ঠাকুরগাঁওয়ে শিশুদের চিকিৎসায় মেডিকেল টিম

ঢাকা, সোমবার   ২৪ জুন ২০১৯,   আষাঢ় ১১ ১৪২৬,   ২০ শাওয়াল ১৪৪০

ঠাকুরগাঁওয়ে শিশুদের চিকিৎসায় মেডিকেল টিম

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: ১৪:০৩ ১৩ জানুয়ারি ২০১৯   আপডেট: ১৪:০৩ ১৩ জানুয়ারি ২০১৯

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ঠাকুরগাঁওয়ে তীব্র থেকে মাঝারী শৈত্যপ্রবাহ অব্যাহত রয়েছে। প্রতিদিন সকাল ৮-৯টার পর থেকে দুপুর পর্যন্ত দিনের তাপমাত্রা কিছুটা বাড়লেও হিমেল বাতাসের প্রভাবে বিকেল থেকে তাপমাত্রা কমে রাতে ৭-৮ ডিগ্রিতে দাঁড়ায়।

তবে অন্যবারের মত এবার দিনের বেলা শীতের তীব্রতা ও কুয়াশা না থাকলেও অনেক বেলা অবধি বিভিন্ন যানবাহনকে হেডলাইট জ্বালিয়ে চলতে দেখা যাচ্ছে।

এদিকে ঘনকুয়াশা  আর প্রচণ্ড শীতের কারণে আধুনিক সদর হাসপাতালে শিশু রোগীর সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। হাসপাতালে ১৮ শয্যার শিশু বিভাগে বর্তমানে ভর্তি রয়েছে ১৭১টি শিশু। ফলে ডাক্তারসহ সেবিকাদের হিমশিম খেতে হচ্ছে।  এছাড়া গত কয়েকদিন থেকে গড়ে প্রতিদিন এ হাসপাতালে ৭০-৮০ জন শিশু শীতজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হচ্ছে। গত ৭ দিনে আধুনিক সদর হাসপাতালে নবজাতকসহ শীতজনিত রোগে ৪ শিশু মারা গেছে। এ জেলাসহ আশপাশের জেলা থেকেও শিশু রোগী প্রতিনিয়ত ভর্তি হচ্ছে এ হাসপাতালে। এসব রোগীদের মধ্যে ডায়রিয়া, নিমোনিয়া, শ্বাসকষ্ট, বমি ও শীতজনিত অসুস্থ্য শিশুরোগীর সংখ্যাই বেশি। ফলে অতিরিক্ত রোগীর ভীড়ে শিশু ওয়ার্ডে পা ফেলার স্থান মিলছে না। 

শনিবার দুপুরে রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. অমল চন্দ্র শাহা ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতাল পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি হাসপাতালে ভর্তিকৃত অসুস্থ্য শিশুদের অভিভাকদের সঙ্গে কথা বলেন এবং শিশুদের তীব্র শীতের ছোবল থেকে রক্ষায় পরামর্শ দেন।

পরে তিনি হাসপাতালে ভর্তিকৃত অসুস্থ্য শিশুসহ অন্যান্য রোগীদের অবিরাম ২৪ ঘন্টা জরুরি চিকিৎসা প্রদানের লক্ষ্যে ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন ও শিশু কনসালটেন্ট ডা. শাহজাহান নেওয়াজকে প্রধান করে দুইটি বিশেষ মেডিকেল টিম গঠন করেন।

ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. অমল চন্দ্র শাহা বলেন, অসুস্থ্য শিশুদের সার্বিক চিকিৎসায় কোন ওষুধের ঘাটতি নেই। তাদের সেবা প্রদানের চেষ্টা অব্যহত রয়েছে।        

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম