ডেইলি বাংলাদেশের মুখোমুখি জান্নাতুল মাওয়া রুমা

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২০ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ৮ ১৪২৬,   ১৫ শাওয়াল ১৪৪০

হেঁটে আন্তর্জাতিক সীমান্ত অতিক্রমকারী প্রথম এশিয়ান নারী

ডেইলি বাংলাদেশের মুখোমুখি জান্নাতুল মাওয়া রুমা

আহমেদ জামিল, সিলেট ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০১:৫৫ ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

জান্নাতুল মাওয়া রুমা। ২০১৪ সালে ৯ দিনে কলকাতা থেকে ঢাকা প্রেস ক্লাব পর্যন্ত ৪৫০ কিলোমিটার পথ হেঁটে রেকর্ড গড়েছেন। স্বীকৃতি পেয়েছেন হেঁটে আন্তর্জাতিক সীমান্ত প্রথম এশিয়ান নারী হিসেবে।

সেই থেকে ১৯ ফেব্রুয়ারিকে বিশ্ব হাঁটা দিবসের আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্য আন্দোলন শুরু করেন তিনি। ‘হেল্প ফর ইউ’ সামাজিক সংগঠনের মাধ্যমে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন সংগঠনটির সভানেত্রী রুমা। দিবসটির আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্য পাঁচ বছর ধরে নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন তিনি।

সোমবার ডেইলি বাংলাদেশকে দেয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে এসব বিষয় তুলে তুলে ধরেন হেঁটে আন্তর্জাতিক সীমান্ত অতিক্রমকারী প্রথম এশিয়ান নারী জান্নাতুল মাওয়া রুমা।

ডেইলি বাংলাদেশ: বিশ্ব হাঁটা দিবসের স্বীকৃতি চাইছেন। চলার পথটি কেমন ছিল?

জান্নাতুল মাওয়া রুমা: অনেক প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হয়েছি। মানুষকে বোঝানো কঠিন হয়েছে। তা সত্ত্বেও দিবসটিকে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্য কাজ করে যাচ্ছি। বাংলাদেশে বিভিন্ন সংগঠন ১৯ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব হাঁটা দিবস পালন করছে। কিন্তু সরকারিভাবে দিবসটি উদযাপন করা হয়নি।

ডেইলি বাংলাদেশ: কেমন সাড়া পেয়েছেন?

জান্নাতুল মাওয়া রুমা: শুরু থেকেই কলকাতায় বেশি সাড়া পেয়েছি। বাংলাদেশ ও কলকাতার বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ দিবসটির আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির দাবি জানিয়েছেন। গেল বছর পশ্চিমবঙ্গের নদীয়ায় দিবসটি রাষ্ট্রীয়ভাবে পালন করা হয়েছে। বিশ্ব স্বীকৃতির জন্য বাংলাদেশের সঙ্গে তারাও সুর মিলিয়েছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ: অনেকদিন ধরেই কাজ করছেন। ইতিবাচক দিকগুলো সম্পর্কে বলুন।

জান্নাতুল মাওয়া রুমা: ইউনেস্কোর স্বীকৃতির জন্য প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ে আমরা ফাইল পাঠিয়েছি। সরকারিভাবে উদ্যোগ নিলে এটা খুব দ্রুত বাস্তবায়ন সম্ভব।

ডেইলি বাংলাদেশ: হেঁটে আন্তর্জাতিক সীমানা অতিক্রমকারী প্রথম এশিয়ান নারীর স্বীকৃতি পেয়েছেন। আপনার অনুভূতি?

জান্নাতুল মাওয়া রুমা: হেঁটে আন্তর্জাতিক সীমান্ত অতিক্রমকারী প্রথম এশিয়ান নারী হিসেবে ২০১৪ সালে পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষামন্ত্রী উজ্জল বিশ্বাস এবং। ২০১৫ সালে বাংলাদেশের সমাজকল্যাণমন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলীর স্বীকৃতি পেয়ে আরো অনুপ্রাণিত হই। সেই থেকে দিবসটিকে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতির জন্য কাজ করছি।

ডেইলি বাংলাদেশ: ‘হেল্প ফর ইউ’ সংগঠন সম্পর্কে বলুন।

জান্নাতুল মাওয়া রুমা: ২০০৭ সাল থেকে আমরা সমাজের অসহায় মানুষের জন্য কাজ করছি। শুরুর দিকে বস্তিবাসীদের নিয়ে কাজ করেছি। ধীরে ধীরে এই কার্যক্রম বাড়তে থাকে। বর্তমানে ‘হেল্প ফর ইউ’র উদ্যোগে ঢাকা, চাদপুর, নড়াইল, যশোর, বগুড়াসহ বিভিন্ন জেলায় শতাধিক শিক্ষার্থীকে আর্থিক সহায়তা দেয়া হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে সব জেলা কার্যক্রম চলবে।

ডেইলি বাংলাদেশ: আগামীর পরিকল্পনা কি?

জান্নাতুল মাওয়া রুমা: আমি এমন একটা জায়গায় যেতে চাই। যেখানে গেলে আমার দেশের মুখ উজ্জ্বল হবে। আমরা বাঙালিরা অলস বলে একটা প্রবাদ আছে। আমি সেই ধারণাকে ভাঙতে চাই। বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল করতে চাই।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর