।

১৯৯৪ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ঢাকা বিশ্ববিদ্যায় শাখার সহ-সভাপতি মনোনীত হন। ২০০২ সালে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি নির্বাচিত হন মুন্নি। এছাড়া ছাত্র রাজনীতি করতে গিয়ে তিনি ছাত্রলীগের একাধিক গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেন।

দলের জন্য ত্যাগ এবং সংগ্রামের মূল্যায়ন হিসেবে ২০০৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে লুৎফুন্নাহার মুন্নিকে নোয়াখালী-৩ আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দেন শেখ হাসিনা।

লুৎফুন্নাহার মুন্নি বলেন, এটা আমার চাওয়ার বিষয় নয়, এটি রাজনৈতিক সিদ্ধান্তের বিষয়। যারা অতীতে রাজনৈতিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত, তাদের দলীয় হাইকমান্ড মূল্যায়ন করবেন।

এদিকে, শাহানা পারভীন আইন পেশার পাশাপাশি আওয়ামী রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত। তিনি ২০১৮ সালের সুপ্রীম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে একমাত্র মহিলা সদস্য পদে জয়লাভ করেন। তার ধারাবাহিকতায় বিগত দিনে আওয়ামী লীগ ও শেখ হাসিনার নির্দেশিত সব রাজনৈতিক কর্মকান্ডে তিনি সক্রিয় ছিলেন।

ছাত্র জীবনে ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গেও ছিলেন। তিনি আওয়ামী পরিবারের সন্তান। নোয়াখালী জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী মরহুম কোহিনুর আক্তার খানমের কন্যা। তার মা কোহিনুর আক্তার খানম ১৯৮৪ সাল থেকে ২০০৪ মৃত্যুর আগ পর্যন্ত নোয়াখালী জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন।

শাহানা পারভীন বলেন, নোয়াখালীর সন্তান হিসেবে সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপির মনোনয়ন পেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার পাশাপাশি মহিলা আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত করব।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ

আরোও পড়ুন
সর্বাধিক পঠিত
নতুন হাইস্পিড রেলে ঢাকা থেকে ৫৪ মিনিটে চট্টগ্রাম
নতুন হাইস্পিড রেলে ঢাকা থেকে ৫৪ মিনিটে চট্টগ্রাম
সেলফিতে মাশরাফী দম্পতি
সেলফিতে মাশরাফী দম্পতি
বঙ্গোপসাগরে স্যাটেলাইট ট্রান্সমিটার যন্ত্রযুক্ত কচ্ছপ উদ্ধার
বঙ্গোপসাগরে স্যাটেলাইট ট্রান্সমিটার যন্ত্রযুক্ত কচ্ছপ উদ্ধার
বাংলাদেশের মাঝে এক টুকরো ‌'কাশ্মীর'!
বাংলাদেশের মাঝে এক টুকরো ‌'কাশ্মীর'!
‘মা’ গানে মাতালেন নোবেল, কাঁদালেন মঞ্চ (ভিডিও)
‘মা’ গানে মাতালেন নোবেল, কাঁদালেন মঞ্চ (ভিডিও)
এমপি হচ্ছেন মৌসুমী!
এমপি হচ্ছেন মৌসুমী!
মদের চেয়ে দুধ ক্ষতিকর: মার্কিন পুষ্টিবিদ
মদের চেয়ে দুধ ক্ষতিকর: মার্কিন পুষ্টিবিদ
পাসওয়ার্ড না দেয়ায় স্বামীকে পুড়িয়ে মারল স্ত্রী
পাসওয়ার্ড না দেয়ায় স্বামীকে পুড়িয়ে মারল স্ত্রী
বিয়েতে সৌদি নারীদের পছন্দের শীর্ষে বাংলাদেশি পুরুষরা!
বিয়েতে সৌদি নারীদের পছন্দের শীর্ষে বাংলাদেশি পুরুষরা!
স্ত্রীর ‘বিশেষ’ আবেদনে মলম মাখিয়ে বিপাকে স্বামী!
স্ত্রীর ‘বিশেষ’ আবেদনে মলম মাখিয়ে বিপাকে স্বামী!
সোমবার ‘চন্দ্রগ্রহণ’
সোমবার ‘চন্দ্রগ্রহণ’
শুধুই নারীসঙ্গ পেতে পর্যটকরা যেসব দেশে ভ্রমণ করেন
শুধুই নারীসঙ্গ পেতে পর্যটকরা যেসব দেশে ভ্রমণ করেন
মৃত মানুষের বাড়িতে কান্না করাই তাদের পেশা!
মৃত মানুষের বাড়িতে কান্না করাই তাদের পেশা!
পালিয়ে বিয়ে করলে আশ্রয় দেবে পুলিশ
পালিয়ে বিয়ে করলে আশ্রয় দেবে পুলিশ
বিয়ের খবর প্রকাশ করলেন সালমা
বিয়ের খবর প্রকাশ করলেন সালমা
স্ত্রীকে ভালোবাসার বিরল ঘটনা: ৫৫ হাজার পোশাক উপহার
স্ত্রীকে ভালোবাসার বিরল ঘটনা: ৫৫ হাজার পোশাক উপহার
গণিতে ভীত ছাত্রী এখন নাসার ইঞ্জিনিয়ার
গণিতে ভীত ছাত্রী এখন নাসার ইঞ্জিনিয়ার
বৃক্ষমানবের হাতে পায়ে ফের শেকড়
বৃক্ষমানবের হাতে পায়ে ফের শেকড়
বিষ খেয়ে হাসপাতালেই বিয়ে!
বিষ খেয়ে হাসপাতালেই বিয়ে!
পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ কাল
পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ কাল
শিরোনাম :
কুমিল্লার হত্যা মামলায় খালেদা জিয়ার আবেদন নাকচ, ৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ হাইকোর্টের কুমিল্লার হত্যা মামলায় খালেদা জিয়ার আবেদন নাকচ, ৪ ফেব্রুয়ারির মধ্যে নিষ্পত্তির নির্দেশ হাইকোর্টের খুলনায় বিশেষ অভিযানে ১২ জন মাদক ব্যবসায়ীসহ অর্ধশতাধিক আটক খুলনায় বিশেষ অভিযানে ১২ জন মাদক ব্যবসায়ীসহ অর্ধশতাধিক আটক মণিরামপুরে যুবকের গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার মণিরামপুরে যুবকের গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার লক্ষ্মীপুরে ট্রাকের ধাক্কায় একই পরিবারের ছয় জনসহ প্রাণ গেল ৭ জনের লক্ষ্মীপুরে ট্রাকের ধাক্কায় একই পরিবারের ছয় জনসহ প্রাণ গেল ৭ জনের