.ঢাকা, বুধবার   ২০ মার্চ ২০১৯,   চৈত্র ৫ ১৪২৫,   ১৩ রজব ১৪৪০

ধৈর্যের কারণেই এমন ব্যাটিং

ক্রীড়া প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: ১৯:০২ ১ ডিসেম্বর ২০১৮   আপডেট: ১৯:০২ ১ ডিসেম্বর ২০১৮

ছবি সংগৃহীত

ছবি সংগৃহীত

মিরপুর টেস্টে বেশ কিছু রেকর্ড গড়ে ফেলেছে বাংলাদেশ। উইন্ডিজের বিপক্ষে দ্বিতীয়বারের মতো পাঁচশ ছাড়ানো ইনিংস। যার মধ্যে ১১ ব্যাটসম্যানই পৌঁছেছেন ডাবল ফিগারে। তবে কি ব্যাটিং এতো সহজ ছিল মিরপুরে?

টাইগার সহঅধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ মনে করেন, চট্টগ্রাম থেকে মিরপুরের পিচ কিছুটা ভালো ছিল। তবে ব্যাটসম্যানরা বেশি ভালো ব্যাটিং করেছে। আর এ কারণেই রান হলেও বাউন্ডারির সংখ্যা বেশ কম ছিল। রিয়াদের ভাষায়, “আমাদের ব্যাটসম্যানরা অনেক ভালো ব্যাটিং করেছে। আপনি যদি আমাদের স্কোরকার্ড দেখেন, সবাই ডাবল ফিগারে গিয়েছে। আমার ইনিংসটা একটু বড় হয়েছে, সাকিবের ইনিংসটা বড় হয়েছে। সাদমান খুব ভালো ব্যাটিং করেছে। আর সবাই স্টার্ট পেয়েছিল। তারপরও আমি বলবো, উইকেট ওতটা ইজি ছিল না, রান স্কোরিংয়ের দিক থেকে। অনেক পেশেন্স নিয়েই খেলতে হয়েছে। আপনি যদি মেক্সিমাম শটস দেখেন, খুব একটা চার হয়নি। বাউন্ডারিও বেশ বড় ছিল, উই হ্যাভ টু হিট দ্য বল ভেরি হার্ড টু পুট ইট ইন দ্য গ্যাপস। ওই জিনিসটা খুব ইম্পরট্যান্ট ছিল, আর সবাই অনেক ধৈর্য নিয়ে ব্যাট করেছে”।

মাহমুদউল্লাহ যোগ করেন, “সাকিবের ইনিংসটা অনেক ইম্পরট্যান্ট ছিল অ্যাজ ওয়েল অ্যাজ সাদমান। শুরুটা ইম্পরট্যান্ট ছিল, সাদমান ব্যাটেড রিয়েল ওয়েল। বুঝাই যায় নি ও প্রথম ম্যাচ খেলছে, মানে খুবই কমপোজ ছিল।উইকেটে বল খুব যে ব্যাটে আসছিল এমন ছিলো না। কষ্ট করে ব্যাট করতে হয়েছে। একটা সেশন, গত কাল বিকেলের দিকে, হার্ডলি দুইটা কি তিনটা বাউন্ডারি হয়েছে। সাকিবও বেশ কষ্ট করে ব্যাট করছিলো।যদি বোলিংয়ের দিক বলি, আমার মনে হয় আমরা বেটার জায়গায় বল করেছি আজ। সময়টা খুব ইম্পরট্যান্ট ছিল, আমরা চেয়েছিলাম দুই তিনটা উইকেট নিয়ে এগিয়ে যেতে। এখানে আধা ঘণ্টায় আজ পাঁচটা উইকেট পড়েছে। এই বিষয়টা আমাদের বেশ কনফিডেন্ট দিচ্ছে’’।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএইচ