ঠাণ্ডা-কাশি সারিয়ে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াবে পাঁচ জুস

ঢাকা, বুধবার   ২৭ মে ২০২০,   জ্যৈষ্ঠ ১৪ ১৪২৭,   ০৪ শাওয়াল ১৪৪১

Beximco LPG Gas

ঠাণ্ডা-কাশি সারিয়ে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াবে পাঁচ জুস

স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:১৬ ১০ এপ্রিল ২০২০   আপডেট: ১২:৩০ ১০ এপ্রিল ২০২০

ছবি: রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় জুস

ছবি: রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় জুস

আবহাওয়া পরিবর্তনের এই সময় অনেকেই ঠাণ্ডা-কাশির সমস্যায় ভুগছেন! আবার চারিদিকে মহামারি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব। এসময় শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে প্রয়োজন পুষ্টিকর আহার। 

অনেকেই হয়ত ভেবে পাচ্ছেন না, কীভাবে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়বে? তবে কেমন হয় যদি এক ঢিলে দুই পাখি মারা যায়! অর্থাৎ আপনি যেই পানীয়ের মাধ্যমে ঠাণ্ডা-কাশি সারাতে পারবেন আবার তা দিয়েই বাড়বে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা। 

আসলে আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা যদি বাড়ন্ত থাকে তবে ফ্লু বা ঠাণ্ডা-কাশির সমস্যা আটকানো সহজ হয়। কারণ আমাদের ইমিউন সিস্টেম বিভিন্ন রোগের জীবাণু, ভাইরাস বা ব্যাকটেরিয়ার সঙ্গে লড়াই করে। এবার তবে জেনে নিন এমনই পাঁচটি জাদুকরী জুস সম্পর্কে-

আপেল, গাজর ও কমলার জুস১. আপেল, গাজর ও কমলার জুস

আপেল, গাজর ও কমলায় রয়েছে নানা পুষ্টিগুণ। যেগুলো শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এবং বিভিন্ন ইনফেকশনের সঙ্গে লড়াই করে। এই জুস থেকে আপনারা পাবেন ভিটামিন এ, সি ও বি-৬, পটাসিয়াম ও ফলিক এসিড।

টমেটোর জুস২. টমেটোর জুস

টমেটোর জুস কতটা উপকারী তা অনেকেরই অজানা। এতে রয়েছে উচ্চ মাত্রায় ফলেট যা প্রদাহজনিত বিভিন্ন রোগ থেকে সুরক্ষা দেয়। টমেটোর জুসে আরো রয়েছে ভিটামিন এ ও সি, আয়রন ও ফলেট।

বিটরুট, গাজর, আদা ও হলুদের জুস৩. বিটরুট, গাজর, আদা ও হলুদের জুস

এই চার উপাদান থেকে তৈরি জুস শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে দুর্দান্ত কাজ করে। এ কারণে ফ্লু থেকে সহজেই নিস্তার মেলে। যদি আপনার নাক দিয়ে পানি পড়ে সঙ্গে কাশি ও শরীর ব্যথা থাকে তবে এই জুসে স্বস্তি মিলবে। এমনকি যাদের বাতের ব্যথা রয়েছে তারা এটি পান করলেই মুহূর্তেই ব্যথামুক্ত হবেন। এই চার উপাদানের জুসে রয়েছে ভিটামিন এ, সি ও ই, আয়রন ও ক্যালসিয়াম।

৪. তরমুজের জুস

তরমুজের রসতরমুজ খেলে শুধু রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাই বাড়বে না বরং পেশির ব্যথাও কমবে। ফ্লুতে আক্রান্ত হওয়ার প্রথম লক্ষণই হলো শরীর ব্যথা। এই ফলে রয়েছে প্রচুর পানি যা জুস তৈরির কাজ আরো সহজ করে দেয়। সঙ্গে মিশিয়ে নিন পুদিনা পাতা। চাইলে এর সঙ্গে আপেল বা কমলাও মিশিয়ে নিতে পারেন। এই জুসে রয়েছে ভিটামিন এ ও সি, ম্যাগনেসিয়াম ও জিঙ্ক।

স্ট্রবেরি ও আমের জুস৫. স্ট্রবেরি ও আমের জুস

এই দুটি ফল সবারই পছন্দের। আমে রয়েছে ভিটামিন ই ও অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এই দুই উপাদানের জুস থেকে আপনারা পাবেন ভিটামিন এ, সি ও ই, আয়রন ও ফলেট।

সূত্র: হেলথলাইন

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস