থার্ড ডিভিশনে এরশাদের ছিল প্রচণ্ড জেদ, পরে ফাস্ট ডিভিশন
SELECT bn_content.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content.ContentID WHERE bn_content.Deletable=1 AND bn_content.ShowContent=1 AND bn_content.ContentID=119731 LIMIT 1

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৬ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ২২ ১৪২৭,   ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

থার্ড ডিভিশনে এরশাদের ছিল প্রচণ্ড জেদ, পরে ফাস্ট ডিভিশন

নিউজ ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২৩:৪৬ ১৫ জুলাই ২০১৯  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

প্রয়াত জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদকে নিয়ে কলেজ জীবনের স্মৃতিচারণ করছিলেন তার বন্ধু আজিজার রহমান খেরু মিয়া। তিনি বলেন, এরশাদ কলেজ জীবনে মাছ ধরতে ও ফুটবল খেলতে খুব পছন্দ করতেন। এরশাদসহ আমি প্রায়দিন রংপুরের দর্শনা বিলে মাছ ধরে কলেজ হোস্টেলে সবাই রান্না করে খেতাম।

রোববার বিকেলে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপের সময় তিনি এ কথা বলেন। সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আজিজার রহমান খেরু মিয়া লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার বড়খাতা ইউনিয়নের বাসিন্দা। তিনি ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ছিলেন।

বন্ধু হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে খেরু মিয়া বলেন, গত বছর আমি অসুস্থ হওয়ায় রংপুরে গিয়ে এরশাদের সঙ্গে দেখা করে শেষ বিদায় নিয়েছিলাম। কিন্তু আমার বিদায়ের আগে সে চলে যাবে এটা বিশ্বাস করতে পারছি না।

এরশাদ সর্ম্পকে তার বন্ধু আজিজার রহমান খেরু মিয়া বলেন, এরশাদ ১৯৪৬ সালে ভারতের দিনহাটা থেকে এসে রংপুর কারমাইকেল কলেজে ভর্তি হয়। ওই সময় এরশাদের সঙ্গে আমার বন্ধুত্ব গড়ে উঠে। এরশাদ মেট্রিক থার্ড ডিভিশনে (এসএসসি) পাস করার পর তার মাঝে জেদ প্রচণ্ড কাজ করত। সে ভালো করে লেখাপড়া শুরু করে এবং ইন্টারমেডিয়েট ফাস্ট ডিভিশনে (এইচএসসি) পাস করে। কলেজে পড়া অবস্থায় তার সেনাবাহিনীর প্রতি বিশেষ দুর্বলতা কাজ করত। ভালো ফুটবল খেলত সে কারণে তাকে অনেকেই রংপুর টাউন ক্লাবের হয়ে ফুটবল খেলার জন্য খেলোয়াড় হিসেবে ভাড়া করে নিয়ে যেত।

খেরু মিয়া বলেন, এরশাদের মাঝে প্রচণ্ড মানবতা কাজ করত। তার মাঝে কোনো লোভ-লালসা বা বাজে নেশা ছিল না। সিগারেট তো দূরের কথা পান পর্যন্ত খেতো না এরশাদ। সে মাছ ধরে নিজের হাতে রান্না করে কলেজ হোস্টেলে সবাইকে খাওয়াত। বাজার করতে প্রায় সময় নিজের পকেট থেকে টাকা খরচ করত এরশাদ। তবে দেখতে সুদর্শন হওয়ায় মেয়েরা তাকে খুব পছন্দ করত।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ