Alexa ‘থানা হবে জনগণের ভরসাস্থল-সেবা কেন্দ্র’

ঢাকা, শুক্রবার   ১৮ অক্টোবর ২০১৯,   কার্তিক ৩ ১৪২৬,   ১৯ সফর ১৪৪১

Akash

‘থানা হবে জনগণের ভরসাস্থল-সেবা কেন্দ্র’

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০০:২০ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

মৌলভীবাজারের এসপি ফারুক আহমেদ পিপিএম (বার) বলেছেন, পুলিশ দ্বারা কোনো মানুষকে অন্যায়ভাবে হেনস্থা করা হবে না। পুলিশ যদি অন্যায়ভাবে জনগণের ক্ষতি করে, তবে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। অনেক সময় জরুরি কাজে জনগণ কষ্ট করে আমার কাছে যেতে পারেন না। তাই থানা হবে জনগণের ভরসাস্থল ও সেবা কেন্দ্র। 

রোববার বিকেলে কমলগঞ্জ উপজেলা অডিটোরিয়ামে এক জনসচেতনতা ও সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, থানায় জিডি ও মামলা করতে একটি পয়সা যেন খরচ না হয়। খুব শিগগিরই প্রত্যেক থানায় অফিসারের রুমে সিসিটিভি লাগানো হবে। সরকারি বেতনের টাকায় আমরা চলি। সুতরাং আমার নাম ভাঙিয়ে কেউ জনগণের কাছ থেকে পয়সা নিতে পারবে না। এই খবর সবার কাছে পৌঁছাবেন।

এসপি মাদকসেবী ও মাদক ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে বলেন, হয় মাদক ছাড়ো, না হয় মৌলভীবাজার ছাড়ো। মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে। এ ব্যাপারে কোনো ছাড় দেয়া হবে না। গোপনে মাদক সংক্রান্ত সব তথ্য সংগ্রহ করেছি। কেউ যদি থানাতে তথ্য দিতে সমস্যা মনে করেন, তাহলে কষ্ট করে মৌলভীবাজারে আমার অফিসে এসে তথ্য দিয়ে যাবেন। নিজে ব্যবস্থা নেব।

কমলগঞ্জ থানার আয়োজনে সমাবেশে এসপি আরো বলেন, মৌলভীবাজারের একটি গ্রামকে যদি সম্পূর্ণভাবে মাদকমুক্ত করে যেতে পারি, তাহলে চাকরি জীবনে সেটা একটা বড় প্রাপ্তি হবে।

অপরাধীদের হুঁশিয়ারি দিয়ে এসপি বলেন, অপরাধীদের তালিকা করা হচ্ছে। অপরাধী যেই হোক, সে অপরাধী। সে কোন দলের সেটা দেখার বিষয় নয়। মাদকের তালিকা শেষের পথে। তালিকা অনুযায়ী জনগণের সহায়তায় দ্রুত সময়ে অপরাধীদের শনাক্ত করা হবে।

কমলগঞ্জ থানার ওসি মো. আরিফুর রহমানের সভাপতিত্বে ও ওসি (তদন্ত) সুধীন চন্দ্র দাশের সঞ্চালনায় সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক মো. রফিকুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম মোসাদ্দেক আহমেদ মানিক প্রমুখ। 

পরে সন্ধ্যার পর এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ