ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯,   ফাল্গুন ৮ ১৪২৫,   ১৫ জমাদিউস সানি ১৪৪০

তুলা চাষে অপার সম্ভাবনা

বাকৃবি প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ১৭:১০ ৫ ডিসেম্বর ২০১৮   আপডেট: ১৭:১০ ৫ ডিসেম্বর ২০১৮

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

অর্থকরী ফসল হওয়া সত্ত্বেও কৃষকদের তুলা চাষে আগ্রহ কম। তুলা চাষের সময়কাল বেশি হওয়ায় বাংলাদেশে খুব কম এলাকায় তুলা চাষ হয়। দেশের পোশাকশিল্পে মোট চাহিদার ৯৭ ভাগ তুলা আমদানি করতে হচ্ছে। যার ৪৬ শতাংশই আসে ভারত থেকে।

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বাকৃবি) কৃষি অনুষদের সম্মেলন কক্ষে ‘জলবায়ু পরিবর্তনে বাংলাদেশে তুলা চাষে টেকসই উন্নয়ন’ শীর্ষক সেমিনারে এসব তথ্য দেন তুলা উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী পরিচালক ড. মো. ফরিদ উদ্দিন। তুলা চাষের সময়কাল কমানো এবং নতুন জাত উন্নয়নে বোর্ড গবেষণা করছে বলে জানান তিনি।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন তুলা উন্নয়ন বোর্ডের জ্যেষ্ঠ বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. কামরুল ইসলাম। তিনি বলেন, লাভজনক ফসল হওয়ার পরেও তুলা কৃষকের কাছে গ্রহণযোগ্যতা পায়নি। তবে কোনোভাবে সময়কাল কমিয়ে আনতে পারলে দেশে তুলা চাষের অপার সম্ভাবনা রয়েছে।

ফরিদ উদ্দিনের সভাপতিত্বে সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আলী আকবর। বিশেষ অতিথি হিসেবে ময়মনসিংহের কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক মো. আসাদুল্লাহ, বিশ্ববিদ্যালয় রিসার্চ সিস্টেমের পরিচালক অধ্যাপক ড. এম এ এম ইয়াহিয়া খন্দকার এবং কৃষি অনুষদের ভারপ্রাপ্ত ডিন অধ্যাপক ড. মো. ফেরদৌস মন্ডল উপস্থিত ছিলেন।

সেমিনারের মুখ্য আলোচক ছিলেন মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. আবুল হাশেম।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমএইচ