Alexa নির্বাচনের আগে-পরে সেনা চায় বিকল্পধারা

ঢাকা, রোববার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ৭ ১৪২৬,   ২২ মুহররম ১৪৪১

Akash

নির্বাচনের আগে-পরে সেনা চায় বিকল্পধারা

 প্রকাশিত: ১৬:৩৫ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৮   আপডেট: ১৬:৩৫ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

নির্বাচনী পরিবেশ নিরপেক্ষ রাখতে ও নির্বাচন পরবর্তী শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষায় নির্বাচনের আগে পরে চার মাস সেনা মোতায়েনের দাবি করেছেন বিকল্পধারা বাংলাদেশের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. এ কিউ এম বদরদ্দোজা চৌধুরী। 

শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জেএসডি আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

‘গণতন্ত্র ন্যায় বিচার, প্রেক্ষিত ও করণীয়’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন। 

প্রধান অতিথি ডা. বি চৌধুরী বলেন, স্বৈরাচার আইয়ুব খান টিকেছিলেন ১০ বছর, এরশাদ ৯ বছর। অতীতে কোনো স্বৈর শাসকই বেশিদিন টেকেনি। ভবিষ্যতেও টিকবে না। 

এই সরকারেরও ১০ বছর হয়েছে, এখন চলে যাও। ইভিএম এ ভোটগ্রহণের মাধ্যমে দুই ধরনের ষড়যন্ত্রের চেষ্টা করা হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, একটি হচ্ছে আগামী নির্বাচনে জেতা। আর অন্যটি হল ইভিএম-এ সবাইকে মশগুল রেখে অন্যকাজ সারা। 

গণ ফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেন, মজার বিষয় হচ্ছে সব স্বৈরাচারী শাসকই নিজেদেরকে গণতান্ত্রিক বলে দাবি করেন। কারণ স্বৈরাচারী বললে তো কারো সমর্থন পাওয়া যাবে না। 

তিনি বলেন, প্রজাতন্ত্রের মালিক জনগণ। রাষ্ট্র পরিচালনায় জনগণের সেই মালিকানা বজায় রাখতে হলে ভোটের আয়োজন করতে হবে। এসব করে কোনো স্বৈরাচার ক্ষমতা ধরে রাখতে পারেনি। আমি কনফিডেন্টলি বলতে পারি, এই স্বৈরাচার সরকারও পারবে না। তাই আমাদের সব থেকে বড় দায়িত্ব হল ভোটটা করানো। এক পর্যায়ে ভোট নাও হতে পারে। তাই আমাদের ভোট করাতে হবে এবং এ প্রক্রিয়াকে পাহাড়া দিতে হবে। 

অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন জেএসডি সভাপতি আ স ম আব্দুর রব। নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না ও জেএসডি সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক রতন প্রমুখ আলোচনায় অংশ নেন। 

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআই