Alexa দুঃশাসন প্রতিহতে বৃহত্তর ঐক্যের ডাক বিএনপির

ঢাকা, রোববার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ৭ ১৪২৬,   ২২ মুহররম ১৪৪১

Akash

দুঃশাসন প্রতিহতে বৃহত্তর ঐক্যের ডাক বিএনপির

 প্রকাশিত: ১৮:১৭ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৮   আপডেট: ০১:৩৬ ২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

বিভেদ ভুলে দুঃশাসন প্রতিহতের আহ্বান জানিয়ে বৃহত্তর ঐক্যের ডাক দিয়েছে বিএনপি। দলের শীর্ষনেতা স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, তফসিল ঘোষণার আগে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে হবে। ৫ জানুয়ারির মত প্রহসনের নিবার্চন আর করতে দেয়া হবে না।  

শনিবার রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বিএনপি’র ৪০ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। 

খন্দকার মোশাররফ বলেন, নিবার্চনের আগে পুলিশসহ প্রশাসনের সবাই নিজ নিজ ত্রুটি ভুলে ভাল হয়ে যান। সুষ্ঠু নিবার্চনের জন্য সহযোগিতা করুন। আওয়ামী লীগের সঙ্গে মিশে যারা দেশের টাকা লুট করেছেন, গুম করেছেন, তাদের  বিচার করা হবে।

ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে বিএনপি চেয়ারপারসনকে মিথ্যা মামলায় কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে দাবি করে মোশাররফ আন্দোলনের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা হবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে আরো বক্তব্য দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, শামসুজ্জামান দুদু, আহমেদ আযম খান, জয়নাল আবেদীন, বরকত উল্লা বুলু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, মশিউর রহমান, ফজলুল রহমান, আবুল খায়ের ভূঁইয়া, আব্দুস সালাম, আতাউর রহমান ঢালী, হাবিবুর রহমান হাবিব। 

এছাড়া আরো বক্তব্য রাখেন, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, হাবিব উন নবী খান সোহেল, খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বজলুল বাসিত আঞ্জু, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, মুক্তিযোদ্ধা দলের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, মহিলাদলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস ও ছাত্রদলের সভাপতি রাজিব আহসান প্রমুখ।

সমাবেশে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, খালেদা জিয়াকে নির্জন কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে। তাকে সঠিক চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে না। তিনি বলেন, নিবার্চনের আগেই খালেদা জিয়াকে আন্দোলনের মাধ্যমে মুক্ত করতে হবে। নিবার্চন কমিশন পরিবর্তন করতে হবে। সেনাবাহিনীকে ম্যাজিস্ট্রেসি পাওয়ার দিয়ে নির্বাচনী আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় ক্ষমতা দিতে হবে। নিরপেক্ষ ও অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন করতে হবে। অন্যথায় দেশে কোনো নির্বাচন হবে না।

দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেছেন, জনগণের সামনে এসব ইভিএম টিকবে না। তিনি বলেন, খালেদা জিয়ার অপরাধ একটাই তিনি গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করেন। আর তারেক রহমানের অপরাধ তিনি শহীদ জিয়াউর রহমানের ছেলে। অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করাটাই তার অপরাধ। 

মির্জা আব্বাস আরো বলেন, আওয়ামী লীগের উল্টাপাল্টা শাসনকে মেনে না নেয়াই বিএনপির অপরাধ। আর এ কারণে দেশের হাজার হাজার বিএনপির নেতাকর্মীরা মামলায় জজর্রিত হয়ে পড়েছে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছি। যুদ্ধ করে বেঁচে থাকবো। অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতেই বিএনপির জন্ম হয়েছে। শুধু মার খাবার জন্য জন্ম হয়নি আমাদের। মনে রাখবেন, সময় হলেই ঘুরে দাঁড়াবে বিএনপি। 

আরো পড়ুন: বিএনপির চার বার্তা

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআরকে/এলকে/আরআই