নামাজরত মাকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করল ছেলে 

ঢাকা, শনিবার   ০৪ এপ্রিল ২০২০,   চৈত্র ২১ ১৪২৬,   ১০ শা'বান ১৪৪১

Akash

নামাজরত মাকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করল ছেলে 

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:২৯ ২০ মার্চ ২০২০  

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার উমর মজিদ ইউপির পান্থাবাড়ি গ্রামে জুমা চলার সময় নিজ ঘরে নামাজরত আপন মাকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে ছেলে মন্তাজুল মিয়া।

এ ঘটনার পর এলাকাবাসী ঘাতক ছেলে মন্তাজুলকে আটক করে বেঁধে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে তাকে আটক করে।

নিহত মা মিনি বেগম পান্থাবাড়ি গ্রামের সোলায়মান আলীর স্ত্রী।

এলাকাবাসী জানান, জুমার নামাজের সময় মিনি বেগম তার নিজের ঘরে নামাজ পড়তে বসে। এ সময় তার মানসিক ভারসাম্যহীন ছেলে মন্তাজুল ঘরে থাকা কুড়াল দিয়ে মায়ের গলায় জোড়ে কোপ মারে। এতে মা মিনি আক্তারের গলা কেটে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়।

মায়ের হত্যাকারী ছেলে  

তারা আরো জানান, মন্তাজুল কয়েক বছর আগে মানসিক ভারসাম্যহীন হয়ে পড়েন। অনেক চিকিৎসার পর বর্তমানে তাকে বাড়িতে বেঁধে রেখে কবিরাজি চিকিৎসা করাচ্ছিলেন তার পরিবারের সদস্যরা। ঘটনার সময় তার হাত-পায়ের বাঁধন খোলা ছিল।

এ ব্যাপারে রাজারহাট থানার ওসি কৃঞ্চ কুমার সরকার বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। মাকে খুনের অপরাধে ছেলে মন্তাজুল মিয়াকে আটক করা হয়েছে।

ওসি আরো বলেন, এলাকাবাসী ও তার পরিবারের লোকজনের সঙ্গে কথা বলে জানতে পেরেছি মন্তাজুল মানসিক রোগী ছিল। ঘটনা তদন্ত করা হচ্ছে। ঘাতক ছেলের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ