দক্ষিণ কোরিয়ায় করোনায় আক্রান্ত প্রথম নাগরিকের মৃত্যু

ঢাকা, বুধবার   ০৩ জুন ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ২০ ১৪২৭,   ১০ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

দক্ষিণ কোরিয়ায় করোনায় আক্রান্ত প্রথম নাগরিকের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২০:১৩ ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

চীনে থেকে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রতিবেশি দেশ দক্ষিণ কোরিয়ায় এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এ খবর নিশ্চিত করেছে দেশটির বার্তাসংস্থা ইয়োনহাপ।

এক প্রতিবেদনে তারা জানিয়েছে, করোনায় আক্রান্ত এই ব্যক্তি দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় শহর চিওংডোর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

দেশটিতে করোনায় এখন পর্যন্ত ১০৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এরমধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২২ জন।

কোরিয়া সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, দেশটিতে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের বেশিরভাগই দায়েগু শহরের। এই শহরের করোনা আক্রান্ত এক নারী একটি গির্জায় সমাবেশে অংশ নিয়েছিলেন। তারপর থেকে সেখানে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমান্বয়ে বাড়ছে।

দেশটির উল্লেখযোগ্যসংখ্যক করোনা রোগীর সঙ্গে শিনচিওনজি চার্চের দায়েগু শাখায় প্রার্থনায় অংশ নেয়া করোনা সংক্রমিত ৬১ বছর বয়সী ওই নারীর সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা রয়েছে। এই নারীর সঙ্গে যারা ওই গির্জায় প্রার্থনায় অংশ নিয়েছিলেন তাদের অধিকাংশই এখন করোনা সংক্রমিত।

গত ১০ ফেব্রুয়ারি প্রথম ওই নারী জ্বরে আক্রান্ত হন। সম্প্রতি দক্ষিণ কোরিয়ার বাইরে না গেলেও শহর কর্তৃপক্ষ তাকে দুবার স্বাস্থ্য পরীক্ষার নির্দেশ দিলেও তাতে রাজি হননি। তবে করোনা সংক্রমণ নিশ্চিত হওয়ার আগে তিনি অন্তত চারটি গির্জার সমাবেশে অংশ নেন।

এই নারীর শরীর থেকে হাসপাতালে অপর এক ব্যক্তি করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। সম্ভাব্য সংক্রমণ ঠেকাতে দায়েগু কর্তৃপক্ষ শহরের বাসিন্দাদের বাড়ির বাইরে বের না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছে।

দায়েগু দক্ষিণ কোরিয়ার চতুর্থ বৃহত্তম শহর; যেখানে প্রায় ২৫ লাখ মানুষের বসবাস রয়েছে। শিনচিওনজি গির্জা কর্তৃপক্ষের দাবি, এই গির্জার প্রতিষ্ঠাতা লি ম্যান-হি যিশু খ্রিস্টের আশীর্বাদপুষ্ট। শেষ বিচারের দিনে তিনি এক লাখ ৪৪ হাজার মানুষকে সঙ্গে নিয়ে স্বর্গে যাবেন।

দায়েগু পৌর সরকার বলছে, ওই গির্জার সমাবেশে ১০০১ জন অংশ নিয়েছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। শহরের বাসিন্দাদের কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। শহরের সরকারি এক কর্মকর্তা বার্তাসংস্থা এএফপিকে বলেছেন, পূর্ব সতর্কতা হিসেবে শহরে চারটি জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে নতুন করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ এর উপস্থিতি নিশ্চিত হওয়ার পর এখন পর্যন্ত এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৭৫ হাজার ৭৫২ জন। শুধুমাত্র চীনেই করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৭৪ হাজার ৫৭৬।

এছাড়া এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বুধবার পর্যন্ত চীনে মারা গেছেন ২ হাজার ১১৮ জন। চীনের বাইরে মারা গেছেন মোট ৯ জন। এদের মধ্যে জাপানে ১, দক্ষিণ কোরিয়ায় ১, হংকংয়ে ২, তাইওয়ানে ১, ফিলিপাইনে ১, ফ্রান্সে ১, ইরানে ২ জন করে মারা গেছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী