নাইট শিফট করছেন? সাবধান থাকুন এই বিষয়গুলোতে!
SELECT bn_content.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content.ContentID WHERE bn_content.Deletable=1 AND bn_content.ShowContent=1 AND bn_content.ContentID=112775 LIMIT 1

ঢাকা, বুধবার   ০৫ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ২২ ১৪২৭,   ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

নাইট শিফট করছেন? সাবধান থাকুন এই বিষয়গুলোতে!

স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:৩৬ ১৮ জুন ২০১৯  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

সরকারি বা বেসরকারি যে কোনো অফিসে নাইট শিফট প্রায় বাধ্যতামূলক থাকে। এক্ষেত্রে নারীদের চাইতে পুরুষেদের বাধ্য হতে হয় বেশি। কিন্তু রাতের না ঘুমিয়ে কাজ করে দিনের ঘুম সেই শূণ্যতা পূরণ করতে পারে না। ফলে তৈরি হয় নানা শারীরিক সমস্যা। তবে একটু সচেতন থাকলেই সেই সমস্যাগুলো কাটিয়ে উঠতে পারবেন সহজেই। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক এই সম্পর্কে কিছু তথ্য-

শিফট শুরু হওয়ার আগে পরিমাণমতো ঘুমান 
নাইট শিফটের জন্য রাতে জাগতে হয়। আর দিনে ঘুমাতে হয়। এর ফলে বায়োলজিক্যাল ক্লকের হেরফের হয়। ফলে অপর্যাপ্ত হয় ঘুম। তাই সেই ঘুমের ঘাটতি মিটিয়ে নিন শিফট শুরু হওয়ার আগেই। অন্তত সাত থেকে আট ঘন্টা ঘুমিয়ে নিন। ঘুম থেকে উঠে একটু হেঁটে আসুন। তারপর তৈরি অফিসের জন্য তৈরি হন।

নাইট শিফট থেকে ফিরেই ঘুম নয়
মনে রাখতে হবে নাইট শিফটে কাজের ক্লান্তি, দিনের কর্মক্ষমতা কমায়। ফলে দিনে কাজের পরিশ্রম যতই হোক না কেন, নাইট শিফটে পরিশ্রম অনেক বেশী। কারণ এতে মানসিক ক্লান্তির সঙ্গে থাকে শারীরিক ক্লান্তিও। তাই বাড়ি ফিরে যদি সঙ্গে সঙ্গে ঘুমিয়ে পড়েন, তবে ততটা ক্লান্তিবোধ কাটবে না। তাই বাড়ি ফিরে পছন্দের কাজ করুন। বই পড়া, গান শোনা, পছন্দের খাবার খাওয়া। বেশ কিছুটা সময় রিল্যাক্স করে, তারপর ঘুমাতে যান।

নাইট শিফটে বাদ দিন কফি, কোল্ড ড্রিংকস
রাতে জেগে থাকতে অনেকেই ঘন ঘন কফি খান। সেটা কিন্তু শরীরে সব থেকে বেশি ক্ষতি করে। তাই নাইট শিফটে কাজের ফাঁকে ঘুম পেলে ব্রেক নিয়ে হাঁটুন। কিন্তু কফি বা কোল্ড ড্রিংকস খেয়ে শরীরের ক্ষতি করবেন না।

শিফট চলাকালীন টুকটাক খাওয়া বাদ দিন
রাতে কাজ করতে করতে অনেকেই ক্ষিদে না পেলেও স্ন্যাক্স জাতীয় কিছু খেতে পছন্দ করেন। এই অভ্যাসটি মোটেও ঠিক নয়। কারণ অসময়ে খাওয়া ফ্যাট বাড়ায়। শুধু তাই নয়, ঘুমও বেশি পায় এই ধরণের খাওয়াতে। তবে প্রোটিন জাতীয় খাবার খেতে পারেন। যেমন- ডিম, পনির বা পিনাট বাটার জাতীয় খাবার। এতে সহজে ঘুম আসবে না।

নাইট শিফট করলে অবশ্যই ব্যায়াম করুন
সপ্তাহের যতদিনই নাইট শিফট করুন না কেন, দিনের বেলায় নিয়ম করে ব্যায়াম করুন বা জিমে যান। শরীর চর্চা আপনাকে ফিট ও সতেজ রাখবে। ব্যায়ামের আগে হাল্কা কিছু খান। এক্ষেত্রে ফল, প্রোটিন বার বা বিস্কুট জাতীয় খাবার শরীরকে প্রয়োজনীয় পুষ্টি দিবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএ