Exim Bank
ঢাকা, শনিবার ২৩ জুন, ২০১৮
Advertisement

ঢাকা শহরের চতুর্দিকে বৃত্তাকার রেলপথ নির্মাণ প্রকল্প গ্রহণ

 নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২০:৩৫, ১১ অক্টোবর ২০১৭

আপডেট: ১০:৩৫, ১২ অক্টোবর ২০১৭

৩১৬ বার পঠিত

ঢাকা শহরের চতুর্দিকে বৃত্তাকার রেলপথ নির্মাণ প্রকল্প গ্রহণ

ঢাকা শহরের চতুর্দিকে বৃত্তাকার রেলপথ নির্মাণ প্রকল্প গ্রহণ

রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভায় ঢাকা শহরের চতুর্দিকে বৃত্তাকার রেলপথ নির্মাণের জন্য সম্ভাব্যতা সমীক্ষা প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।

আজ কমিটির সভাপতি এ. বি. এম ফজলে করিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সভায় আরো জানানো হয় এ সমীক্ষা প্রকল্পে ২৯ কোটি ৩২ লাখ ৯৬ হাজার টাকা প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে।

কমিটির সদস্য রেলপথ মন্ত্রী মোঃ মুজিবুল হক, মোঃ মোসলেম উদ্দীন, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, মুহাম্মদ মিজানুর রহমান, মোঃ সিরাজুল ইসলাম মোল্লা, মোহাম্মদ নোমান, ইয়াসিন আলী এবং ফাতেমা জোহরা রানী সভায় অংশগ্রহণ করেন।

সভায় রেলপথ মন্ত্রণালয়ে এডিপি বাস্তবায়ন অগ্রগতি, গত ৩ বছরে রেল ব্রীজ সমূহের অনূকুলে বরাদ্দকৃত অর্থ বা মেরামত ব্যবস্থা নিয়ে আলোচনা করা হয়।

এছাড়া বর্তমান অবস্থা বিশেষ করে চট্টগ্রাম-দোহাজারী, চট্টগ্রাম-নাজিরহাট এবং চট্টগ্রাম-সিলেট সেকশনের বর্ণিত সময়ে ব্রিজের কারণে সংঘটিত দুর্ঘটনার বিবরণ, গৃহিত পদক্ষেপ, ব্রিজের ক্রটি বিচ্যুতি এবং উক্ত সময়ে ট্রেন চলাচলে বিঘ্নতা, ২০১৪-২০১৭ অর্থ বছরে বিভিন্ন স্টেশনে টিকিট বিক্রি ও অন্যান্য খাতে রাজস্ব আদায় এবং জমার পরিমাণ, জমাদান পদ্ধতি ও হালনাগাদ তথ্যাদি সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

সভায় জানানো হয়, ২০১৪ থেকে ২০১৭ অর্থ বছর পর্যন্ত বিভিন্ন স্টেশনে টিকিট বিক্রি ও অন্যান্য খাতে মোট আয় ৯৮১ কোটি ৮৭ লাখ টাকা।
কমিটি রেল স্টেশনগুলোতে নিরাপত্তার স্বার্থে স্ক্যানিং মেশিন স্থাপনের সুপারিশ করে।

কমিটি টিকিট বিহীন কোন যাত্রী যাতে ট্রেনে যাতায়াত করতে না পারে সেজন্য বর্তমান টিকিট সিষ্টেমকে আরো যুগোপযোগী করতে সুপারিশ করে।

এছাড়া কমিটির নিকট ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে পদ্মা সেতু রেল সংযোগ প্রকল্প, দোহাজারী হতে রামু হয়ে কক্সবাজার এবং রামু হতে মায়ানমারের নিকটে গুনদুম পর্যন্ত সিঙ্গেল লাইন ডুয়েলগেজ ট্র্যাক নির্মাণ প্রকল্প, আখাউড়া থেকে লাকসাম পর্যন্ত ডুয়েলগেজ ডাবল রেললাইন নির্মাণ প্রকল্প সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরা হয়।

এছাড়া বিদ্যমান রেল লাইনকে ডুয়েলগেজে রূপান্তর প্রকল্প, খুলনা হতে মংলা পোর্ট পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণ প্রকল্প, বাংলাদেশ রেলওয়ের ঢাকা-টঙ্গী সেকশনের ৩য় ও ৪র্থ ডুয়েল গেজ লাইন এবং টঙ্গী জয়দেবপুর সেকশনে ডুয়েল গেজ ডাবল নির্মাণ প্রকল্প, বাংলাদেশ রেলওয়ের কুলাউড়া-শাহবাজপুর সেকশনের পুনর্বাসন প্রকল্প, বঙ্গবন্ধু রেলওয়ে সেতু নির্মাণ প্রকল্প সম্পর্কে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য তুলে ধরা হয়।

সভায় রেলপথ মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব, বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালসহ মন্ত্রণালয় এবং সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআই

সর্বাধিক পঠিত