Alexa দীপিকা পাড়ুকোন ফিটনেস রহস্য, সঙ্গে রইলো তার ডায়েট চার্ট

ঢাকা, শনিবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ৬ ১৪২৬,   ২১ মুহররম ১৪৪১

Akash

দীপিকা পাড়ুকোন ফিটনেস রহস্য, সঙ্গে রইলো তার ডায়েট চার্ট

ফিচার ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:২৯ ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আপডেট: ১৪:১৮ ৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

পুরো বিশ্ব জুড়েই দীপিকা পাড়ুকোনের ভক্তের সংখ্যা নেহাত কম নয়। সবাই তার ফিটনেস ফ্রাশন অনুসরণ করে থাকে। কান ফিল্ম ফেস্টিভ্যালের রেড কার্পেট থেকে ভারতের ফিল্ম ফেয়ারের মঞ্চ, সব জায়গাতেই তার সমান বিচরণ। সেইসঙ্গে তার অভিনয় নিয়ে কারো নিশ্চয়ই কিছু বলার নেই! কিন্তু এসবের ভিত্তি যেটা সেটা হল দীপিকার ফিটনেস।

অমন সুন্দর ফিগার দেখলে নিশ্চয়ই আপনিও ভাবেন যদি আপনার এরকম ফিগার হত! আপনি কী ভাবেন দীপিকা কিচ্ছু খান না! কিন্তু বলিউডে তিনি ফুডি হিসেবে বেশ পরিচিত। তাও অমন টোনড ফিগার! তাই দেখুন আপনার অমন ফিগার হবে কিনা তার জন্য তো আগে জানতে হবে দীপিকার ফিটনেসের মন্ত্র কী? কীভাবে কাটে দীপিকার সারাদিন?

দীপিকার ডায়েট চার্টদীপিকার ডায়েট

দীপিকার মেটাবলিজম খুব ভালো। তিনি রোজ ছয় বার খাবার খেয়ে থাকেন। তিনি ডায়েটে ফাইবার, ভিটামিন, ওমেগা-থ্রি, প্রোটিন, মিনারেল এই সবের ব্যাল্যান্স রেখে খান। দীপিকা কার্স ডায়েটে বিশ্বাস করেন না, বরং তিনি পরিমিত আর নির্দিষ্ট খাবারে বিশ্বাসী। তিনি সারা দিন ফলের রস খেয়ে নিজেকে হাইড্রেটেড রাখেন। রাতে তিনি কখনো ভাত খান না। এখানে রইলো দীপিকার ডায়েট চার্ট-

ডায়েট চার্ট

ভোর সাড়ে ৫টা- এক কাপ গরম পানিতে লেবুর রস আর মধু মিশিয়ে বা কোনো দিন আগের রাতের মেথি ভেজানো পানি দিয়েই সকাল শুরু হয় এই অভিনেত্রীর।

সকাল সাড়ে ৭টা- দুইটি ডিমের সাদা অংশ, দুইটি আমন্ড আর এক কাপ লো ফ্যাট মিল্ক। বা দুইটি ডিমের সাদা অংশ, দুইটি ইডলি বা প্লেইন ধোসা, উপমা।

সকাল সাড়ে ১০টা- এক বাটি ফল খান তিনি।

দুপুর ১টা- গ্রিলড ফিস আর ভেজিটেবল।

সন্ধ্যায়- ফিল্টার কফি, দুইটি আমন্ড, বাদাম।

ডিনার- স্যালাড বা চাপাটি আর সবজি।

ডিনার করছেন দীপিকাদীপিকার সিক্রেট

দীপিকা কখনো পেট খালি রাখেন না। প্রতি দু ঘণ্টা অন্তর অন্তর তিনি খান। এক্ষেত্রে ফলের রসের ওপর নির্ভর করেন তিনি। ডাবের পানি, অন্য ফলের রস, বাটার মিল্ক, এসব খান। এতে সারা দিন হাইড্রেটেড থাকেন তিনি। আর এতে খিদেও কম পায়।

দুর্বলতা

দীপিকাও কিন্তু মিষ্টি বা চকলেট খেতে খুব ভালোবাসেন। কিন্তু তিনি খুব একটা খান না। আসলে ডায়েটের মধ্যে মাঝে মাঝে কিছু পরিবর্তন আনা উচিত। সেই পরিবর্তন আনলে মেটাবলিজম ভালো হয়, শরীর সব কিছু সহ্য করার ক্ষমতা রাখে। দীপিকা তাই কখনো সখনো চকলেট বা মিষ্টি খান।

ঘন ঘন ডাবের পানিসহ জুস খেয়ে থাকেন দীপিকাডায়েটের নিয়ম

১. অতিরিক্ত খাওয়া চলবে না।

২. ঠিক সময়ে খেতে হবে।

৩. নিজেকে উপোস করিয়ে রেখে লাভ নেই।

৪. ডায়েটে বেশি করে ফল আর সবজি রাখতে হবে।

৫. সন্ধে ৭টার পর ভাত একদম নয়।

এর পাশাপাশি তিনি নিয়মিত ব্যায়াম করেন। এটা না করলে কিছুই ঠিক থাকবে না। আসুন জেনে নেয়া যাক- এক্সারসাইজের ক্ষেত্রে দীপিকা কী কী বেছে নিয়েছেন।

ব্যাডমিন্টন খেলোয়ার দীপিকাদীপিকার এক্সারসাইজ

এটা মনে রাখতে হবে দীপিকা কিন্তু একজন স্টেট লেভেলের ব্যাডমিন্টন প্লেয়ার ছিলেন। তিনি মডেলিং ও করতেন। তাই ফিট তাকে বরাবরই থাকতে হয়েছে। দীপিকা নাচ, ইয়োগা, ওজন তোলা এই সবের একটা মিশ্রণ পছন্দ করেন। তিনি নিজেই বলেন, তিনি প্রচুর ফ্রি হ্যান্ড এক্সারসাইজ করেন। তবে তিনি খুব একটা দৌড় পছন্দ করেন না। দীপিকা পাড়ুকোনের ট্রেনার ইয়াসমিন করাচিওয়ালা। তার কাছেই দীপিকা রোজ এক ঘণ্টা মতো এক্সারসাইজ করেন। তিনি পিলেট করেন যা পা, পিঠ, পেটকে খুব ফ্লেক্সিবল করে। এখানে তিনি বললেন কী কী দীপিকার ফিটনেস মন্ত্র-

দীপিকা পাড়ুকোনের ট্রেনার ইয়াসমিন করাচিওয়ালা১. ইয়োগা

দীপিকা তার দিন শুরু করেন ইয়োগা দিয়ে। কারণ তিনি মনে করেন এটি মন ভালো রাখার জন্য খুব দরকার। তিনি বিশ্বাস করেন আসন, প্রাণায়াম এসব করলে শরীর থেকে টক্সিন বের হয়, শরীর আর মন ঝরঝরে হয়। তিনি সূর্য নমস্কার করেন। তিনি এর সঙ্গে করেন মার্জারী আসন, বীরভদ্রাসন, সর্বাঙ্গ আসন, আর সঙ্গে মেডিটেশন, প্রাণায়াম।

২. নাচ

দীপিকার নাচের ভক্ত সবাই। তিনি কিন্তু সেই নাচ ওনার ব্যায়ামের মধ্যেই নিয়ে নিয়েছেন। নাচের মাধ্যমেই তিনি ক্যালোরি ঝরান। তিনি নাচের মধ্যে কত্থক, ভরতনাট্যম, বলিউডি  এসব করেন। সঙ্গে বিদেশী নাচও ওনার ফিটনেস মন্ত্রে সামিল আছে।

নাচছেন দীপিকা৩. হাঁটা

অনেক সময়েই শুটিংএর জন্য ইয়াসমিনের থেকে ট্রেনিং নিতে পারেন না। তখন তিনি হাঁটেন, তাও নিয়ম করে ৩০ মিনিট। এটি তিনি সকাল আর সন্ধ্যা, দিনে দু’ বার করেন। এভাবে তখন তিনি নিজের ক্যালোরি বার্ন করেন।

৪. পিলেট আর স্ট্রেচিং

দীপিকা এটি করতে খুবই পছন্দ করেন। এই ব্যায়ামগুলো তার ফিটনেস ধরে রাখে। তাকে ফ্লেক্সিবল করে আর তার অমন সুন্দর ফিগার মেইনটেইন করতে সাহায্য করে। পিলেট মেসিন আর প্রপ, যেমন রেসিসটেন্স ব্যান্ড, ফোম ওয়েট এই সব তার পছন্দের। এই ব্যায়ামই তার শরীর ফিট করে, আর বেশি পেশি বহুল করে না। দীপিকা জাম্পিং স্কোয়াট করেন, সঙ্গে থাকে কার্ডিয়ো।

জিমে দীপিকা৫. জিম

দীপিকা জিম করার জন্য তেমন বিশ্বাসী নন, কিন্তু তিনি জিমে যান যখন তার ফিটনেস রুটিনে খানিক পরিবর্তন আনতে হয়। তিনি সবসময়ই হালকা ওজন পছন্দ করেন। আর তিনি পরের দিন কি পরবেন সেটা মাথায় রেখে আগের কয়েক দিন নিজেকে তৈরি করেন। যেমন বিকিনি পড়ে শুট থাকলে তিনি মাসল টাইট করার ব্যায়াম করেন।

স্লিম থাকতে দীপিকার মন্ত্র

১. রোজ ঠিক মতো খাও আর ব্যায়াম কর।

২. হাইড্রেটেড থাকো।

৩. ভালো করে ঘুমাও।

৪. মেডিটেশনের মাধ্যমে চিন্তা দূর কর।

কফির কাপে চুমুক দিয়েই কাটে তার বিকেল৫. জাঙ্ক ফুড বাদ দাও।

৬. মজা করে নানা রকম এক্সারসাইজ কর।

৭. একটা ডায়েট অবশ্যই মানা উচিত।

৮. একটা স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন কর।

কত দিন পর পর দীপিকা ব্যায়াম করেন

দীপিকা বাইরে না থাকলে প্রতিদিন ব্যায়াম করেন। কিন্তু বাইরে গেলে ব্যায়াম করা তখন হয় না। কিন্তু তিনি তখন পারলে হাঁটেন। আর তিনি রোজ নিয়ম করে মেডিটেশন করেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস