ডাক্তার-নার্স-অনুমোদন ছাড়াই চলছে হাসপাতাল

ঢাকা, সোমবার   ২৫ মে ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ১২ ১৪২৭,   ০২ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

ডাক্তার-নার্স-অনুমোদন ছাড়াই চলছে হাসপাতাল

পঞ্চগড় প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:৩৩ ১৮ এপ্রিল ২০২০  

সুরমা মেডিকেল সেন্টারের সাইনবোর্ড

সুরমা মেডিকেল সেন্টারের সাইনবোর্ড

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে বিশাল সাইনবোর্ড। নাম সুরমা মেডিকেল সেন্টার। অনুমোদন-ডাক্তার-নার্স ছাড়াই কার্যক্রম পরিচালনার অভিযোগ উঠেছে বেসরকারি ক্লিনিকটির বিরুদ্ধে।

জানা গেছে, বিফোর ডায়াগনস্টিক সেন্টার ও হাসপাতাল নামে ক্লিনিকটি কিনে নাম পরিবর্তন করে সুরমা হাসপাতালের মালিকপক্ষ। এরপর থেকে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অনুমোদন ছাড়াই কার্যক্রম চালানো হচ্ছে এ ক্লিনিকে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, অনভিজ্ঞ কর্মকর্তা ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে ডায়াগনস্টিক সেন্টার পরিচালনা, অন্তঃসত্ত্বা ও শিশুর মৃত্যুসহ অসংখ্য অভিযোগ রয়েছে সুরমা মেডিকেল সেন্টারের বিরুদ্ধে।

ওই উপজেলার বেংহারী বনগ্রাম ইউপির মিজানুর রহমান জানান, বুধবার কোনো ধরনের পরীক্ষা ছাড়াই তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীর অস্ত্রোপচার করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এতে জন্মের কয়েক ঘণ্টা পরই নবজাতকের মৃত্যু হয়।

আরো জানা গেছে, মেডিকেল টেকনোলজিস্ট ছাড়া অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে প্যাথলজি ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার চালানোর কারণে প্রতিনিয়ত ভুল রিপোর্ট পাচ্ছে সেবা নিতে আসা মানুষ।

এছাড়া ক্লিনিকের নাম নিয়েও রয়েছে ধোঁয়াশা। সুরমা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানায়- তারা বিফোর জেনারেল হাসপাতাল নামে ক্লিনিক পরিচালনা করছে। বিফোর জেনারেল হাসপাতালের পরিচালক সৈয়দ মাসুম কবির জানান, সুরমা হাসপাতালের মালিকের কাছে শুধু মালামাল বিক্রি করেছি। নাম ব্যবহারের কোনো অনুমতি দেয়া হয়নি।

সুরমা মেডিকেল সেন্টারের পরিচালক সুমন ইসলাম বলেন, ক্লিনিকের অনুমোদনের জন্য আবেদন করেছি। কতজন ডাক্তার ও নার্স থাকতে হয় তা জানি না।

বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা রাজিউর রহমান রাজু জানান, সুরমা মেডিকেল সেন্টার নামে ক্লিনিক রয়েছে তা জানা নেই। সিজারে শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ পেলে খতিয়ে দেখা হবে। অনুমোদন ছাড়া ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার পরিচালনার বিষয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর