তুরস্ককে সিরিয়ায় অভিযানের অনুমতি দেয়নি যুক্তরাষ্ট্র
SELECT bn_content.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content.ContentID WHERE bn_content.Deletable=1 AND bn_content.ShowContent=1 AND bn_content.ContentID=137442 LIMIT 1

ঢাকা, শুক্রবার   ১৪ আগস্ট ২০২০,   শ্রাবণ ৩০ ১৪২৭,   ২৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

Beximco LPG Gas

তুরস্ককে সিরিয়ায় অভিযানের অনুমতি দেয়নি যুক্তরাষ্ট্র

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:৪৪ ১০ অক্টোবর ২০১৯  

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

সিরিয়ার উত্তর-পূর্ব সীমান্তে কুর্দি গেরিলাদের বিরুদ্ধে তুরস্কের অভিযানে অনুমোদন দেয়নি যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও এমন দাবিই করেছেন।    

বুধবার সম্প্রচারমাধ্যম পিবিএসকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি সিরীয় সীমান্ত নিয়ে আঙ্কারার নিরাপত্তা উদ্বেগকে ‘ন্যায্য’ অ্যাখ্যা দিয়েছে বলেও জানিয়েছে রয়টার্স।

পম্পেও বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কুর্দি অধ্যুষিত এলাকার মার্কিন সেনাদের বিপদের বাইরে রাখতেই তাদের সেখান থেকে সরিয়ে নেয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

ওয়াশিংটনের এ সিদ্ধান্তের পর পরই তুরস্ক সিরিয়ার কুর্দি নিয়ন্ত্রিত এলাকায় সর্বাত্মক অভিযান চালানোর ঘোষণা দেয়।

বুধবার বিমান হামলা চালানোর পাশাপাশি তাদের সেনাবাহিনী ও তুর্কি সমর্থিত সিরীয় বিদ্রোহীরা তেল আবায়াদ ও রাস আল-আইনের চারটি পয়েন্ট দিয়ে সীমান্ত অতিক্রম করে।

মার্কিন সমর্থিত কুর্দিদের সিরিয়ার উত্তর-পূর্ব এলাকা থেকে হটিয়ে দিতে এ অভিযান শুরু করেছে তুর্কি সেনাবাহিনী। ‘অপারেশন পিস স্প্রিং’ অভিযানের প্রথম দিনে তুরস্কের বিমান ও কামান কুর্দিদের ১৮১টি স্থাপনায় আঘাত হেনেছে বলে জানিয়েছে আঙ্কারা। এ হামলায় অন্তত পাঁচজন বেসামরিকসহ আটজন নিহত ও অনেকেই আহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন সিরিয়ান ডেমোক্র্যাটিক ফোর্স (এসডিএফ)।

বুধবার সকালে তুর্কি সেনাবাহিনীর অগ্রবর্তী দলগুলো তেল আবায়াদ ও রাস আল-আইন শহরের দুটি পয়েন্ট দিয়ে সিরিয়ায় ঢোকে বলে তুরস্কের এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে জানিয়েছেন ব্লুমবার্গ।

রোববার এরদোগানের সঙ্গে ফোনালাপে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সিরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চল থেকে যুক্তরাষ্ট্রের কয়েক ডজন সৈন্যকে সরিয়ে নেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন।

এর পর পরই আঙ্কারা ওই এলাকায় অভিযানের কথা ঘোষণা করেন। সীমান্তে একটি ‘নিরাপদ অঞ্চল’ প্রতিষ্ঠা করে ৩৬ লাখ সিরীয় শরণার্থীদের দেশে ফেরার পথ করে দিতে এ অভিযান হবে বলেও জানিয়েছিল তারা।

বুধবার টুইটারে এরদোগান বলেন, সিরিয়ার উত্তরে তুরস্কের সেনাবাহিনী এবং সিরিয়ার সেনাবাহিনীর বিদ্রোহী গোষ্ঠী কুর্দি বাহিনী এবং ইসলামিক স্টেটের বিরুদ্ধে ‘অপারেশন পিস স্প্রিং’ শুরু করেছে।

পম্পেও অবশ্য পিবিএসকে দেয়া সাক্ষাৎকারে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএসের পুনরুত্থানের আশঙ্কা উড়িয়ে দিয়েছেন।
তুরস্কের এ অভিযানে পশ্চিমা দেশগুলো উদ্বেগ জানিয়েছে। পাঁচ ইউরোপীয় দেশ যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, জার্মানি, বেলজিয়াম ও পোল্যান্ডের অনুরোধে বৃহস্পতিবার এ অভিযান নিয়ে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে আলোচনাও হবে। শনিবার কায়রোতে জরুরি বৈঠক ডেকেছে আরব লীগও।

আইএসবিরোধী লড়াইয়ে সফলতার পর এসডিএফের নিয়ন্ত্রণেই সিরিয়ার বিশাল অংশ রয়েছে। বলা হচ্ছে, দেশটির প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের পর তাদের নিয়ন্ত্রণেই রয়েছে সিরিয়ার সবচেয়ে বড় অংশ।

বুধবার তুর্কি অভিযান শুরুর পর মস্কো কুর্দিদের দামেস্কের সঙ্গে বসার আহ্বান জানিয়েছে। এদিন ট্রাম্প সিরিয়ায় তুর্কি অভিযানকে ‘বাজে পরিকল্পনা’ অ্যাখ্যা দিলেও ওই এলাকা থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারে নিজের সিদ্ধান্তের পক্ষে সাফাই গেয়েছেন।

“তুর্কি ও কুর্দিরা শতকের পর শতক ধরে লড়াই করছে। কুর্দি যোদ্ধারা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে আমাদের সহায়তা করেনি, ডি-ডের দিনে নরম্যান্ডিতেও করেনি। এতকিছু বলার পরও আমরা কুর্দিদের পছন্দ করি”, বলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

রিপাবলিকান সিনেটররা কংগ্রেসে তুরস্কের বিরুদ্ধে বড় ধরনের নিষেধাজ্ঞার একটি বিল পাসের পরিকল্পনা করেছেন বলেও জানিয়েছে মার্কিন গণমাধ্যম। ডেমোক্রেট সিনেটর ক্রিস ভ্যান হোলেন ওই বিলটি উত্থাপন করতে যাচ্ছেন।

সিনেটর হোলেন বলেন, ট্রাম্প প্রশাসন তুরস্কের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে অস্বীকৃতি জানালেও আমি এ বিলের পক্ষে রিপাবলিকান-ডেমোক্র্যাট উভয় দলের দৃঢ় সমর্থন প্রত্যাশা করছি।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআরকে