তিন ব্যাটসম্যানের দিকেই তাকিয়ে বাংলাদেশ

ঢাকা, রোববার   ২৬ মে ২০১৯,   জ্যৈষ্ঠ ১২ ১৪২৬,   ২০ রমজান ১৪৪০

Best Electronics

তিন ব্যাটসম্যানের দিকেই তাকিয়ে বাংলাদেশ

 প্রকাশিত: ১০:৩০ ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭   আপডেট: ১০:৫১ ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

শুরু থেকেই জুটি গড়ার আগেই যেন পড়ে যাচ্ছিল উইকেট। ১১৭ রান তুলতেই টাইগারদের হারাতে হয়েছে ৫ জন ব্যাটসম্যানকে। ১১৭ রানের মাথায় সাকিব আল হাসান আউট হওয়ার পর মুশফিকের সাথে জুটি গড়তে মাঠে নামেন সাব্বির রহমান। মাঠে নেমেই যেন তার সেই পুরোনো ভঙ্গিমায় খেলতে থাকেন। তার এবং মুশির স্বাচ্ছন্দ্যপূর্ণ ব্যাটিংয়ের সুবাদে ২০০ রান পেরোয় বাংলাদেশ।

তারপর সাব্বির রহমানের ৬৬ রানে বিতর্কিত আউটে প্যাভিলিয়নে তিনি ফিরে গেলে বাংলার আকাশে নেমে আসে অন্ধকারের কালো মেঘ। কিন্তু পরে নাসির মাঠে নেমে বাংলাদেশকে ভালো অবস্থানে নিতে শক্ত হাতে ব্যাট করে যান। মুশফিক এবং নাসিরের সাবলীল ব্যাটিংয়ের ওপর ভর করে ৬ উইকেট হারিয়ে দিনশেষে ২৫৩ রান তুলতে সমর্থ হয় টাইগাররা।

এখন বাংলাদেশ সমর্থকরা মুশফিক, নাসির ও মিরাজ এই ৩ ব্যাটসম্যানের দিকেই তাকিয়ে আছে। দেখা যাক কতদূর এগিয়ে নিতে পারেন বাংলাদেশকে।

মুশফিক একদিক আগলে রাখার পাশাপাশি বড় ইনিংস খেলতে পারলে আর অপরাজিত থাকা নাসির ও মিরাজ তাকে সাপোর্ট দিতে পারলে রান সাড়ে তিনশো ছাড়িয়ে ৪০০ এর আশপাশে যেতে পারে।

কারণ উইকেট খারাপ না। শেরেবাংলার মত প্রথম ঘণ্টা থেকেই বল লাটিমের মত ঘোরেনি। ধৈর্য, সংযম আর বলের মেধা ও গুণ বিচার করে খেললে স্বচ্ছন্দ ও সাবলীল ব্যাট করা যায়। লম্বা ইনিংসও সাজানো যায়। সাব্বির রহমানের ৬৬ আর মুশফিকের ৬২ রানের ইনিংস দুটিই তার প্রমাণ।

এর আগে সোমবার সকালে টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকে বাধার মুখেছিল তামিম-সৌম্য-ইমরুলরা। জমাট হওয়ার আগেই ভাঙছিল পাটনারশিপগুলো। দিনের শুরুতে সৌমের সঙ্গে মুমিনুলের ৪৯ রানের পার্টনারশিপ, এর পর কিছুটা সময় মুমিনুল আর সাকিব, সব শেষ তো সাকিব-মুশফিকের জুটিটাও জমে উঠছিল। কিন্তু না, টিকলো না। এক নাথান লায়ানেই যেখানে টাইগাররা কুপোকাপ প্রায় সেখানে আগার এসে তুলে নিলেন সাকিবকে। এ যেন ‘বোঝার উপর শাকের আঁটি’র মতোই।

তারপর দিনশেষে ৬ উইকেট হারিয়ে ২৫৩ রান করতে সমর্থ হয় টাইগাররা। মুশফিকুর রহিম ৬২ ও নাসির হোসেন ১৯ রানে অপরাজিত আছেন।

উল্লেখ্য, দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্টে মিরপুরে সফরকারী অজিদের ২০ রানে পরাজিত করে টাইগাররা। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে এটিই ছিল বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট ম্যাচ জয়। তাই দ্বিতীয় টেস্টেও জয় দিয়ে সিরিজটা ঐতিহাসিকভাবেই শেষ করতে চায় মুশফিক বাহিনী।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ

Best Electronics