‘নিউ ইংল্যান্ড মুসলিম ফেস্টিভালে’ অমুসলিমদের অংশগ্রহণ

ঢাকা, শুক্রবার   ২৯ মে ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৭,   ০৫ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

‘নিউ ইংল্যান্ড মুসলিম ফেস্টিভালে’ অমুসলিমদের অংশগ্রহণ

 প্রকাশিত: ২০:০৬ ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

গত ১৭ সেপ্টেম্বর আমেরিকার ম্যাসাচুসেটস প্রদেশের মালাউন্ড শহরে দ্বিতীয় নিউ ইংল্যান্ড মুসলিম ফেস্টিভাল অনুষ্ঠিত হয়। এ অনুষ্ঠানে সহস্রাধিক অ-মুসলিম অংশগ্রহণ করেছেন।

গত সপ্তাহান্তে ক্যামব্রিজ হেলথ অ্যালায়েন্সের পার্কিং লটে অনুষ্ঠিত হয়। গরম আবহাওয়া সত্ত্বেও, প্রায় ৫.০০০ জন অংশগ্রহণকারী আমেরিকান মুসলিম সম্প্রদায়ের সমৃদ্ধ সংস্কৃতি উদযাপন করে। ইভেন্ট আয়োজকরা অন্যান্য নিউ ইংল্যান্ডের শহর ও শহর থেকে মুসলমানদেরকে একসঙ্গে অমুসলিমদের সাথে নিয়ে আসার জন্য কঠোর পরিশ্রম করে এবং সংস্কৃতি সম্পর্কে সত্যিকার অর্থে শিক্ষিত হওয়ার চেষ্টা করে।

গত বছরে ‘নিউ ইংল্যান্ড মুসলিশ ফেস্টিভাল’ সাংস্কৃতিক উৎসবের প্রথম পর্ব অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এবার দ্বিতীয় বার্ষিক নিউ ইংল্যান্ড মুসলিম ফেস্টিভাল অনুষ্ঠানটি ক্যামব্রিজ হেলথ অ্যালায়েন্সের পার্কিং লটে অনুষ্ঠিত হয়। প্রচণ্ড গরম আবহাওয়াকে উপেক্ষা করে প্রায় ৫ হাজার লোকের সমাগম ঘটে এ অনুষ্ঠানে। এটি আমেরিকান মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে তাদের সংস্কৃতিকে সমৃদ্ধ করে এ অনুষ্ঠান উদযাপন করা হয়।

অনুষ্ঠানের আয়োজকরা নিউ ইংল্যান্ড শহর ও অন্যান্য শহর থেকে অমুসলিমদেরকে মুসলিম সংস্কৃতির সঙ্গে পরিচিত করতে তাদের সঙ্গে করে নিয়ে আসার জন্য কঠোর পরিশ্রম করে।

এ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীদের জন্য স্বাস্থ্য পরীক্ষা, ড্রাইভিং প্রতিযোগিতা, কম্পিউটার গেইম খেলা, হালাল খাদ্য দ্বারা আপ্যায়ন এবং শিশুদের জন্য বিভিন্ন ধরণের খেলাসহ নানামুখী আয়োজন করা হয়।

উৎসবের সহ-সমন্বয়কারী ও উত্তর আমেরিকার ম্যাসাচুসেটস প্রদেশের ইসলামিক রিলিফ সোসাইটির পরিচালক মেলিকা ম্যাকডোনাল্ড বলেন, ‘ইসলামী সাংস্কৃতিক উৎসব পালনের মাধ্যমে আমরা অমুসলিমদেরকে একটি বড় সুযোগ করে দিয়েছি। এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করার মাধ্যমে তারা ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে অনেক তথ্য জানতে পেরেছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘অমুসলিমরা ইসলামি সংস্কৃতি এবং ইসলামি হালাল বিনোদন সম্পর্কে জানার জন্য এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেছে। এই অনুষ্ঠানের অংশগ্রহণ করে তারা দেখেছে মুসলমানেরাও অন্যান্য ধর্মের অনুসারীদের মতো চিত্তবিনোদন ও আনন্দ করে।

ফেস্টিভালে অনেক স্টল বসে। অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীদের জন্য বিক্রেতারা পোশাক, খাদ্য, শিল্পকর্ম এবং বিভিন্ন ধরনের দোকানের পসরা সাজিয়ে বসেয়। এখান থেকে অনেকেই ইসলামি বাহারি পোশাক, খাদ্য ও শিল্পকর্ম কেনেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএজে