Alexa ‘দেশেই তৈরি করতে হবে ফায়ার ফাইটিং যন্ত্রপাতি’

ঢাকা, শুক্রবার   ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০,   ফাল্গুন ১৫ ১৪২৬,   ০৪ রজব ১৪৪১

Akash

‘দেশেই তৈরি করতে হবে ফায়ার ফাইটিং যন্ত্রপাতি’

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:২৭ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৮:৫৬ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, শিল্পের জন্য ফায়ার সেফটি অ্যান্ড সিকিউরিটি নিশ্চিত করা একান্ত প্রয়োজন। এ সেক্টরের অনেক যন্ত্রপাতি এখনো আমরা আমদানি করছি। আমাদের সুযোগ ও দক্ষতা আছে এ ধরনের যন্ত্রপাতি তৈরি করার। তাই ফায়ার ফাইটিং যন্ত্রপাতি দেশেই তৈরি করতে হবে।

বৃহস্পতিবার ঢাকায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে তিনদিনের ৭ম ইন্টারন্যাশনাল সেফটি অ্যান্ড সিকিউরিটি এক্সপো-২০২০ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। ইলেক্ট্রনিক সেফটি অ্যান্ড সিকিউরিটি অ্যাসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ (ইএসএসএবি) এর আয়োজন করে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, নিজেরাই ফায়ার ফাইটিং যন্ত্রপাতি তৈরি করলে আমাদের আর আমদানি নির্ভর থাকতে হবে না, একইসঙ্গে দেশে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। সরকার প্রয়োজনীয় সব ধরনের সহযোগিতা প্রদান করবে।

পোশাক শিল্পের প্রসার সর্ম্পকে তিনি বলেন, অনেক ক্ষেত্রেই আমরা এখন স্বনির্ভর। তৈরি পোশাক শিল্পে আমরা বিশ্বের মধ্যে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছি। রফতানির সিংহ ভাগ আসে তৈরি পোশাক খাত থেকে। বিশ্বর সেরা ১০টি গ্রিন ফ্যাক্টরির মধ্যে বাংলাদেরই সাতটি। এগুলোর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ইলেক্ট্রনিক সেফটি অ্যান্ড সিকিউরিটি একান্ত প্রয়োজন। একসময় এগুলোর ডিজাইন বিদেশ থেকে এক্সপার্ট নিয়ে এসে বিপুল অর্থ ব্যয় করে করতে হতো। এখন দেশের এক্সপার্টরাই তা করছেন। আমাদের সক্ষমতা অনেক বেড়েছে।

উল্লেখ্য, এবারের এক্সপোতে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, জার্মান, ইতালি, তাইওয়ান, তুরস্কসহ ২৫টি দেশের ফায়ার সেফটি অ্যান্ড সিকিউরিটি ব্র্যান্ডের বিভিন্ন পণ্য ৭৫টি স্টলে প্রদর্শিত হচ্ছে। রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে কোনো ফি ছাড়াই এক্সপোতে প্রবেশ করা যাবে। এক্সপো চলবে ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

ইলেক্ট্রনিক সেফটি অ্যান্ড সিকিউরিটি অ্যাসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট মো. মোতাহার হোসান খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের পরিচালক লেফট্যানেন্ট কর্নেল এস এম জুলফিকার রহমান, এফবিসিসিআই-এর সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট মুনতাকিম আশরাফ, বিজিএমইএ-এর প্রথম ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহা. আব্দুস সালাম। এছাড়া অ্যসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোহা. মাহমুদ ও এক্সপোর আহ্বায়ক জাকির উদ্দিন আহমেদ বক্তব্য রাখেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএইচ