Exim Bank Ltd.
ঢাকা, শনিবার ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৭ আশ্বিন ১৪২৫

নীরব শত্রু দীর্ঘসূত্রিতা

আনতারা রাইসাডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম
নীরব শত্রু দীর্ঘসূত্রিতা
দীর্ঘসূত্রিতা

রাত ৩টা। প্রজেক্ট কিংবা এসাইনমেন্ট জমা দেয়ার শেষ দিন কালকে। কাজ শেষ করতে করতে নিশ্চয়ই নিজেকে অভিশাপ দিচ্ছেন পুরো সপ্তাহ কেন শুয়ে বসে দিন পার করেছেন, আরেকটু আগে থেকে কেন কাজ শুরু করলেন না। প্রতিদিন হয়তো একটা বড় সময় কেটে যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে, ফোন স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে, নিউজফিড স্ক্রল করতে করতে ভাবেন আজ এই জরুরি কাজটা করা হলো না। কিন্তু ভেবেই শেষ। আর করতে ইচ্ছা হয় না। হয়তো সারাদিন ছোটখাটো কম গুরুত্বপূর্ণ অনেক কাজ করেন কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো নানা কারণে এড়িয়ে যান।

যদি এই ঘটনাগুলির সঙ্গে নিজেকে পরিচিত মনে হয়, তাহলে জেনে রাখুন আপনি একা না। শতকরা ৯০% মানুষের এমন হয়। একে বলে ‘দীর্ঘসূত্রিতা’, ইংরেজিতে ‘প্রোকেস্টিনেশন’। প্রযুক্তির যুগে দীর্ঘসূত্রিতার এই বৃত্তে প্রায় সবাই বন্দী। প্রোকাস্টিনেশন হল একটি অভ্যাস, যার ফলে কাজ ভবিষ্যতের জন্য ফেলে রাখা বা অধিক জরুরি কাজ ফেলে অপেক্ষাকৃত কম জরুরি কাজ করা বা অপছন্দের গুরুত্বপূর্ণ কাজ ফেলে অপেক্ষাকৃত কম গুরুত্বপূর্ণ পছন্দের কাজ করা।

অনেকেই দীর্ঘসূত্রিতা এবং অলসতাকে একসাথে মিলিয়ে ফেলেন। কিন্তু এই দুইটি ভিন্ন জিনিস। অলসতা হচ্ছে নিষ্ক্রিয়তা, কোনও কাজের প্রতি অনীহা কিংবা একেবারেই কিছু না করা। কিন্তু দীর্ঘসূত্রিতা মানে কোনও কাজ না করা নয়। তারা হয়তো অনেক কাজই করছেন কিন্তু সেটা তেমন গুরুত্বপূর্ণ নয় অথবা যেটা তখন না করলেও চলত। মোট কথা তারা একটু কঠিন বা পরিশ্রমের কাজ ফেলে অপেক্ষাকৃত সহজ কাজ করেন।

দীর্ঘসূত্রিতা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। যদি আপনি কিছু নিয়ম মেনে কাজ করেন:-

১। সবার আগে জানুন আপনার মধ্যেই দীর্ঘসূত্রিতা আছে কি না। এমনও হতে পারে আপনি আসলেই কোনও ভালো কারণেই গুরুত্বপূর্ণ কাজটি পরে করছেন। তাহলে সেটা দীর্ঘসূত্রিতা হবে না। কিন্তু এমন যদি হয় আপনি অপেক্ষাকৃত কম গুরুত্বপূর্ণ কাজ করছেন কিন্তু আপনার আসলে আরও অনেক জরুরি কাজ করা বাকি অথবা আপনি হয়তো ভাবছেন যখন আপনার মুড আসবে তখন এমনিই কাজটা করে ফেলবেন তাহলে সেটা দীর্ঘসূত্রিতা। কিংবা একটা কাজ করার সময় আপনি কিছুক্ষন পর পর ফোন দেখছেন অথবা কফি বানাতে উঠে যাচ্ছেন তাহলে সেটাও দীর্ঘসূত্রিতা।

২। কাজের একটি তালিকা তৈরি করুন। সারাদিন যা যা করবেন টা লিখে ফেলুন। যাকে বলে টু-ডু লিস্ট। এবার সেই তালিকা অনুযায়ী প্রতিদিনের কাজ শেষ করার চেষ্টা করুন।

৩। বড় বড় কাজগুলোকে কয়েকটি ছোট ছোট অংশে ভাগ করে নিন তারপর করুন। তাহলে দেখবেন আর আগের মত একঘেয়ে লাগছে না।

৪। কাজের পাশে নিজের প্রায়োরিটি সেট করুন। কোনটি আগে করবেন আর কোনটি পরে তা ঠিক করুন।

৫। নিজেকে কঠিন কিংবা গুরুত্বপূর্ণ কাজে সফল হওয়ার জন্য পুরস্কৃত করুন। ধরুন একটি প্রজেক্ট শেষ করার পর খুব পছন্দের কোনও বই কিনুন কিংবা খেতে যান।এতে পরবর্তী কাজের অনুপ্রেরনা মিলবে।

৬। কাছের কাউকে বলুন আপনার কাজের মুল্য্যায়ন করতে অথবা গুরুত্বপূর্ণ কাজের জন্য তাগাদা দিতে। ‘পিয়ার প্রেশার’ এসব ক্ষেত্রে খুব কাজে দেয়।

৭। কালকে করব, পরশু করব এসব না ভেবে আজই শুরু করুন। কতটুকু প্রস্তুতি আছে টা না ভেবে যতটুকু প্রস্তুতি আছে তা দিয়েই শুরু করুন কাজ।

৮। অনেকে অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজ ফেলে রাখি কারণ তা কঠিন লাগে কিংবা তেমন মজার মনে হয় না। সেই কাজগুলো দিয়েই দিন শুরু করুন। কাজগুলি শেষ হলে সারাদিন ভালো যাবে এবং চিন্তামুক্ত থাকবেন।

৯। মনোযোগ বিছিন্ন করে এমন সবকিছু থেকে নিজেকে দূরে রাখুন। সম্ভব হলে কাজ করার সময় ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস থেকে নিজেকে বিরত রাখুন।

১০। নিজেকে সময় দিন। নিজের পছন্দমত কিছু করুন। প্রতিদিন কিছু প্রোডাক্টিভ কাজ করুন।বই পড়ুন কিংবা সিনেমা দেখুন।এতে করে চিন্তামুক্ত কম থাকবেন এবং নেতিবাচক মানুষ থেকে দূরে থাকবেন।

১১। ভালো হয় দিন শুরু করুন হালকা ব্যায়াম দিয়ে। সারাদিন চাঙ্গা থাকবেন।

১২। কখনো অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজ ফেলে রাখি কারণ ভয় পাই যে কাজটা সঠিক ভাবে হবে না কিংবা হয়তো সফল হবো না। খুব পারফেক্টশনিস্ট যারা তারা প্রায়ই দীর্ঘসূত্রিতার শিকার। কারণ তারা মনে করেন নিখুঁতভাবে কাজটা করতে পারবেন না। তাই কাজটা পারব নাকি পারব না এটা না ভেবে আমাদের কাজটা শুরু করে দেয়া উচিৎ।কারন শুরু করাটাই চ্যালেঞ্জ।

১৩। অতীতে কত কাজ ফেলে রেখেছেন এজন্য নিজেকে দোষারোপ বন্ধ করুন। নিজেকে ক্ষমা করার মাধ্যমেই নতুন কাজের ইচ্ছা তৈরি হবে এবং ইতিবাচক মনোভাব হবে।

দীর্ঘসূত্রিতা প্রায় আমরা সবাই করি। কিন্তু এর মাত্রা বেড়ে গেলে তা শিক্ষা এবং প্রফেশনাল জীবনে অনেক সমস্যা সৃষ্টি করে। প্রোডাক্টিভ কাজের অনুপাত অনেক কমে যায় এবং খুব ঢিমেতাল জীবনযাপন শুরু করি। এতে করে সৃজনশীলতা নষ্ট হয়ে যায়। আর বর্তমান যুগে আমাদের কাছে এত অপশন যে এখন কোনো কিছুতে ফোকাসড থাকতে পারি না। তাই লক্ষ্য বিচ্যুত হওয়ার মাত্রাও বেশি আর এই সুযোগে বাড়ে দীর্ঘসূত্রিতাও। ভার্চুয়াল জগতে সামাজিক হতে গিয়ে নিজের জীবনেই ছন্নছাড়া হয়ে পড়ি। তাই নিজেকে যতটা বেশি প্রোডাক্টিভ করতে পারব ততটাই আমাদের লাভ।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসজেড

আরোও পড়ুন
সর্বাধিক পঠিত
শিস দিয়েই দুই বাংলার তারকা জামালপুরের অবন্তী
শিস দিয়েই দুই বাংলার তারকা জামালপুরের অবন্তী
আশুরার রোজা: নিয়ম ও ফজিলত
আশুরার রোজা: নিয়ম ও ফজিলত
তরুণীদের বেডরুমে নেয়ার পর হত্যা করাই কাজ
তরুণীদের বেডরুমে নেয়ার পর হত্যা করাই কাজ
রাতে ফেসবুক বন্ধ চান রওশন
রাতে ফেসবুক বন্ধ চান রওশন
সূরা আল নাস এর গুরুত্ব ও ফজিলত
সূরা আল নাস এর গুরুত্ব ও ফজিলত
অবন্তী সিঁথির জয়জয়কার
অবন্তী সিঁথির জয়জয়কার
যদি তুমি রুখে দাঁড়াও তবেই তুমি বাংলাদেশ!
যদি তুমি রুখে দাঁড়াও তবেই তুমি বাংলাদেশ!
যৌনতায় ঠাসা ৫টি সিনেমা
যৌনতায় ঠাসা ৫টি সিনেমা
উচ্চতা বাড়ায় যেসব খাবার
উচ্চতা বাড়ায় যেসব খাবার
মিলনে ‘অপটু’ ট্রাম্প, বোমা ফাটালেন এই পর্নো তারকা!
মিলনে ‘অপটু’ ট্রাম্প, বোমা ফাটালেন এই পর্নো তারকা!
‘শাহরুখ’ আর রেডি গোয়িং টু জাহান্নাম!
‘শাহরুখ’ আর রেডি গোয়িং টু জাহান্নাম!
‘তারেকের তিন গাড়ি, আমার বোন চলে বাসে’
‘তারেকের তিন গাড়ি, আমার বোন চলে বাসে’
নিককে প্রকাশ্যে চুমু খেলেন প্রিয়াঙ্কা
নিককে প্রকাশ্যে চুমু খেলেন প্রিয়াঙ্কা
বিয়ে ছাড়াই মা হলেন জিৎ-এর প্রেমিকা!
বিয়ে ছাড়াই মা হলেন জিৎ-এর প্রেমিকা!
স্টিফেন হকিংয়ের পাঁচ ভয়ংকর ভবিষ্যদ্বাণী
স্টিফেন হকিংয়ের পাঁচ ভয়ংকর ভবিষ্যদ্বাণী
‘পবিত্র আশুরা’
‘পবিত্র আশুরা’
সূরা বাকারার শেষ অংশের ফজিলত
সূরা বাকারার শেষ অংশের ফজিলত
চাকরি না পাওয়ায় সুইসাইড নোট লিখে যুবকের আত্মহত্যা
চাকরি না পাওয়ায় সুইসাইড নোট লিখে যুবকের আত্মহত্যা
স্টিফেন হকিংয়ের জীবন বদলানো ১০ উক্তি
স্টিফেন হকিংয়ের জীবন বদলানো ১০ উক্তি
বিবাহিতা বা সন্তানের মা হলে ১০ লাখ জরিমানা!
বিবাহিতা বা সন্তানের মা হলে ১০ লাখ জরিমানা!
সর্বশেষ:
ইরানের আহবাজ শহরে সেনা প্যারেডে বন্দুকধারীর হামলা, আহত ২০ ইরানের আহবাজ শহরে সেনা প্যারেডে বন্দুকধারীর হামলা, আহত ২০ সড়ক পরিবহন আইনে যাত্রীদের অধিকার সম্পূর্ণ উপেক্ষা করা হয়েছে: যাত্রীকল্যাণ সমিতি সড়ক পরিবহন আইনে যাত্রীদের অধিকার সম্পূর্ণ উপেক্ষা করা হয়েছে: যাত্রীকল্যাণ সমিতি ২০১৮ শেষ অথবা ২০১৯’র শুরুতে জাতীয় নির্বাচন: সিইসি ২০১৮ শেষ অথবা ২০১৯’র শুরুতে জাতীয় নির্বাচন: সিইসি যশোরে ও বান্দরবানে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২ যশোরে ও বান্দরবানে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২ ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র ওসমান গণি মারা গেছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র ওসমান গণি মারা গেছেন তানজানিয়ায় ফেরি ডুবে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩৬ তানজানিয়ায় ফেরি ডুবে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৩৬