Alexa ঢাবিতে সোমবার চালু হচ্ছে ‘চক্কর’

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৭ অক্টোবর ২০১৯,   কার্তিক ২ ১৪২৬,   ১৭ সফর ১৪৪১

Akash

ঢাবিতে সোমবার চালু হচ্ছে ‘চক্কর’

ঢাবি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:১৫ ৬ অক্টোবর ২০১৯   আপডেট: ১৩:২৬ ৬ অক্টোবর ২০১৯

ডেইলি বাংলাদেশ

ডেইলি বাংলাদেশ

‘কার্বন ফ্রি’ ক্যাম্পাস বিনির্মাণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আগামীকাল সোমবার থেকে পরীক্ষামূলকভাবে চালু হচ্ছে অ্যাপভিত্তিক বাইসাইকেল সেবা ‘চক্কর’।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) এর ছাত্র পরিবহন সম্পাদক শামস-ই নোমান।

এ ব্যাপারে তিনি ‘ডেইলি বাংলাদেশ’কে বলেন, কাল সোমবার থেকে পরীক্ষামূলক ও ১৬ অক্টোবর থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে অ্যাপভিত্তিক বাইসাইকেল সেবা ‘চক্কর’ চালু হচ্ছে। শুরুর দিকে ১০০টি সাইকেল নিয়ে এ সেবা চালু হবে। এরইমধ্যে ৩০টি সাইকেল নিয়ে এসেছি। বাকি সাইকেলগুলোও এসে পড়বে। কিছুদিনের মধ্যে সম্পূর্ণভাবে জোবাইক সেবা শিক্ষার্থীদের মাঝে পৌঁছে দেবো।

তিনি বলেন, স্বল্প দূরত্বের যাতায়াতের জন্য বাই-সাইকেল খুব ভালো একটি যানবাহন। ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরে শিক্ষার্থীদের রিকশা ভাড়া বাবদ যে টাকা খরচ হয় তার ৬০-৭০% খরচ কমিয়ে আনবে এই ‘চক্কর’ সেবা।

তিনি আরো জানান, এটি একটি পরিবেশবান্ধব যানবাহন। ‘কার্বন ফ্রি’ ক্যাম্পাস বিনির্মাণে অ্যাপভিত্তিক বাইসাইকেল সেবা ‘চক্কর’ একটি খুব ভালো পদক্ষেপ হিসেবে গণ্য হতে পারে৷ তাছাড়া, ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরে যাতায়াতের জন্য রিকশা পেতে শিক্ষার্থীদের মাঝে মাঝে যে দুর্ভোগের শিকার হতে হয়। সেই দুর্ভোগ অনেকাংশে লাঘব হবে এই সেবাটির মাধ্যমে। তাছাড়া শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের পাশাপাশি শারীরিক ব্যায়ামেরও একটি মাধ্যম হতে পারে এই সেবা৷

আগের তুলনায় জোবাইকের ভাড়া আরো কমছে বলে জানান ডাকসু ছাত্র পরিবহন সম্পাদক।

তিনি বলেন, আমি ভাড়ার বিষয়ে জোবাইক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সমঝোতা করেছি। সাধারণত ঢাকায় জোবাইক সেবা প্রতি মিনিটে ১ টাকা করে নিলেও ঢাবি ছাত্রদের জন্য প্রথমে বলা হয়েছিল ৫ মিনিটে ৩ টাকা রাখা হবে। কিন্তু, এখন প্রতি ৫ মিনিটে রাখা হবে ২ টাকা ৫০ পয়সা এবং ৫ মিনিটের পর থেকে প্রতি মিনিটের জন্য ৪০ পয়সা করে ধরা হবে।

যেভাবে চলবে জোবাইক

জোবাইকের স্মার্ট সাইকেলের সঙ্গে থাকবে অত্যাধুনিক লক, সোলার প্যানেল, জিপিএস ইত্যাদি। এই সাইকেলের লক খোলার জন্য দরকার হবে একটি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ। অ্যাপের মাধ্যমে সাইকেলের সঙ্গে থাকা কিউআর কোড স্ক্যান করে সাইকেলটি ব্যবহার করা যাবে। আর চক্কর সেবা শুধু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের জন্য।

অ্যাপের মাধ্যমে স্ক্যান করে সাইকেলের লক খোলার সঙ্গে শুরু হবে সময় গণনা। গন্তব্যে পৌঁছে ব্যবহারকারী যখন সাইকেলটি স্ট্যান্ড করে পুনরায় লক করবেন তখন শেষ হবে তার রাইড।

সাইকেলটি ব্যবহারের জন্য ঢাকায় প্রতি মিনিটে এক টাকা করে গুনতে হলেও ঢাবি শিক্ষার্থীদের গুনতে হবে প্রতি পাঁচ মিনিটে মাত্র দুই টাকা পঞ্চাশ পয়সা।রাইডের মূল্য পরিশোধ করতে সাইকেল স্ট্যান্ডের কাছে একটি রিচার্জ সেন্টার থাকবে। সেখান থেকে ব্যবহারকারীরা জোবাইকের অ্যাপে রিচার্জ করতে পারবেন। আর সেই অ্যাকাউন্ট থেকেই রাইডের ভাড়া পরিশোধ করতে পারবেন।

বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের প্রতিটি আবাসিক হল, কার্জন হল, কলাভবন, ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদ, সামাজিক বিজ্ঞান ভবন, টিএসসি, কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারসহ প্রয়োজনীয় স্থানগুলোতে বাইসাইকেলের স্ট্যান্ড থাকবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এবং শিক্ষকগণ এ সেবা নিতে পারবেন। ডাকসু এর সার্বিক তত্ত্বাবধানের দায়িত্ব পালন করবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম