.ঢাকা, শনিবার   ২৩ মার্চ ২০১৯,   চৈত্র ৮ ১৪২৫,   ১৬ রজব ১৪৪০

ডায়াবেটিস বাসা বেঁধেছে এই তারকাদের শরীরে

সৈয়েদা সাদিয়া

 প্রকাশিত: ১৭:৫৩ ১৩ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১৭:৫৩ ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি- সংগৃহীত

ছবি- সংগৃহীত

ডায়াবেটিস। নিরব ঘাতক একটি ব্যাধি। ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা’র এক তথ্য অনুযায়ী, ২০১৬ সালে সারাবিশ্বে ১৬ লাখ মানুষের মৃত্যুর কারণ ছিল ডায়াবেটিস। এটা মানুষের শরীরের ভেতর লুকায়িত একটি ব্যাধি। এই ব্যাধিতে আক্রান্ত অনেকেই, বাদ যাননি হলিউড ও বলিউডের অনেক তারকাও। 

আজ ডেইলি বাংলাদেশের পাঠকদের জন্য থাকছে পুরোপুরি ভিন্ন একটি লেখা, যাতে উল্লেখ করা হবে সাধারণ মানুষ নন বরং তারকাদের মধ্যে কারা আছেন ডায়াবেটিসে আক্রান্ত। পড়লে অবাকই হবেন বলিউড-হলিউডে এমন তারকারা আছেন যারা এই রোগে আক্রান্ত। 

তাদের দেখে বুঝার কোন উপায় নেই যে, তারা ডায়াবেটিসে আক্রান্ত, কারণ সঠিক জীবনযাপন ও খাদ্যাভ্যাসের কারণে তারা তাদের গ্ল্যামার ধরে রেখে বেশ সাবলীলভাবে কাজ করে চলেছেন।

কারা এরা? নিচে আলোকপাত করা হল তাদের সম্পর্কে। 

হ্যালি বেরি
হলিউড তারকা হ্যালি বেরি। ১৯৮৯ সালে মাত্র ২৩ বছর বয়সে তিনি ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হন। ২০০৫ সালে ‘ডেইলি মেইল’-কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি নিজেই এই রোগের কথা জানান। বলেন, একসময় ডায়াবেটিসের ভয়াবহতা বেড়ে গেলে তাকে হাসপাতালের কোমাতেও যেতে হয়। প্রায় এক সপ্তাহ তার জ্ঞান ফেরেনি। পরবর্তীতে সুস্থ হলে তাকে নিয়মিত ইনসুলিন গ্রহণ করতে হয়। 

তবে বর্তমানে ডায়াবেটিস (রোগ) অনেকটাই কাবু করে ফেলেছে এই অভিনেত্রীকে। তাই এখন অনেকটাই পর্দার আড়ালে চলে গেছেন ‘ক্যাটওমেন’ খ্যাত এই অভিনেত্রী।

সালমা হায়েক
হলিউডের আরেক অভিনেত্রী অভিনেত্রী সালমা হায়েক। গর্ভাবস্থায় ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হয়েছিলেন তিনি। এক সাক্ষাৎকারে তিনি রোগের কথা জানান। বলেন, ডায়াবেটিস তাদের বংশগত। আর সে কারনেই তারও হয়েছে এটি। কারণ তিনি যথেষ্ট নিয়মতান্ত্রিক জীবনযাপন করতেন। তাছাড়া উচ্চ রক্তচাপ সম্পন্ন নারীদের গর্ভাবস্থায় ডায়াবেটিসের ঝুঁকি থাকে বলেই তাকে এই মরনব্যাধি আক্রমন করেছে। 
তবে নিয়মতান্ত্রিক জীবনযাপনের কারণে ডায়াবেটিস নাকি তার কাছে মোটেও পাত্তা পায় না, এমনটাও জানিয়েছেন আলোচিত এই অভিনেত্রী।

কমল হাসান
দক্ষিণ ভারতের জনপ্রিয় অভিনেতা কমল হাসান। তিনিও টাইপ-১ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত। বর্তমানে ভারতে ডায়াবেটিস সচেতনতামূলক বিভিন্ন সংগঠনের সঙ্গেও যুক্ত তিনি। আক্রান্ত হওয়ার পর অ্যালকোহল এবং বিভিন্ন ধরনের দুগ্ধজাতীয় খাবার বর্জন করেছেন বলে এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন কমল হাসান।

সোনম কাপুর
ভারতীয় আরেক জনপ্রিয় নায়িকা সোনম কাপুর। তিনিও ডায়াবেটিস আক্রান্তদের মধ্যে অন্যতম একজন। ফ্যাশনদুরস্ত চিপচিপে গড়নের সোনমকে দেখে বোঝার উপায় নেই যে, তিনি এমন একটি নীরব ঘাতক রোগে (ডায়াবেটিস) আক্রান্ত। মাত্র ১৭ বছর বয়সে টাইপ-১ ডায়াবেটিস ধরা পড়ে সোনমের। কিন্তু সঠিক খাদ্যাভ্যাস, ইয়োগা এবং নিয়মিত শারীরিক ব্যায়ামের মাধ্যমে ডায়াবেটিস সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে রেখেছেন এই অভিনেত্রী।

ফাওয়াদ খান
পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত বলিউড তারকা ফাওয়াদ খান। সোনম কাপুরের মতো তিনিও মাত্র ১৭ বছর বয়সে টাইপ-১ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হন। সংবাদমাধ্যমে এর কারণও ব্যাখ্যা করেছিলেন নায়ক ফাওয়াদ খান। বললেন, খুব ছোটবেলায় ধুমপান ও অ্যালকোহলে আসক্ত হয়ে পড়াই নাকি তার অন্যতম কারণ। তবে সঠিক নিয়ম-কানুনই তার ভরসা। ‘খুবসুরাত’ খ্যাত এই তারকা এখন নিরামিষাশী। তার দিন শুরু হয় লেবুযুক্ত এক গ্লাস হালকা গরম পানি, ডিম এবং শস্যদানা জাতীয় প্রাতরাশ দিয়ে।

নিক জোনাস
বলিউডের জামাই অর্থাৎ প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার বর মার্কিন সংগীতশিল্পী নিক জোনাসও ডায়াবেটিসে আক্রান্ত। ২০০৭ সালে মাত্র ১৫ বছর বয়সে টাইপ ওয়ান ডায়াবেটিসে আক্রান্ত হন এই স্বামী। সে সময় নাকি নিকের রক্তে সুগার লেভেল ৭০০-তে উঠে গিয়েছিল। যেখানে একজন সুস্থ মানুষের সুগার লেভেল ৭০ থেকে ১২০ এর মধ্যে থাকে। যার ফলে ওই সময় তাকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছিল। 

নিক জানিয়েছেন, একমাত্র নিয়মতান্ত্রিক জীবনযাপনই তাকে ভালোভাবে বাঁচিয়ে রেখেছে। তবে প্রিয়াঙ্কাকে বিয়ের পর ডায়াবেটিসের প্রতি অনেক সতর্ক হয়েছেন নিক। বরাবরই এই রোগ প্রতিরোধের খাবার সেবন করছেন তিনি। 

সূত্র: ফ্রীপ্রেস জার্নাল 

ডেইলি বাংলাদেশ/এসআই