ত্বকের ফর্সাভাব ফিরিয়ে আনতে এসব খাবারই যথেষ্ট! 

ঢাকা, বুধবার   ০৩ জুন ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ২০ ১৪২৭,   ১০ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

ত্বকের ফর্সাভাব ফিরিয়ে আনতে এসব খাবারই যথেষ্ট! 

স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:৫৮ ২৩ মে ২০২০  

ছবি: প্রতীকী

ছবি: প্রতীকী

ত্বকের বিভিন্ন সমস্যায় প্রায় সব নারী পুরুষই ভুগে থাকেন। এর মধ্যে সবচেয়ে বড় সমস্যা হলো ত্বক কালচে হয়ে যাওয়া। অনেকেই ভেবে থাকেন বিভিন্ন ক্রিম মাখলে বোধ হয় ত্বক ফর্সা হবে, যা একদমই ভুল ধারণা। 

ত্বক ভালো রাখতে কৃত্রিম প্রসাধনীর চেয়ে স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাসই শ্রেয়। কারণ প্রসাধনীর চেয়েও ত্বকের জন্য বেশি জরুরী হলো পুষ্টি। ত্বক যদি ভেতর থেকে পুষ্টি না পায় তাহলে আপনি যাই ব্যবহার করুন না কেন ত্বককে সেই নির্জীব দেখাবে। তাই সঠিক খাদ্য গ্রহণ এই ধরনের সমস্যা থেকে বাঁচতে সাহায্য করে এবং ত্বক ভালো রাখে। তবে জেনে নিন ত্বক স্বাস্থ্যজ্জ্বল ও সুন্দর রাখতে কি কি খাবেন-  

বেরি 

বেরি জাতীয় ফল ত্বক ভালো রাখে। এতে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এবং ভিটামিন সি এবং ই রয়েছে। ভিটামিন সি যুক্ত ফল ত্বকের সজীবতার জন্য জরুরী। ত্বকের উজ্জ্বলতা বজায় রাখতে আপনার খাদ্যতালিকায় স্ট্রবেরি এবং ব্ল্যাকবেরি জাতীয় সব ধরনের বেরি অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন। নিয়মিত ফলমূল খেলে ত্বক ভালো থাকে। 

সবুজ শাকসবজি 

সবুজ শাকসবজিতে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, খনিজ এবং ভিটামিন থাকে। ত্বক ভালো রাখতে এগুলো অবশ্যই পাতে রাখুন। ব্রোকলি, পালং শাক, বাঁধাকপি ইত্যাদিতে ফোলেট, আয়রন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ফাইবার, ভিটামিন জাতীয় পুষ্টি রয়েছে। যা দেহে সামগ্রিক পুষ্টির ভারসাম্য বজায় রাখার জন্য প্রয়োজনীয়।  

মাছ 

মাছে ওমেগা-৩ ফ্যাট থাকে, যা ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। মাছ ত্বকের কোষ সজীব রাখে। চর্বিযুক্ত মাছ ত্বকের স্থিতিস্থাপকতা বজায় রাখতে সহায়তা করে।

রঙিন সবজি 

রঙিন সবজি ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াতে সহায়তা করে। এজন্য গাজর, টমেটো, মিষ্টি কুমড়া, বিটরুট খেতে পারেন। গাজর শরীরকে বিটা ক্যারোটিন সরবরাহ করে এবং শুষ্ক ত্বককে সুস্থ রাখতে সহায়তা করে। নিয়মিত গাজর খেলে ত্বক সজীব থাকবে ও উজ্জ্বল হয়ে উঠবে। গাজর ক্ষতিকর সূর্যরশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করতে সহায়তা করে। 

টমেটো ত্বক-বান্ধব খাবারগুলির মধ্যে টমেটো একটি। এটিতে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, ভিটামিন, খনিজ এবং ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের বৈশিষ্ট্যও রয়েছে। বিটরুট শরীর থেকে টক্সিন নির্মূল করে ত্বক পরিষ্কার রাখে। 

বীজ জাতীয় খাবার 

ত্বক ভালো রাখতে খাবারের তালিকায় বীজ জাতীয় খাবারগুলো রাখতে পারেন। এক্ষেত্রে আমন্ড, আখরোট, চিনাবাদাম, মিষ্টি কুমড়ার বীজ খুবই উপকারী। এগুলোতে রয়েছে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড, অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বৈশিষ্ট্য। যা ব্রণ নিরাময়ে সহায়তা করে। নিয়মিত খাবারের তালিকায় বাদাম রাখলে এর পুষ্টি উপাদান ত্বককে আরও সজীব করে তুলবে। 

অলিভ অয়েল 

ত্বক বিশেষজ্ঞরা খাদ্য তালিকায় অলিভ অয়েল ব্যবহারের পরামর্শ দেন। কারণ এটি ভিটামিন ই এবং বিভিন্ন ত্বক-বান্ধব পুষ্টিতে সমৃদ্ধ। অলিভ অয়েল অলিক অ্যাসিড সমৃদ্ধ। যা ত্বককে কোমল এবং উজ্জ্বল করতে সহায়তা করে। এটিতে কিছু ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে, যা প্রদাহের সঙ্গে লড়াই করতে সহায়তা করে। 

গ্রিন টি 

স্বাস্থ্যকর ত্বক পেতে এটি অবশ্যই পান করুন। এই পানীয়তে ত্বকের জন্য অনেক উপকারী বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এর প্রদাহবিরোধী বৈশিষ্ট্য ত্বকের ক্যান্সার প্রতিরোধে সহায়তা করে। এটি অতিবেগুনি রশ্মি থেকে ক্ষতির ঝুঁকি কমাতেও সহায়তা করে। গ্রিন টি-এর অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট শরীরের বিষাক্ত পদার্থ দূর করতে সাহায্য করে। 

সূত্র:বোল্ডস্কাই

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস