Alexa দুর্ভোগ এখানে নিত্যসঙ্গী

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৪ নভেম্বর ২০১৯,   কার্তিক ২৯ ১৪২৬,   ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

Akash

দুর্ভোগ এখানে নিত্যসঙ্গী

আবু মুত্তালিব মতি, আদমদীঘি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১০:৫৯ ৭ নভেম্বর ২০১৯  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ নসরতপুর-মুরইল সড়ক দীর্ঘদিন ধরে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে আছে। এতে প্রতিনিয়ত পোহাতে হচ্ছে দুর্ভোগ ৩২ গ্রামের মানুষকে। 

নসরতপুর বাজার থেকে মুরইল বাসস্ট্যান্ড পর্যন্ত পাঁচ কিলোমিটার পাকা সড়কে শতশত খানাখন্দ সৃষ্টি হয়েছে। এসব খানাখন্দে পড়ে প্রতিদিনই বিকল হচ্ছে যানবাহন, ঘটছে ছোটবড় দুর্ঘটনা।

দুর্ভোগ লাঘবে জরুরি ভিত্তিতে সড়কটি সংস্কার কিংবা পুনঃনির্মাণের দাবি জানিয়েছেন ভুক্তভোগীরা।

সরেজমিনে দেখা গেছে, মুরইল বাসস্ট্যান্ড থেকে নসরতপুর রেলগেট পর্যন্ত সড়ক দিয়ে প্রতিদিন বনতইর, ধনতলা, বশিকোড়া কুন্দগ্রাম, কড়ই, বিহিগ্রাম, চাঁপাপুর, নিমকুড়ি, বেজার, মটপুকুরিয়াসহ ৩২টি গ্রামের মানুষ যাতায়াত করে। এসব গ্রামের মানুষের জন্য উপজেলা সদরসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থনে আসা-যাওয়ার একমাত্র সড়ক এটাই। অথচ আট বছর ধরে সড়কটি সংস্কারের নামও নেই সওজ।

ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, নসরতপুর-মুরইল সড়কটি চলাচলের অনুপযোগী হওয়ায় শিক্ষার্থী, কর্মজীবীদের একরকম যুদ্ধ করেই যাতায়াত করতে হয়। এছাড়া পণ্য পরিবহনে ভোগান্তির শিকার হন কৃষকরাও। বর্ষায় খানাখন্দগুলোয় পানি জমে থাকে। একারণে প্রায়ই উল্টে যায় মোটরসাইকেল, অটোরিকশাসহ ছোট যানবাহন।

উপজেলা প্রকৌশলী সাজেদুর রহমান জানান, নসরতপুর-মুরইল সড়ক সওজ’র অধীনে ছিলো। সম্প্রতি এলজিইডি দায়িত্ব নিয়েছে। এ কারণে সংস্কার কাজ পিছিয়ে পড়েছে। সড়কটি পুনঃনির্মাণের জন্য দ্বিতীয় পর্যায়ে টেন্ডারের প্রস্ততি সম্পন্ন হয়েছে। অনুমোদন পেলেই কাজ শুরু হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর