‘দলের ক্ষতি করলে কঠোর হস্তে দমন’

ঢাকা, মঙ্গলবার   ০৭ এপ্রিল ২০২০,   চৈত্র ২৪ ১৪২৬,   ১৩ শা'বান ১৪৪১

Akash

‘দলের ক্ষতি করলে কঠোর হস্তে দমন’

পিরোজপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:০০ ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ২১:১৬ ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০

পিরোজপুর স্বরূপকাঠিতে প্রয়াত পাঁচ আওয়ামী লীগ নেতার স্মরণ সভায় বক্তব্য দেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম- ডেইলি বাংলাদেশ

পিরোজপুর স্বরূপকাঠিতে প্রয়াত পাঁচ আওয়ামী লীগ নেতার স্মরণ সভায় বক্তব্য দেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম- ডেইলি বাংলাদেশ

আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের যারা ক্ষতি বা নির্যাতন করবে তাদের কঠোর হস্তে দমন করা হবে বলে জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

শনিবার সকালে স্বরূপকাঠি কলেজিয়েট একাডেমির মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত প্রয়াত পাঁচজন দলীয় নেতার স্মরণ সভায় এ আহ্বান জানান তিনি।

শ ম রেজাউল করিম বলেন, দলের মধ্যে বেইমান খুনি মোস্তাকের মত লোকজনের আনাগোনা শুরু হয়েছে। এরা দলের মধ্যে বিভাজন সৃষ্টির পায়তারা চালাচ্ছে, এদের ব্যাপারে সতর্ক হয়ে সব নেতাকর্মীকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। ষড়যন্ত্রকারীরা যতই চেষ্টাই করুক তারা আওয়ামী লীগের ক্ষতি করতে পারবে না। যারা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ক্ষতি বা নির্যাতন করবে তাদের কঠোরভাবে দমন করা হবে।

স্বরূপকাঠিতে যুবলীগ নেতা ও ওষুধ ব্যবসায়ী মো. মামুন মিয়ার হত্যার বিষয়ে তিনি বলেন, মামুন মিয়ার হত্যাকারীদের দ্রুত শনাক্ত করে আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে। একইসঙ্গে স্বরূপকাঠিতে যেন আর কোনো হত্যাকাণ্ড ঘটতে না পারে সেদিকে কঠোর দৃষ্টি দেয়ার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি দলীয় নেতাকর্মীদেরও দৃষ্টি রাখার আহ্বান জানান।
 
সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সাবেক এমপি অধ্যক্ষ মো. শাহ আলম। উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মো. আব্দুল হামিদের সভাপতিত্বে আরো বক্তব্য রাখেন- উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি মো. মহিউদ্দিন, অধ্যক্ষ মো. বেলায়েত হোসেন, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম মুইদুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম সিকদার, শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক কাজী সাইফুদ্দিন তৈমুর, পৌর আওয়ামী লীগের সম্পাদক মো. ফারুক হোসেন, ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ, উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি শশাংক রঞ্জন সমদ্দার, প্রভাষক সাইফুল ইসলাম শাওন, যুবলীগ নেতা শাহ নাসির উদ্দিন, মো. শহিদুল ইসলাম রিপন ও উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি মো. শহিদুল ইসলাম মিন্টু প্রমুখ।

বক্তব্য শেষে সম্প্রতি মারা যাওয়া আওয়ামী লীগের নেতা সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মো. শহিদুল্লাহ মিয়া, সাবেক সুটিয়াকাঠি ইউনিয়ন চেয়ারম্যান গাউস মিয়া তালুকদার, দৈহারী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মো. বেলায়েত হোসেন, উপজেলা যুবলীগ নেতা মো. মামুন মিয়া ও ছাত্রলীগ নেতা জুয়েল হাসান নকিসহ নিহত আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের রুহের মাগফেরাত কামনায় বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপজেলা আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার হাজার মানুষ অংশ নেন।

পরে মন্ত্রী নিহত যুবলীগ নেতা মামুনের বাড়িতে গিয়ে তার কবর জিয়ারত ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন এবং তাদের সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস দেন। 

প্রসঙ্গত, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি সোমবার সকালে উপজেলার সোহাগদল গ্রামের বৌবাজার এলাকার একটি গাছ থেকে যুবলীগ নেতা মামুনের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশ সন্দিগ্ধ উপজেলার সোহাগদল গ্রামের মো. ফজলুল হকের ছেলে আহসানুল হক আশা ও একই গ্রামের মোশারফ হোসেনের ছেলে উপজেলা মো. মোস্তাফিজুর রহমার রিপন নামের দুইজনকে বুধবার রাতে গ্রেফতার করা হয়। পরদিন আসামিদের পিরোজপুর আদালতে পাঠিয়ে ৭ দিনের রিমান্ড চায় পুলিশ।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএইচ