Exim Bank
ঢাকা, বুধবার ২০ জুন, ২০১৮
Advertisement

না খেয়ে ৭০ বছর পার!

 মজার খবর ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:১৫, ১৩ জুন ২০১৮

৪৭৩২ বার পঠিত

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

যারা কেবল বাতাস খেয়ে বাঁচে। আন্তর্জাতিক ভাবে তাদের ‘ব্রেদারিয়ান’ বলে সম্বোধন করা হয়। এমনই এক যোগির খোঁজ পাওয়া যায় ভারতের গুজরাটে।

ভারতের গুজরাটের চারো গ্রামের ৮৫ বছর বয়সী এক যোগীর নাম প্রহলাদ জানি। তার দাবি, খাবার বা পানি ছাড়াই দিব্যি সাত দশকের বেশি সময় ধরে বেঁচে আছেন তিনি। খবর এনডিটিভির।
‘মাতাজি’ নামে পরিচিতি পাওয়া অশীতিপর এই ব্যক্তি সবসময় লাল কাপড় পরেন। অস্বাভাবিক এই দাবি করে তিনি বিশ্বের বিজ্ঞানীদের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছেন। তারা যোগির অস্বাভাবিক এই জীবনযাত্রায় অবাকই হয়েছেন।

এই যোগীর দাবি, তিনি আম্বাজির সাধক। ধ্যান করেই কাজের শক্তি পান। কোনওরকম টাকা না নিয়েই তিনি ভক্তদের সঙ্গে দেখা করেন।

বেশ কয়েকবার তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছে। তাকে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা বিজ্ঞানীদের মধ্যে ভারতের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডা. এপিজে আবুল কালামও রয়েছেন। এমনকি তার আশ্রমের গাছের ওপরও পরীক্ষা চালানো হয়েছে। কিন্তু বিজ্ঞানী ও ডাক্তাররা কোনও সূত্রই খুঁজে পাননি এবং তার জীবন প্রণালী নিয়ে কোনও ব্যাখ্যাও দাঁড় করাতে পারেননি।

এদিকে ‘মাতাজি’ প্রাহলাদ জানিকে দেখতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি থেকে শুরু করে রাজনীতির একাধিক নেতা তার দর্শনে যান। দূর দূরান্তের মানুষও মাতাজির দর্শন করতে তার আশ্রমে আসেন।

এর আগে ২০১০ সালে ডিফেন্স ইন্সটিটিউট অব ফিজিওলজি অ্যান্ড অ্যাপ্লাইড সায়েন্সেস (ডিআইপিএএস) এবং ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপম্যান্ট অর্গানাইজেশন (ডিআরডিও) খুব কঠোর পরিবেশে তাকে সম্পূর্ণ আলাদা স্থানে রেখে ১৫ দিন পর্যবেক্ষণ করেছে।

তার এমআরআই, আল্ট্রাসাউন্ড, এক্সরে এবং সূর্যালোকের নিচে বিরামহীন ভিডিও রেকর্ড করা হয়। কিন্তু সব পরীক্ষা নিরীক্ষা করে তার না খেয়ে থাকার দাবি ভুল প্রমাণ করতে পারেননি বিজ্ঞানীরা।

ডেইলি বাংলাদেশ/সালি

 

সর্বাধিক পঠিত