Alexa নির্বাচনের আগেই গার্মেন্টস শিল্পে ন্যূনতম মজুরি ঘোষণা

ঢাকা, শুক্রবার   ১৯ জুলাই ২০১৯,   শ্রাবণ ৪ ১৪২৬,   ১৫ জ্বিলকদ ১৪৪০

নির্বাচনের আগেই গার্মেন্টস শিল্পে ন্যূনতম মজুরি ঘোষণা

 প্রকাশিত: ২৩:১৩ ২১ মার্চ ২০১৮  

প্রতিমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক : ফাইল ফটো

প্রতিমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক : ফাইল ফটো

আগামী নির্বাচনের আগেই গার্মেন্টস শিল্পের শ্রমিকদের জন্য ন্যূনতম মজুরি ঘোষণার আশ্বাস দিয়েছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক। ‘বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিকদের অবস্থা ও অধিকার’ বিষয়ক একটি সমীক্ষার ফল উপস্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এই প্রতিশ্রুতি দেন।

রাজধানীর গুলশানে স্পেক্ট্রা কনভেনশন হলে বুধবার (২১ মার্চ) এসব কথা বলেন। ওই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ‘মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন’। ইউরোপীয় ইউনিয়নের উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা ‘তেরে দেস হোমস’ টিডিএইচ (ইতালি) ও মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের সহায়তায় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মাহামুদুল এইচ সুমন এই সমীক্ষা পরিচালনা করেন।

ব্যান্ড-বায়ার সংগঠনগলোকে তৈরি পোশাকের মূল্যবৃদ্ধির জন্য ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানিয়ে শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকার কলকারখানা পরিদর্শন ব্যবস্থার সক্ষমতা বৃদ্ধি করেছে। অধিদফতরের জনবল বেড়েছে। শুধু গার্মেন্টস শ্রমিকদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় দেখার জন্য ত্রিপক্ষীয় কমিটি গঠন করা হয়েছে।

নারী শ্রমিকদের নিয়ে ট্রেড ইউনিয়ন গঠনের জন্য তাদের নেতাদের পরামর্শ দেন প্রতিমন্ত্রী। নারী শ্রমিকদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় দেখাই হবে এর মূল লক্ষ্য। ট্রেড ইউনিয়ন নিবন্ধন পাওয়ার পর সেগুলোকে ভালোভাবে চালানোর জন্য শ্রমিক নেতাদের তাগিদ দিয়েছেন তিনি। ট্রেড ইউনিয়ন সম্পর্কে তাদেরকে আরও সচেতন হতে হবে বলে উল্লেখ করেন প্রতিমন্ত্রী।

এদিকে ‘বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিকদের অবস্থা ও অধিকার’বিষয়ক সমীক্ষায় ঢাকা, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ ও চট্টগ্রামের মোট ৭৭০ জন শ্রমিকের ওপর জরিপ পরিচালনা করা হয় এবং গুণগত উপায়ে মতামত নেওয়া হয়। এতে গার্মেন্টসের নারী শ্রমিকদের কর্মস্থলের অভিজ্ঞতার ওপর বিশেষভাবে আলোকপাত করা হয়েছে।

সমীক্ষার ফল উপস্থাপন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীরা নারী শ্রমিকদের নিয়মিত বেতন, মাতৃত্বকালীন ছুটি ও সুবিধা প্রাপ্তি নিশ্চিত করা ও কর্মক্ষেত্রে যৌন হয়রানি বন্ধে সংশি­ষ্ট সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। বুধবারের অনুষ্ঠানে জাননো হয়, ঢাকা ও গাজীপুরে ৭২ শতাংশ এবং নারায়ণগঞ্জ ও চট্টগ্রামে ৭৬.৬০ শতাংশ শ্রমিক মাতৃত্বকালীন ছুটি ও সুবিধা সম্পর্কে জানে।

‘মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন’র নির্বাহী পরিচালক শাহীন আনামের সঞ্চালনায় এ আয়োজনে আরও বক্তব্য রাখেন তেরে দেস হোমসের প্রতিনিধি সিলভিয়া রোজেলি, গার্মেন্টস সংক্রান্ত নিম্নতম মজুরি বোর্ডের সদস্য শামছুন্নাহার ভূঁইয়া ও বিলস-এর নির্বাহী পরিচালক সৈয়দ সুলতান উদ্দিন আহমেদ।

ডেইলি বাংলাদেশ/ আরএ